আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

জিহাদীদের সঙ্গে বিয়ে হওয়া তিন ব্রিটিশ কন্যা পালিয়েছে

প্রকাশিত : ১৪ মে ২০১৫

আইএসএর হাত থেকে পালিয়ে বেড়ানো তিন ব্রিটিশ কিশোরী লন্ডনের সেই স্কুল শিক্ষার্থীরা হতে পারে যারা এ বছরের গোড়ার দিকে পালিয়ে গিয়েছিল। ইরাকের একজন ব্লগার দাবি করেছেন যে, ওই সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আইএস চরমপন্থীদের সঙ্গে বিয়ের পর পলাতক তিন ব্রিটিশ জিহাদী বধূকে হন্যে হয়ে খুঁজে বেড়াচ্ছে। তাদের বয়স ১৬-এর আশপাশে এবং আইএস মসুলে তাদের সন্ধান পেতে ‘জোর তল্লাশি চালাচ্ছে। মসুল আই ফেসবুকের পাতায় বলা হয়েছে ওই মেয়েদের পরিচয় জানা যায়নি। তবে তারা গত ফেব্রুয়ারিতে লন্ডনের বেথনাল গ্রিন ত্যাগ করে সিরিয়াগামী তাদের একজন বন্ধুকে অনুসরণ করা শামীমা বেগম ও আমিরা আব্বাস, যাদের দু’জনেরই বয়স ১৫ এবং খাদিজা সুলতানা (১৬) বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। গত মাসে তারা সিরীয় শহর রাকাতে ছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে মসুল সীমান্তের ওপারে গাড়িতে মাত্র ৬ ঘণ্টার পথ। পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনীর সূত্র তাদের পলায়নের খবরটি জেনে গেছে। তাদের খবরটি মসুল আইর ফেসবুক পেজে প্রকাশিত হয়েছে। মসুল আই ইরাকের একজন ব্লগার হতে পারে, যিনি এই পেজ খুলেছেন, ‘মসুলের ভেতর থেকে একজন স্বতন্ত্র ইতিহাসবিদ প্রতি মিনিটে মসুলে কি ঘটছে তা বহির্বিশ্বকে জানাত।’ অজ্ঞাতনামা ওই ব্লগার আইএসবিরোধী। তিনি গোষ্ঠীর অভ্যন্তরীণ কর্মপদ্ধতি, তাদের হাতে বেসামরিক লোকদের প্রাণবধ এবং জোটের বিমান হামলায় তাদের হতাহত হওয়ার খবর ইংরেজি ও আরবীতে বিস্তারিত লিখে থাকেন। ২ মে মসুল আইর পোস্টে বলা হয় : ‘তিনটি মেয়ে (বিদেশী-ব্রিটিশ) আইএস চরমপন্থীদের সঙ্গে বিবাহিতা, নিখোঁজ বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে এবং আইএস সকল চেকপয়েন্টে তাদের খুঁজে বের করার জন্য ঘোষণা দিয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে ওই মেয়েগুলো পালিয়ে গেছে।’ খবর টেলিগ্রাফের।

প্রকাশিত : ১৪ মে ২০১৫

১৪/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: