কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

দ: চীন সাগর ॥ কঠোর মনোভাব গ্রহণ করবে যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিত : ১৫ মে ২০১৫
  • আগামীকাল বেজিং সফরে যাচ্ছেন কেরি

মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের এক উর্ধতন কর্মকর্তা বুধবার বলেছেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি এই সপ্তাহান্তে বেজিং সফরের সময় দক্ষিণ চীন সাগরে অবাধে জাহাজ ও বিমান চলাচল নিশ্চিত করার জন্য সন্দেহাতীতভাবে ওয়াশিংটনের অঙ্গীকার তুলে ধরবেন। প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংসহ চীনা নেতৃবৃন্দের সঙ্গে সম্ভাব্য উত্তপ্ত বৈঠকগুলোতে কেরি সতর্ক করে দেবেন যে, বিরোধপূর্ণ সাগরে চীনের ভূমি পুনরুদ্ধার কাজ আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা এবং যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্কের ক্ষেত্রে নেতিবাচক পরিণতি ডেকে আনতে পাবে। খবর ইকোনমিক টাইমসের।

মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের এক কর্মকর্তা বলেন, পেন্টাগন বিরোধপূর্ণ চীন সাগরে দ্রুত বৃদ্ধি পাওয়া চীনা নির্মিত কৃত্রিম দ্বীপের চারদিকে জাহাজ চলাচলের স্বাধীনতা দৃঢ়তার সঙ্গে তুলে ধরতে সেখানে সামরিক বিমান ও জাহাজ পাঠানোর বিষয় বিবেচনা করছে। চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এর জবাবে বলেছে, বেজিং এ ব্যাপারে ‘চরম উদ্বিগ্ন’ এবং ব্যাখ্যা দাবি করছে। মার্কিন সহকারী প্রতিরক্ষামন্ত্রী ডেভিড শিয়ার সিনেটের এক শুনানিতে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র চীনের দাবিকৃত সমুদ্র এলাকা দিয়ে যাতায়াতের অধিকার রয়েছে। তিনি বলেন, ‘আমরা ভূমি পুনরুদ্ধারের সম্ভাব্য সামরিক পরিণতির সক্রিয়ভাবে মূল্যায়ন করছি এবং কার্যকর ও যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণে অঙ্গীকারাবদ্ধ।’ তিনি এ ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু বলেননি। পররাষ্ট্র দফতরের এ উর্ধতন কর্মকর্তা বলেন, ‘মার্কিন নৌবাহিনী কি করতে পারে অথবা পারে না বেজিংয়ে সে প্রশ্ন চীনারা স্বাধীনভাবে কেরিকে করতে পারে। বেসামরিক এবং সামরিক নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলোচনার জন্য কেরি শনিবার বেজিং পৌঁছাবেন।

আগামী মাসে ওয়াশিংটনে যুক্তরাষ্ট্র-চীন বার্ষিক কৌশলগত ও অর্থনৈতিক সংলাপ এবং সেপ্টেম্বরে শি’র সম্ভাব্য ওয়াশিংটন সফরের প্রস্তুতি গ্রহণের উদ্দেশ্যে কেরি এই সফর করছেন। কিন্তু সহযোগিতার বদলে ক্রমবর্ধমান কৌশলগত প্রতিদ্বন্দ্বিতা দৃশ্যত প্রাধান্য বিস্তার করে আছে। চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনইয়িং বলেছেন, জাহাজ চলাচলের স্বাধীনতার অর্থ এটি নয় যে, বিদেশী সামরিক জাহাজ ও বিমান অপর দেশের আঞ্চলিক জল অথবা আকাশসীমায় ইচ্ছামতো প্রবেশ করতে পারবে। বৃহস্পতিবার প্রভাবশালী চীনা ট্যাবলয়েড গ্লোবাল টাইমস সতর্ক করে দিয়েছে যে, যুক্তরাষ্ট্র যদি দক্ষিণ চীন সাগরে সামরিক বাহিনী পাঠায় তবে দেশটি শক্তি পরীক্ষার ঝুঁকি নিচ্ছে।

প্রকাশিত : ১৫ মে ২০১৫

১৫/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: