রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

জাতীয় ফুটবল দলের ক্যাম্পে দুই নতুন মুখ

প্রকাশিত : ১৩ মে ২০১৫
  • এশিয়ান ও বিশ্বকাপ বাছাই প্রস্তুতি ম্যাচ
  • সাত পুরনোর সঙ্গে বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত জার্মান প্রবাসী রিয়াসাত রয়েছেন তালিকায়

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আগামী ১১ জুন কিরগিজস্তান এবং ১৬ জুন তাজাখস্তানের বিরুদ্ধে ঢাকায় ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব ও ২০১৯ সংযুক্ত আরব আমিরাত এশিয়ান কাপের বাছাইপর্বের ম্যাচে অংশ নেবে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল। সেই ম্যাচ দুটি খেলার আগে সিঙ্গাপুর ও আফগানিস্তান জাতীয় দলের সঙ্গে দুটি ম্যাচ খেলে নিজেদের ঝালিয়ে নিতে চায় ‘বেঙ্গল টাইগার্স’খ্যাত বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল। সিঙ্গাপুরের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ মাঠে নামবে আগামী ৩০ মে, আর আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ২ জুন। দুটি ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে, বিকেল ৪টায়। সিঙ্গাপুর জাতীয় দল আসছে আগামী ২৮ মে। আর আফগানিস্তান আসবে ৩০ বা ৩১ মে। দুটি ম্যাচই পাবে ফিফার স্বীকৃতি। এ লক্ষ্যে মঙ্গলবার বাংলাদেশ জাতীয় দলের ডাচ্ কোচ লোডভিক ডি ক্র্ইুফ ৩২ ফুটবলারকে নিয়ে ঘোষণা করেছেন প্রাথমিক স্কোয়াড। দলে স্থান পেয়েছেন নতুন দুই ফুটবলার। জাতীয় দলে নতুন দুই মুখ হলেন ঢাকা মোহামেডানের গোলরক্ষক আশরাফুল ইসলাম রানা, টিম বিজেএমসির গোলরক্ষক মোহাম্মদ নাঈম। চলমান পেশাদার লীগে ভাল খেলে ক্রুইফের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন সাত ফুটবলার। তাছাড়া ফিলিপিন্স লীগে ভাল খেলে পুনরায় ডাক পেয়েছেন জার্মান প্রবাসী বাংলাদেশী রিয়াসাত খাতন। ক্যাম্পে আবারও ডাক পাওয়া বাংলাদেশ প্রিমিয়ার এই সাত ফুটবলার হলেন : রেজাউল করিম, (শেখ রাসেল), কেষ্ট কুমার বোস (শেখ জামাল), শাহেদুল আলম (ঢাকা আবাহনী), ইমন মাহমুদ (ঢাকা আবাহনী), এনামুল হক (মুক্তিযোদ্ধা), তৌহিদুল আলম সবুজ (মোহামেডান) ও জুয়েল রানা (মোহামেডান)। এ ছাড়া জাতীয় দলে আগে খেলেছেন, এমন তিন ফুটবলার বাদ পড়েছেন। এঁরা হলেন দুই ফরোয়ার্ড মিঠুন চৌধুরী এবং সাখাওয়াত হোসেন রনি ও আতিকুর রহমান মিশু। ডাক পাওয়া ৩২ জনের মধ্যে সর্বাধিক ১৫ জনই হচ্ছেন শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাবের। এ ছাড়া ঢাকা আবাহনীর ৬, শেখ রাসেলের ৫, মোহামেডানের ৩, টিম বিজেএমসির ১, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ১ এবং জার্মান প্রবাসী ১ জন ফুটবলার আছেন।

ডাক পাওয়া খেলোয়াড়দের আগামী ১৭ মে বাফুফে ভবনে রিপোর্ট করতে হবে। চলমান লীগে যেসব খেলোয়াড়ের প্রথম লেগের খেলা শেষ, সেসব খেলোয়াড় রিপোর্ট করে ক্যাম্পেই অবস্থান করবেন। আর যাদের খেলা চলছে তারা নির্ধারিত ম্যাচে অংশ নিয়ে ক্যাম্পে যোগ দেবেন। এভাবে সপ্তাহখানেক বাফুফেতে অবস্থান করেই ক্যাম্পে অংশ নেবেন তারা। পরে সাভারের জিরানীর বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্যাম্প স্থানান্তর করা হতে পারে। ২১ মে পেশাদার লীগের প্রথম লেগ শেষে প্রাথমিক দলের সবাই ক্যাম্পে অংশ নেবেন। এ ছাড়াও অনুশীলন ভেন্যু হিসেবে সিলেট, দিনাজপুর ও খুলনার কথাও ভাবছে বাফুফে।

৩২ জনের প্রাথমিক দল ॥ গোলরক্ষক : রাসেল মাহমুদ, শহীদুল আলম, মাজহারুল ইসলাম, মোহাম্মদ নাঈম, আশরাফুল ইসলাম রানা; ডিফেন্ডার : রায়হান হাসান, নাসির উদ্দিন চৌধুরী, তপু বর্মণ, নাসিরুল ইসলাম নাসির, ইয়াসিন খান, ইয়ামিন আহমেদ চৌধুরী মুন্না, মোহাম্মদ লিঙ্কন, রেজাউল করিম, কেষ্ট কুমার বোস; মিডফিল্ডার : হেমন্ত ভিনসেন্ট বিশ্বাস, জামাল ভূঁইয়া, মামুনুল ইসলাম, সোহেল রানা, মোনায়েম খান রাজু, শাহেদুল আলম, রিয়াসাত খাতন, ইমন মাহমুদ; ফরোয়ার্ড : তকলিস আহমেদ, ওয়াহেদ আহমেদ, জাহিদ হোসেন, জাহিদ হাসান এমিলি, আবুল বাতেন মজুমদার কোমল, জুয়েল রানা, আমিনুর রহমান সজীব, রুবেল মিয়া, এনামুল হক এবং তৌহিদুল আলম সবুজ।

প্রকাশিত : ১৩ মে ২০১৫

১৩/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: