মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

৯৮ শতাংশ নারীর কাজে বাধা দেয় স্বামী

প্রকাশিত : ১৪ মে ২০১৫, ০২:৪১ পি. এম.

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাড়ির বাইরে কাজ করতে ৯৮ শতাংশ নারীই তার স্বামীর পায় বলে বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘের (বিএনপিএস) এক জরিপে উঠে এসেছে।

রাজধানীর খিলগাঁও, চট্টগ্রাম শহর, চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ, নেত্রকোনা শহর ও নেত্রকোনার বারহাট্টা- এই পাঁচ অঞ্চলের ৩শ ২০ জন নারীর উপর জরিপটি চালানো হয়।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে জরিপের এ তথ্য তুলে ধরেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. সায়মা হক বিদিশা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় সংসদের সরকারি দলের হুইপ মাহাবুব আরা গিনি, সংসদ সদস্য সানজিদা খানম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক বজলুল হক খন্দকার, জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক আইনুর নাহার প্রমুখ।

জরিপ প্রতিবেদনে বলা হয়, নারীরা প্রতিদিন পরিবারের কাজে প্রায় ৯.২৫ ঘণ্টা সময় ব্যয় করেন। যেখানে পুরুষরা গড়ে সময় ব্যয় করেন ২.৩৯ ঘণ্টা।

নারীদের চলাফেরা বিষয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রায় ৯৮ শতাংশ নারী বাড়ির বাইরে কাজ করতে গিয়ে স্বামীর বাধা পান। বাবার বাড়ি যাওয়ার ক্ষেত্রে এ বাধার হার ৯৪ শতাংশ।

প্রতিবেশীর সঙ্গে যোগাযোগে স্বামীর কাছ থেকে বাধা পাওয়ার হার ৯০ শতাংশের উপরে। ৯৩ শতাংশ নারী ডাক্তার দেখানোর ক্ষেত্রে স্বামীর বাধা পান। বন্ধু অথবা আত্মীয়র সঙ্গে দেখা করার ক্ষেত্রে বাধা পাওয়ার এ হার ৯৪ শতাংশ বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।

অনুষ্ঠানে মাহাবুব আরা গিনি বলেন, নিজের অধিকার নিজেকে প্রতিষ্ঠা করতে হবে। তবে ঘরের কাজ করা মানেই আত্মসমর্পণ করা নয়। আমি নিজে ঘরের কাজ করতে পছন্দ করি। এটিকে কেউ অত্মসমর্পণ মনে করেলে সেটি তার বিষয়। আমি আত্মসমর্পণ মনে করি না।

সংসদ সদস্য সানজিদা খানম বলেন, এক সময় স্কুলে শিক্ষার্থীদের ভর্তির ক্ষেত্রে বাবার নাম ব্যবহার করা হতো। এখন মায়ের নামও ব্যবহার করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নারীর ক্ষমতায়ন প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে। তবে আমাদের আরও এগিয়ে যেতে হবে।

প্রকাশিত : ১৪ মে ২০১৫, ০২:৪১ পি. এম.

১৪/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: