মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

লণ্ড ভণ্ড পাক ক্রিকেটে চলছে পরস্পরকে দোষারোপ!

প্রকাশিত : ১৪ মে ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশের কাছে প্রথমবারের মতো ওয়ানডে সিরিজ হেরেছে পাকিস্তান। হোয়াইটওয়াশ হয়েছে। সেই সঙ্গে প্রথমবারের মতো হেরেছে টি২০ ম্যাচও। এতে ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়েই শুধু পাকিস্তানের পতন হয়নি; লণ্ড ভণ্ড হয়ে গেছে পাকিস্তানের ক্রিকেট। এখন এতটাই খারাপ অবস্থা চলছে পাকিস্তান ক্রিকেটে, একে অপরকে দোষারোপ করেই যাচ্ছেন। বাংলাদেশের কাছে বাজেভাবে হারের কারণে পাকিস্তানের ক্রিকেট বোর্ডসহ খেলোয়াড়দের নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা চলছে। সমালোচকরা এর দায়ভার চাপাচ্ছেন ক্রিকেট বোর্ড, কোচসহ সংশ্লিষ্টদের ওপর। আর ক্রিকেট বোর্ড চাপাচ্ছে খেলোয়াড়দের ফিটনেসের ওপর। এভাবেই চলছে দোষারোপ। পাকিস্তানের ক্রিকেট খেলা এখন পরিণত হয়েছে দোষারোপের খেলায়! এ পরাজয়ে আইসিসি ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে পাকিস্তান নবম স্থানে নেমে গেছে। ২০০২ সালে র‌্যাঙ্কিং চালু হওয়ার পর এই প্রথম সবচেয়ে খারাপ অবস্থানে আছে দেশটি। র‌্যাঙ্কিংয়ে নেমে আসার কারণে ইংল্যান্ডে ২০১৭ সালে অনুষ্ঠিতব্য দলটি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি খেলতে পারবে কিনা, তা নিয়ে সংশয় সৃষ্টি হয়েছে। এ খেলায় শীর্ষ আটটি দল খেলতে পারবে। ১৯৯২ সালে বিশ্বকাপ এনে দেয়া অধিনায়ক ইমরান খান বাংলাদেশের সঙ্গে এ পরাজয়কে ‘অকল্পনীয়’ বলে উল্লেখ করেছেন। আর সাবেক অধিনায়ক রমিজ রাজা বলেছেন, ক্রিকেট ইতিহাসে পাকিস্তানের সর্বনিম্ন পয়েন্ট এটা। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) চেয়ারম্যান শাহরিয়ার খান বলেছেন, ‘এ পরাজয়ের কারণ গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করা হবে। সঙ্গে বলেছেন, ‘বিশ্বে সবচেয়ে খারাপ ফিটনেস পাকিস্তানী খেলোয়াড়দের। ইনজুরির কারণে বাংলাদেশ সফরে অনেক খেলোয়াড়কেই নেয়া সম্ভব হয়নি। এমনকি অনেক খেলোয়াড় সঠিকভাবে অনুশীলনও করতে পারেননি।’ সত্বরই জিম্বাবুয়ের সঙ্গে টি২০ এবং তিনটি আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচ খেলবে পাকিস্তান। ফলে আগে ভাগেই ক্রিকেট দলের পোস্টমোর্টেমের কাজ শুরু করতে যাচ্ছে কর্তৃপক্ষ। ২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট দলের বাসে জঙ্গী হামলার পর কোন দেশ আর টেস্ট খেলতে পাকিস্তানে যায়নি। ওই হামলায় ৮ জন নিহত এবং সাতজন খেলোয়াড় আহত হয়েছিলেন। টেস্ট অধিনায়ক মিসবাহ-উল হক ওই ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারের আহ্বান জানিয়ে আসছেন। সাবেক টেস্ট অধিনায়ক ইনজামাম-উল হক বলেছেন, ‘পাকিস্তানে কোন দল খেলতে না আসায় খেলোয়াড়দের দক্ষতার অভাব দেখা দিচ্ছে। কারণ এর মাধ্যমে আমরা খেলোয়াড়দের দক্ষতা বাড়িয়ে তুলতে পারি।’ পিসিবি জানিয়েছে, ২০০৯ সালের পর পাকিস্তান সংযুক্ত আরব আমিরাতে ‘হোমগ্রাউন্ড’ হিসেবে বিভিন্ন দলের সঙ্গে খেলে আসছে। ইনজামামের মতে, ‘খেলোয়াড়দের বিভিন্ন দেশে না খেলতে পাঠালে তাদের ফার্স্ট ক্লাসে উঠানো সম্ভব নয়। তাদের ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া এবং দক্ষিণ আফ্রিকার মতো দেশে খেলতে পাঠানো উচিত। না হলে তারা ওয়ানডে এবং টেস্টে নিজেদের ভালভাবে মানিয়ে নিতে পারবে না।’ সাবেক অধিনায়ক রশিদ লতিফ তো কোচ ওয়াকার ইউনুসকে পদ থেকে সরানোর পক্ষে। বলেছেন, ‘আমার মতে সবচেয়ে ভাল হয় যদি ওয়াকার ইউনুস তার দায়িত্ব থেকে নিজ থেকেই সরে যান। ক্রিকেটে বাংলাদেশ দল উন্নতি করছে। কিন্তু তার মানে এই নয় যে পাকিস্তানের এভাবে পরাজয় হবে।’

প্রকাশিত : ১৪ মে ২০১৫

১৪/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: