আংশিক রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৭.৮ °C
 
২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৭, ১১ ফাল্গুন ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বার কাউন্সিলের নির্বাচন ৭ দিন পেছাল

প্রকাশিত : ১৩ মে ২০১৫, ০১:৫০ এ. এম.

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আইনজীবীদের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ বার কাউন্সিল নির্বাচনের ভোট গ্রহণের দিন সাত দিন পিছিয়ে ২৭ মে নির্ধারণ করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে বার কাউন্সিলের এক জরুরী তলবি সভায় এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। ভোটার তালিকা নিয়ে প্রশ্ন ওঠার পর এ জরুরী তলবি সভা আহ্বান করা হয়। সভা শেষে বার কাউন্সিলের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) নাজমুল আহসান জনকণ্ঠকে এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, রাত ৮টায় এ সভা শুরু হওয়ায় কথা থাকলেও সভা শুরু হয় রাত সাড়ে ১০টায়। পরে রাত পৌনে ১টায় সভা শেষ হয়। বার কাউন্সিলের চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানসহ ১৫ সদস্যের মধ্যে ১৪ জনই এ সভায় উপস্থিত ছিলেন। একজন দেশের বাইরে থাকায় উপস্থিত থাকতে পারেননি বলে তিনি জানান।

এদিকে সভার অন্য একটি সূত্র জনকণ্ঠকে জানিয়েছে, সভায় বার কাউন্সিলের ভোটার তালিকায় আইনজীবীদের অন্তর্ভুক্তির তারিখ ও স্ব স্ব বারের সদস্য নম্বর যুক্ত করে সংশোধনের জন্য দুই থেকে তিন সপ্তাহের সময় চাওয়া হয়, কাউন্সিলের সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীরাও একই সময় লাগবে বলে সভায় মত দেন। এর পর সভাস্থলে উত্তপ্ত পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। সূত্রটি আরও জানিয়েছে, পরে নির্বাহী কমিটির কয়েকজন সদস্য এক সপ্তাহের মধ্যে ভোটার তালিকায় সম্পূর্ণ সংশোধনী আনা যাবে বলে মত দিলে ২৭ মে বার কাউন্সিলের ভোট গ্রহণের দিন ঠিক করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ৯ এপ্রিল ৪৮ হাজার ৪৬৫ জনের চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করার পর বার কাউন্সিলের পাঁচ জন সদস্য এবং ১০১ জন আইনজীবী ভোটার তালিকায় দ্বৈত ভৈাটারের বিষয়ে অভিযোগ দেন। এসব অভিযোগের পরই মূলত ভোটার তালিকা সংশোধনের কার্যক্রম শুরু হয়। তবে যে প্রক্রিয়ায় সংশোধন করা হচ্ছিল তাও বেআইনী বলে দাবি তোলেন অভিযোগকারীরা। ভোটার তালিকায় আইনজীবীদের অন্তর্ভুক্তির তারিখ ও স্ব স্ব বারের সদস্য নম্বর না থাকায় সবাই আসল ভোটার কিনা, তা শনাক্ত করা যাবে না বলে, অভিযোগ ছিল তাদের।

প্রকাশিত : ১৩ মে ২০১৫, ০১:৫০ এ. এম.

১৩/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: