কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

কিশোরগঞ্জের ৫ রাজাকারের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিল

প্রকাশিত : ১১ মে ২০১৫
  • যুদ্ধাপরাধী বিচার
  • অভিযোগ আমলে নেয়া হবে কিনা আদেশ ১৩ মে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে কিশোরগঞ্জের পাঁচ রাজাকারের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিল করেছে প্রসিকিউশন। হত্যা, গণহত্যা, নির্যাতন, অপহরণসহ মোট সাতটি অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে ঐ ৫ রাজাকারের বিরুদ্ধে। এ আনুষ্ঠানিক অভিযোগ আমলে নেয়া হবে কি-না সে বিষয়ে শুনানি ও আদেশের দিন ধার্য্য করা হয়েছে ১৩ মে। অন্যদিকে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় জামালপুরের আট রাজাকারের মধ্যে পলাতক ছয়জন আইনের দৃষ্টিতে পলাতক কি-না সে বিষয়ে ১৭ মের মধ্যে ট্রাইব্যুনালকে জানাতে প্রসিকিউশনকে বলা হয়েছে। পাশাপাশি পলাতক আসামিদের গ্রেফতার করতে না পারায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ট্রাইব্যুনাল।

রবিবার আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ ও ২ এ আদেশগুলো প্রদান করেছে।

মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে কিশোরগঞ্জের পাঁচ রাজাকারের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিল করেছে প্রসিকিউশন। মামলা আমলে নেবে কিনা সে বিষয়ে আদেশ প্রদান করা হবে ১৩ মে। চেয়ারম্যান বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বে তিন সদস্যবিশিষ্ট আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ রবিবার এ আদেশ প্রদান করেছে। ট্রাইব্যুনালের অন্য দুই সদস্য ছিলেন বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিম ও বিচারপতি আনোয়ারুল হক। এ সময় ট্রাইব্যুনালে উপস্থিত ছিলেন প্রসিকিউটর সুলতান মুহাম্মদ সিমন ও প্রসিকিউটর রাজিয়া সুলতানা বেগম চমন।

মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় পলাতক আসামিদের গ্রেফতার করতে না পারায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে ট্রাইব্যুনাল। একটি মামলায় কিশোরগঞ্জের পাঁচজনের মধ্যে চারজন পলাতক রয়েছে। এ সময় আদালত বলেন, ‘আমরা গ্রেফতারের আদেশ দেই। কিন্তু পুলিশ তাদের গ্রেফতার করতে পারে না।’ আসামিদের গ্রেফতার করতে না পারায় পুলিশের দক্ষতা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন ট্রাইব্যুনাল। এ বিষয়ে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আদালতকে জানান, তারা এ বিষয়ে আলোচনা করে দেখবেন।

গ্রেফতারেরা হলেন- শহরের নয়াপাড়া এলাকার এ্যাডভোকেট শামছুল হক (৭৫) ও সিহংজানি বালক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক ফুলবাড়িয়ার বাসিন্দা এসএম ইউসুফ আলী (৮২)। এ মামলায় পলাতক ছয়জন হলেন- মোঃ আশরাফ হোসেন, অধ্যাপক শরীফ আহমেদ ওরফে শরীফ হোসেন, মোঃ আব্দুল মান্নান, মোঃ আব্দুল বারি, হারুন, মোঃ আবুল কাসেম।

এই ৫ জনের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে, প্রথম অভিযোগ-কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ থানার বিদ্যানগর গ্রাম, আয়লা গ্রাম, ফতেরগোপ বিল ও কিরাটন বিল সংলগ্ন আশপাশে ৮জনকে হত্যা, একজনকে আহত করা। দ্বিতীয় অভিযোগ-আয়লা গ্রামে মিয়া হোসেনকে হত্যা। তৃতীয় অভিযোগ- মোঃ আব্দুল গফুরকে অপহরণ করে হত্যা। চতুর্র্থ অভিযোগ- আতকাপাড়া গামে মো:ঃ ফজলুর রহমান মাস্টারকে অপহরণ, নির্যাতন ও হত্যা। পঞ্চম অভিযোগ-রামনগর গ্রামের পরেশ চন্দ্র সরকারকে হত্যা। ষষ্ঠ অভিযোগÑ আবু বকর সিদ্দিক ও রূপালিকে অপহরণপূর্বক নির্যাতন, হত্যা, লাশ গুম। সপ্তম অভিযোগ-আকতাপাড়া গ্রামে অগ্নিসংযোগ করে ঘরবাড়ির ধ্বংস।

জামালপুরের ৮ রাজাকার ॥ একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় জামালপুরের আটজনের মধ্যে পলাতক ছয়জন আইনের দৃষ্টিতে পলাতক কি-না সে বিষয়ে আগামী ১৭ মের মধ্যে ট্রাইব্যুনালকে জানাতে প্রসিকিউশনকে বলা হয়েছে। চেয়ারম্যান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান শাহীনের নেতৃত্বে তিন সদস্যবিশিষ্ট আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ রবিবার এ আদেশ প্রদান করেছেন। ট্রাইব্যুনালে অন্য দুই সদস্য ছিলেন বিচারপতি মোঃ মুজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মোঃ শাহিনুর ইসলাম। এ সময প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার তাপস কান্তি বল উপস্থিত ছিলেন।

একটি মামলার ওই আট আসামি হলেন- আশরাফ হোসেন, অধ্যাপক শরীফ আহম্মেদ ওরফে শরীফ হোসেন, মোঃ আবদুল মান্নান, মোঃ আবদুল বারী, মোঃ হারুন, মোঃ আবুল হাশেম, এ্যাডভোকেট শামসুল আলম ওরফে বদর ভাই ও এস এম ইউসুফ আলী। এর মধ্যে এ্যাডভোকেট শামসুল আলম ও এস এম ইউসুফ আলী গ্রেফতার হয়ে কারাগারে থাকলেও পলাতক রয়েছেন বাকি ছয়জন। এর আগে গত ৬ মে পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের বিষয়ে আইজিপির দেয়া প্রতিবেদনকে উদ্ধৃত করে প্রসিকিউটর তাপস কান্তি বল জানিয়েছিলেন, পুলিশ তাদের গ্রেফতার করতে পারেনি। তবে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

প্রকাশিত : ১১ মে ২০১৫

১১/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: