রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

ল্যাপটপ মেলা শেষ দিনেও ছিল মুখর

প্রকাশিত : ১৭ মে ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ‘ল্যাপটপ মেলায় প্রথমবারের মতো এসেছি। স্বল্প বাজেটের মধ্যে ল্যাপটপ কিনতে পেরে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। সবার সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে এখন আর কোন বাধা রইল না’- কথাগুলো বলছিলেন সদূর কেরানীগঞ্জ থেকে আগত ব্যবসায়ী মোঃ আলমগীর। তিনি আসুস ব্র্যান্ডের একটি ল্যাপটপ কেনেন ২৫ হাজার ৫০০ টাকায়। প্রতিটি কোম্পানির মতো আসুসেও ছিল বিশেষ ছাড়। ছাড় পেয়ে উচ্ছ্বসিত আলমগীর। তিনি বলেন, ৩ হাজার টাকা ছাড় পেয়েছি। বিশেষ অফার পেলে সবারই ভাল লাগে। লেনোভোর স্টলে দেখা হলো বরিশাল সদরের বাসিন্দা মুশফিকুর রহমানের সঙ্গে। লেনেভো ব্র্যান্ডের ৪০৮০ সিরিজের ল্যাপটপ ক্রয়ের পর মুশফিকুর জনকণ্ঠকে বলেন, ‘তুলনামূলকভাবে মেলায় প্রযুক্তি পণ্যের দাম কম। অনেক ব্র্যান্ড আছে, পছন্দ করে কেনা যাচ্ছে। প্রযুক্তি পণ্য ক্রয়ের জন্যে ল্যাপটপ মেলা বিশেষ সুযোগের সৃষ্টি হয়েছে।’ রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত ল্যাপটপ মেলার শেষ দিনেও ক্রেতা বিক্রেতার পদচারণায় মুখর ছিল প্রতিটি স্টল। মেলা থেকে বের হয়ে আসার সময় প্রতি ১০ জনের মধ্যে অন্তত ৩ জনের হাতে ল্যাপটপ দেখা যাচ্ছিল। অতি প্রয়োজনীয় প্রযুক্তি পণ্য ক্রয় শেষে সবার মধ্যেই বাঁধ ভাঙ্গা উল্লাস লক্ষ্য করা গেছে।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) চলমান তিন দিনব্যাপী ‘টেকশহরডটকম ল্যাপটপ মেলা’র শেষ দিনের চিত্র ছিল এটি। সবার জন্য ল্যাপটপ সেøাগানকে সামনে রেখে আয়োজিত ওই মেলায় অংশ নেয় দেশ ও বিদেশের শীর্ষ স্থানীয় প্রযুক্তি কোম্পানিগুলো।

মেলায় প্রযুক্তি পণ্যের প্রতিটি কোম্পানি দেয় বিশেষ ছাড়। সর্বোচ্চ ৫০ শতাংশ পর্যন্তও ছাড় দেয়া হয়, ডেল এ ছাড় প্রদান করে। এছাড়া ৫০ শতাংশ মূল্য ছাড়ে এইচপি প্রোবুক ইউইউইউ ৫এস মডেলের ডিভাইস বিক্রি হয় মাত্র ২৭ হাজার টাকায়। এইচপি, এসার, আসুস, টোশিবাও পণ্য ভেদে বিশেষ ছাড় প্রদান করে।

মেলায় থেকে ছাড় মূল্যে এইচপি ব্র্যান্ডের ল্যাপটপ কেনেন রাজীব হাসান। তিনি ছাড় পেয়েছেন ৫ হাজার টাকা। হাসান জানান, বিশেষ ছাড় থাকে বলে মেলা থেকে ল্যাপটপ কেনেছি। প্রযুক্তি পণ্যে আরও বেশি বেশি ছাড় থাকা উচিত। এসার ব্র্যান্ডের ল্যাপটপ কিনে ছাড়ের সঙ্গে একটি গেঞ্জি উপহার পেয়েছেন আশিক। তরুণ এ শিক্ষার্থী বলেন, মেলাঘুরে প্রযুক্তির সর্বশেষ তথ্যও পেলাম। নতুন সিরিজের অনেক পণ্য দেখতে পেয়েছি। ল্যাপটপ কিনতে পেরে অনেক দিনের শখ পূরণ হলো।

আয়োজকরা জানান, প্রথম দুদিন তুলনামূলক বেশি বিক্রি হয়েছে কমদামী ল্যাপটপগুলো। যাদের বাজেট একটু বেশি ও কাজের সুবিধার জন্য হাইএন্ডের ল্যাপটপ দরকার তারাও কয়েক হাজার টাকা ছাড়ে এসব ল্যাপটপ কিনছেন। সঙ্গে এক বা একাধিক উপহারও পাচ্ছেন ক্রেতারা। তবে শেষ দিনে এসে অধীক ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

এইচপি ব্র্যান্ডের বিক্রয় কর্মকর্তা আজাদুল আহসান তালুকদার জনকণ্ঠকে বলেন, অনেক আনন্দ ফুর্তির মাধ্যমে আমরা আমাদের পণ্য বিক্রি করছি। সবার অংশগ্রহণে মেলা ছিল উৎসবমুখর। আমাদের পণ্যে বিশেষ ছাড় ছাড়াও নানা উপহার ছিল।

মেলায় কর্মরত আশিকুর রহমান নামে একজন জানান, বিক্রির দিক দিয়ে এগিয়ে আছে এইচপি ব্র্যান্ডের পণ্য। এসার, আসুস ও ডেল ক্রমানুসারে তার পরেই। ট্যাবের দাম কম থাকায় এই পণ্যের বিক্রির হারও অনেক বেশি।

শেষ দিনে নতুন পণ্য হিসেবে ৩৬০ ডিগ্রী এঙ্গেলে ঘুরিয়ে ট্যাব হিসেবেও ব্যবহার উপযোগী নতুন একটি মডেল আনে ডেল। ডেলের মতো অন্যান্য প্রতিষ্ঠানও নতুন পণ্য নিয়ে হাজির ছিল শেষ দিন। শেষ দিনে লেনেভো ১০টি নতুন ল্যাপটপ আনে মেলায়।

মেলা আয়োজকের পরিচালনা বিভাগের প্রধান নাহিদ হাসনাইন সিদ্দিকী জনকণ্ঠকে বলেন, গতকাল বৃষ্টি হওয়া সত্ত্বেও মেলায় তেমন কোন প্রভাব পড়েনি। শেষ দিনে সকাল থেকেই ছিল উপচে পড়া ভিড়। লাইনে দাঁড়িয়ে সবাই টিকেট ক্রয় করে মেলায় প্রবেশ করেন। শুধু যে ঘুরে দেখেছে তা নয়, প্রযুক্তি পণ্য ক্রয়ও করছেন। প্রতিটি কোম্পানি নতুন নতুন পণ্য নিয়েও হাজির হয়েছিল।

তিনি আরও বলেন, মেলায় প্রতিটি কোম্পানির ছিল বিশেষ ছাড়। ল্যাপটপ কিনে কেউ কেউ এলইডি মনিটরও উপহার পেয়েছেন।

প্রকাশিত : ১৭ মে ২০১৫

১৭/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: