মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

শিমুলিয়া ফেরিঘাটে অবৈধ দোকানপাটে বেপরোয়া চাঁদাবাজি

প্রকাশিত : ১৭ মে ২০১৫
  • যাত্রী দুর্ভোগ

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ ॥ শিমুলিয়া ফেরিঘাটের বিআইডব্লিউটি-এর যাত্রী হাঁটার রাস্তায় ও পার্কিং ইয়ার্ডের ভিতরে অবৈধভাবে গড়ে উঠেছে দেড় শতাধিক বিভিন্ন দোকানপাট। এতে যাত্রীদের চলতে-ফিরতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। আর এসব দোকানপাট থেকে প্রতিদিই স্থানীয় একটি চাঁদাবাজ চক্র দোকানপ্রতি ৫০ থেকে ১০০ টাকা করে চাঁদা উঠাচ্ছে। এভাবে মাসে এসব অবৈধ দোকান ও হকারদের কাছ থেকে এক থেকে দেড় লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে চাঁদাবাজ ওই চক্রটি। সরেজমিনে শিমুলিয়া ঘাটে গিয়ে দেখা যায়, যাত্রীদের জন্য নির্মিত টিন কোড পায়ে হাঁটার রাস্তায় অসংখ্য লেচু ও ফলের দোকান। এ ছাড়াও রয়েছে নানা রকমের হকারদের উৎপাত। এতে যাত্রীদের চলাচলে মারাত্মক সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। এ সময় কথা হয় মাদারীপুরগামী যাত্রী মোস্তাক হোসেনের সঙ্গে। তিনি বলেন, বর্তমানে ঢাকার সদরঘাট হকার ও অবৈধ দোকানপাটমুক্ত। কিন্তু এখানে এসে দেখলাম ভিন্ন চিত্র। এখানে হকার ও দোকানদারের উৎপাতে আমাদের চলাচলে মারাত্মক অসুবিধা হচ্ছে। এসব ব্যাপারে কথা বলতে গেলে উল্টো আমাদের লাঞ্ছিত ও নাজেহাল হতে হচ্ছে দোকানি ও হকারদের হাতে। ব্যাপারে শিমুলিয়াঘাটের (মাওয়া) বিআইডব্লিউটি-এর বন্দর ও পরিবহন কর্মকর্তা মোঃ মহিউদ্দিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে, তিনি বলেন, এসব দোকান সব অবৈধ। আমি এসব দোকান পাট উচ্ছেদের জন্য বহুবার চেষ্টা করেছি। কিন্তু আমি পারিনি। আমি বার বার মাওয়া নৌ-পুলিশ ফাড়ির আইসি এসআই ইউনুছকে দোকানপাট উচ্ছেদের জন্য সহযোগিতা চেয়েছি। কিন্তু তিনি কোন সহযোগিতা করছে না। তাই দোকানপাটও উচ্ছেদ করা সম্ভব হচ্ছে না। এ ব্যাপারে মাওয়া নৌ-পুলিশ ফাড়ির আইসি এসআই ইউনুস আলীর বলেন, বন্দর কর্মকর্তা যখন সহযোগিতা চায়, আমি সহযোগিতা করি। তবে এসব দোকানপাট উচ্ছেদ হয় না কেন?- এ প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, এটা তার ব্যাপার। তাঁর সহযোগিতা দরকার হলে লিখিতভাবে আবেদন করুক আমি সহযোগিতা করবো।

বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রে বিকাশের ৩০ হাজার বই প্রদান

স্কুল ও কলেজ ছাত্রদের জন্য পরিচালিত বই পড়া কর্মসূচী ‘দেশ-ভিত্তিক উৎকর্ষ কার্যক্রম’ এ সহায়তা প্রদানের উদ্দেশ্যে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রকে ৩০,০০০ বই প্রদান করছে বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বিকাশ। বিকাশ হতে প্রাপ্ত এই বই ৪০০টি স্কুলে প্রতি বছর ৩০,০০০ শিক্ষার্থীর কাছে পৌঁছে দেয়া হবে। বেসামরিক বিমান ও পর্যটন বিষয়ক মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে এই কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন। উক্ত অনুষ্ঠানে বিকাশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কামাল কাদীর বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও প্রধান নির্বাহী অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদের হাতে অনুদানের বইগুলো তুলে দেন। অনুষ্ঠানে উভয় প্রতিষ্ঠানের উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। -বিজ্ঞপ্তি

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রথম সভা

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আনিসুল হকের সভাপতিত্বে সাধারণ ওয়ার্ড ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সকল কাউন্সিলরের উপস্থিতিতে ১৪ মে প্রথম কর্পোরেশন সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের সচিব আবু ছাইদ শেখ। ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বি এম এনামুল হক ডিএনসিসির বিভিন্ন বিভাগের কার্যক্রমের সংক্ষিপ্ত একটি উপস্থাপনা সভায় তুলে করেন। কাউন্সিলরগণ স¦-স্ব ওয়ার্ডের বিদ্যমান নানান সমস্যা সম্পর্কে সভাকে অবহিত করেন। মেয়র তাঁর বক্তব্যে বিভিন্ন সমস্যার যৌক্তিক সমাধানের আশ্বাস প্রদান করেন। -বিজ্ঞপ্তি

প্রকাশিত : ১৭ মে ২০১৫

১৭/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: