কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সীমান্ত পেরিয়ে চীনা স্মার্টফোনের বাজার, দৃষ্টি ভারতের দিকে

প্রকাশিত : ১৪ মে ২০১৫

চীনে স্মার্টফোন প্রস্তুতকারকদের প্রধান বাজার এখন আর চীনের মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই। বছরের পর বছর ধরে চীনারাই ছিল এর প্রধান ক্রেতা। হুয়াউই ও লেনোভোর মতো নামকরা ব্র্যান্ড থেকে কুলপ্যাড ও জিয়োনির মতো অপেক্ষাকৃত কম পরিচিত ব্র্যান্ডের সব ধরনের মোবাইল সেট চীনারা নিজেদের স্থানীয় বাজার থেকে কিনতো।

কিন্তু চীনের অর্থনীতি দ্রুত প্রবৃদ্ধির যুগে প্রবেশের পর সে ধারা পাল্টে গেছে। গবেষণা সংস্থা আইডিসির সোমবার প্রকাশিত রিপোর্টে বলা হয়েছে, গত বছরের তুলনায় এ বছর প্রথম তিন মাসে (অভ্যন্তরীণ বাজারে) স্মার্টফোন বিক্রি ৪ শতাংশ কমে গেছে। গত ছয় বছরের মধ্যে এ ধরনের প্রবণতা এই প্রথম দেখা গেল। আইডিসি ধারণা করছে, ২০১৫ সালে চীনের বাজারে স্মার্টফোন বিক্রিতে কোন প্রবৃদ্ধি ঘটবে না। সংস্থাটির হিসাবে চীনে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৮০ কোটির বেশি। জনসংখ্যা অনুযায়ী দেশটির অভ্যন্তরীণ বাজারে স্মার্টফোনের চাহিদা পূরণ হয়ে গেছে। নতুন করে খুব বেশি ক্রেতা আর ফোন কিনছে না। চীনা ফোন প্রস্তুতকারকদের দৃষ্টি এখন ভারতের ১ হাজার ৪৫০ কোটি ডলারের মোবাইল ফোন বাজারের দিকে। শেনজেন ভিত্তিক চীনা প্রতিষ্ঠান কুলপ্যাডের প্রধান নির্বাহী বরুন শর্মা বলছেন যে, ‘ভারত আমাদের জন্য প্রথম।’ তিনি জানান যে, ভারতের বাজারে ১শ’ ডলারের কাছাকাছি মূল্যে মোবাইল সেট বিক্রি করা তাদের লক্ষ্য। গ্লোবাল ব্র্যান্ডগুলো যেমন ৮শ’ থেকে এক হাজার ডলারে বিক্রি হচ্ছে সেটি তাদের লক্ষ্য নয়। ভারতের স্মার্টফোনের বাজারটি চীনের মতো এত বিশাল নয়। তবে এটি বিশ্বের অন্যতম দ্রুত বর্ধিঞ্চু স্মার্টফোন বাজার। কারণ এখানে অগণিত সম্ভাবনাময় নতুন কাস্টমার আছে। স্মার্টফোনের ক্রেতাদের একটি বড় অংশ নতুন প্রজন্ম। এর মধ্য দিয়ে তাদের পছন্দ সরাসরি জানা যাচ্ছে। ব্যবসা দেশের সীমান্তের বাইরে ছড়িয়ে দিতে ভারত চীনা হার্ডওয়্যার কোম্পানিগুলোর জন্য নির্দেশনা সূচক হিসাবে কাজ করছে।

ভারতের বাজারে ১৫০টির বেশি স্মার্টফোন ব্র্যান্ড রয়েছে। এখানে বেস্ট সেলিং গ্লোবাল ব্র্যান্ডের পাশাপাশি আছে কিছু স্থানীয় কোম্পানি। স্যামসাংয়ের মতো নামকরা মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানি যেমন আছে তেমনি আছে চীনের স্থানীয় ব্র্যান্ড জিয়াওমি। গত বছর শেষ তিন মাসে এটি ভারতের বাজারের ৪ শতাংশ দখল করে রেখেছিল। আশা করা হচ্ছে, এ বছর ভারতের বাজারে ১১ কোটি ১০ লাখ এবং আগামী বছর ১৪ কোটি ৯০ লাখ মোবাইল সেট বিক্রি হবে। -ইন্টারন্যাশনাল নিউইয়র্ক টাইমস

প্রকাশিত : ১৪ মে ২০১৫

১৪/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: