মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

রিনি ও তাহসিনের আবৃত্তি সঙ্কলনের প্রকাশনা

প্রকাশিত : ১২ মে ২০১৫
  • সংস্কৃতি সংবাদ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ পশ্চিমবঙ্গের তারা বাংলা চ্যানেলের জনপ্রিয় উপস্থাপিকা রিনি বিশ্বাস। তাঁর আরেক পরিচয় হচ্ছে আবৃত্তিশিল্পী। সেই পরিচয়ের সূত্র ধরেই এদেশে প্রকাশিত হলো তাঁর আবৃত্তির এ্যালবাম। রিনির সঙ্গে কবিতার দোলায়িত ছন্দে সংকলনটিতে আবৃত্তি করেছেন এদেশের আবৃত্তিশিল্পী তাহসিন রেজা। দুই বাংলার বাকশিল্পীর যুগলবন্দী আবৃত্তির সংকলনটির শিরোনাম ‘কথা পুরুষ কবিতা নারী’। প্রকাশ করেছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান লেজার ভিশন। সোমবার বৈশাখী সন্ধ্যায় বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র মিলনায়তনে আবৃত্তি এ্যালবামটির প্রকাশনা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে সংকলনটির মোড়ক উন্মোচন করা হয়। মোড় উন্মোচন করেন লেজার ভিশনের চেয়ারম্যান একেএম আরিফুর রহমান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাজহারুল ইসলাম এবং দুই আবৃত্তিশিল্পী তাহসিন রেজা ও রিনি বিশ্বাস। এ সময় আবৃত্তি সংকলন নিয়ে নিজেদের অনুভূতি প্রকাশ করেন রিনি ও তাহসিন।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বটি ছিল দারুণ আকর্ষণীয়। এ্যালবামের কবিতাগুলো পাঠ করেন দুই বাকশিল্পী। মিলনায়তন ভর্তি শ্রোতাকে প্রাণবন্ত আবৃত্তির মাধ্যমে কবিতার মায়াজালে মন্ত্রমুগ্ধ করেন তাহসিন ও রিনি। শুরুতেই ‘মাঝে মাঝে’ শীর্ষক কবিতাটি যুগলকণ্ঠে পাঠ করেন দুই শিল্পী। এরপর একে এক পঠিত হয় এ্যালবামে ঠাঁই পাওয়া অন্য কবিতাগুলো। আবৃত্তি সংকলনটিতে ঠাঁই পেয়েছে দুই বাংলার কবিদের রচিত কুড়িটি কবিতা। এসব কবিতার মধ্যে রয়েছে শামসুর রাহমানের ‘কেউ কি এখন’, নির্মলেন্দু গুণের ‘সেই প্রজাপতি’, জয় গোস্বামীর ‘জল হাওয়ার লেখা’, পুর্নেন্দু পত্রীর ‘সেই গল্পটা’, প্রমোদ বসুর ‘দাম্পত্য’, রফিক আজাদের ‘তুমি : বিশ বছর আগে পরে’, আবুল হাসানের ‘যুগল সন্ধি’, রুদ্র মুহম্মদ শহীদুল্লাহর ‘এ কেন ভ্রান্তি আমার’, মহাদেব সাহার ‘আকাশের কথা’, সুবোধ সরকারের ‘মেয়েটা এবং ছেলেটা’, শুভ্রজিৎ ভট্টাচার্যের ‘প্রতিবিম্বেও তুমি’ এবং তাহসিন রেজার ‘কি করিনি’।

আবিষ্কার প্রকাশনী ১৫ গ্রন্থের প্রকাশনা ॥ প্রকাশনা সংস্থা আবিষ্কার থেকে প্রকাশিত হলো সমরেশ মজুমদারের উপন্যাসসমগ্রসহ বিভিন্ন লেখকের লেখা ১৫টি গ্রন্থ। সোমবার বিকেলে প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে বইগুলোর প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বরেণ্য ও কিংবদন্তি কথাসিহিত্যক সমরেশ মজুমদার, কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা এবং কথাশিল্পী শাহিদ বেগম। প্রকাশনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ইমিরেটাস অধ্যাপক আনিসুজ্জামান।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে স্বরচিত কবিতা পাঠ করেন কবি মুহম্মদ নুরুল হুদা, হাবিবুল্লাহ সিরাজী, মতিন বৈরাগী, হাসান হাফিজ, আসাদ মান্নান, জাহাঙ্গীর ফিরোজ, মৃত্তিকা গুণ প্রমুখ।

দাঁতের ব্যথার কারণে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সংক্ষিপ্তভাবে সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করেন সমরেশ মজুমদার। পরে অনুষ্ঠান প্রাঙ্গণের বাইরে এসে তিনি বলেন, রাজনৈতিক সংঘাত না থাকায় এবার বাংলাদেশে এসে খুব ভাল লেগেছে।

প্রকাশিত গ্রন্থগুলো হলোÑ সমরেশ মজুমদারে উপন্যাস সমগ্র-১, নীরা লাহিড়ীর উপন্যাস ‘নীপা’, ড. মোঃ রেজাউল করিমের গ্রন্থ ‘মুন্সী প্রেমচাঁদের উপন্যাস বিষয় ও শিল্পরূপ’, ড. মোহাম্মদ বাহাউদ্দিন, মারুফুল ইসলামের গ্রন্থ ‘নির্বাচিত কবিতা’, ফরিদ আহমদ দুলালের সম্পাদিত গ্রন্থ ‘কবি ও কবিতা’, শিরীন আখতারের ‘শেখ আন্দু’, হাসান হাফিজের ‘পাখির চোখে দেখা’, বকুল আশরাফের ‘অনাকাক্সিক্ষত ভাঙচুর’, ড. আব্দুল মান্নান শিকদারের ‘আবার শূন্যতা’, মোহাম্মদ লুৎফর রহমানের চার্লি এ্যান্ড দ্য চকলেট ফ্যাক্টরি’, রফিক হাসানের ‘কোরান এল কেমন করে’, শাহ আবদুল মজিদ বুলুর চোখের দেখা আরব দেশ, মোহাম্মদ শহীদুল্লাহর ‘ম্যাঁও ডট কম’, ও রাহাত মোস্তাফিজের ‘যে মেঘ রোদ্দুর ছুঁয়েছিল।

শিল্পকলায় মঞ্চস্থ মাঝরাতের মানুষেরা ॥ সোমবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার এক্সপেরিমেন্টাল থিয়েটার হলে মঞ্চস্থ হলো লোক নাট্যদলের নাটক মাঝরাতের মানুষেরা। এটি ছিল নাটকটির ৫৪তম মঞ্চায়ন। চীনের নির্বাসিত নাট্যকার গাও সিং জীয়ান রচিত প্রযোজনাটির রূপান্তর করেছেন ড. আবদুস সেলিম। নির্দেশনা দিয়েছেন লিয়াকত আলী লাকী।

মানুষের সৃজনশীলতা, মানবিক গুণাবলী ও মূল্যবোধ আজ ক্ষয়িষ্ণু। সমাজে ভাল মানুষ ভাল থাকতে পারছে না- জড়িয়ে পরছে মন্দ কাজের সঙ্গে। আর বিবেকবান মানুষ নিয়ত পরাজিত হচ্ছে তার বিবেকের কাছেÑ এটাই এই নাটকের মূল প্রতিপাদ্য বিষয়।

প্রকাশিত : ১২ মে ২০১৫

১২/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: