কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

উচ্চ ও নিম্ন আদালতে বিচারাধীন ॥ ৩০ লাখ মামলা

প্রকাশিত : ১১ মে ২০১৫
  • বিচারক সঙ্কট, সাক্ষী গরহাজির- নানা কারণে লেগেছে মামলাজট
  • দু’একটি ক্ষেত্রে সুয়োমোটো রুলে জনগণ উপকৃত হচ্ছেন
  • বিকল্প নিষ্পত্তির ওপর জোর দিলেন সাবেক আইনমন্ত্রী

বিকাশ দত্ত ॥ আমলাতান্ত্রিক জটিলতা, বিচারক সঙ্কট, সাক্ষীদের গরহাজির, কিছু আইনজীবীর ভূমিকায় দেশের উচ্চ ও নিম্ন আদালতে প্রায় ৩০ লাখ মামলা বিচারাধীন রয়েছে। মামলা দায়েরের চেয়ে নিষ্পত্তির হার অনেকাংশে কম। ফলে প্রতিদিন নতুন করে মামলাজটে যুক্ত হচ্ছে সিংহভাগ মামলা। এর কারণ হিসেবে জানা গেছে বিচারক স্বল্পতা, আইনজীবীদের ভূমিকা, সর্বোপরি মান্ধাতা আমলের দেওয়ানী ও ফৌজদারি মামলাই এ জট সৃষ্টি। এদিকে আদালত জনস্বার্থে সুয়োমোটো রুল (স্বপ্রণোদিত আদেশ) জারি করছেন। কোন আইনজীবী বা জনগণ মামলা করছেন না যেখানে, সেখানে আদালত নজরে এনে আদেশ প্রদান করছেন। এতে ভুক্তভোগীগণ দ্রুত ফল পাচ্ছেন। পাশাপাশি আদালতের নির্দিষ্ট মামলার শুনানিতে স্বল্প বিঘœ হলেও সুয়োমোটো রুল ইতোমধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে।

আইনজীবীরা বলেছেন, যেখানে উচ্চ আদালতসহ নিম্ন আদালতে পাহাড়সম মামলা জমে আছে সেখানে স্বপ্রণোদিত আদেশ আশার আলো দেখাচ্ছে। এ প্রসঙ্গে সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহম্মেদ জনকণ্ঠকে বলেছেন, সুয়োমোটো পাবলিক ইন্টারেস্টে দিচ্ছে। বিচার বিভাগের ক্ষমতা আছে। গ্রামেগঞ্জে সালিশ হচ্ছে, সেখানে মহিলাদের পেটানো হচ্ছে। সালিশের নামে নির্যাতন, ঘর থেকে বের করে দেয়াসহ নানা কর্মকা- হয়ে থাকে। সালিশের নামে সেখানে ইচ্ছা করে আইন ভঙ্গ করা হচ্ছে। বিষয়টি আদালত নজরে নিতে পারে। এর কারণে মামলায় দেরি হচ্ছে না। মামলাজট নিরসনে বিকল্প বিরোধ নিষ্পক্তি (এডিআর) পদ্ধতি অনুসরণ করলেই সুফল পাওয়া যাবে। উভয়পক্ষকে যদি বোঝানো যায় মামলা করলে ১০ বছর ক্ষতি হয়ে যাবে, সেক্ষেত্রে বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তিতে এগিয়ে এলে দুই পক্ষই লাভবান হবে। দেশের আদালতসমূহের মামলাজট কমাতে বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তির ওপর জোর দেন তিনি।

এদিকে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা সম্প্রতি একটি অনুষ্ঠানে বলেছেন, আমলাতান্ত্রিক জটিলতা ও বিচারপতিদের বসার জন্য কক্ষের অভাবে বিচারকাজ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। এতে মামলাজট বাড়ছে। সনাতনী পদ্ধতিতে চলছে প্রশাসনিক কার্যক্রম। জাতীয় ও জেলা পর্যায়ে প্রশাসনিক অবকাঠামো, বিচারক স্বল্পতা, আইনজীবী ও আদালতের প্রতি অবিশ্বাসসহ নানাবিধ সমস্যা রয়েছে। প্রশাসনের কর্মকর্তারা ঠিকমত অফিসে আসেন না। দুপুর দুটোর পর অনেক আইনজীবীকেও দেখা যায় না। স্পেশাল কোর্টের জন্য বিশেষ কোন ব্যবস্থা নেই। বিচারপতিদের বসার স্থানের অভাবে কোন বিচারক সকালে বসছেন আর অন্যকে বিকেলে দ্বিতীয় সেশনে বসতে হচ্ছে। তাহলে বিচারকরা ৩০ লাখ মামলা কমানোর প্রতি মনোযোগ দেবেন কি করে।

সুয়োমোটো রুল বছরে হাতেগোনা কয়েকটি দেয়া হয়। এ বছর ৪ থেকে পাঁচটি আদেশ হয়েছে। সুপ্রীমকোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ জনকন্ঠকে বলেন, সুয়োমোটো রুলের পজেটিভ দিক অবশ্যই আছে। কিছু বিষয় আছে সেখানে আমরা আইনজীবীরা যাই না। সেখানে আদালত নজরে এনে রুল জারি করেন। আদালত নজরে এনে রুল জারি করায় জনগণের অনেক উপকার হয়ে থাকে। তবে সুয়োমোটোর রুল খুবই অল্প হচ্ছে। এ বছর হয়েছে ৪/৫টি। তিনি আরও বলেন, জনস্বার্থে মামলা করি জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান সঠিকভাবে তাদের দায়িত্ব পালন করলে আমাদের মামলা নিয়ে দৌড়াতে হতো না। কিন্তু দেখা যাচ্ছে, স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান তাদের দায়িত্ব পালন করছে না। জনগণ তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। ফলে জনস্বার্থে মামলা হচ্ছে। উচ্চ আদাালতের রায়ের পর জনগণ তাদের অধিকার ফিরে পাচ্ছে। কাজেই এখন জনস্বার্থে দায়েরকৃত মামলাগুলো জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

সম্প্রতি বিচারপতি কাজী রেজাউল হক ও বিচারপতি আবু তাহের মোঃ সাইফুর রহমানের সমন্বয়ে হাইকোর্টের দ্বৈত বেঞ্চ কয়েকটি সুয়োমোটো রুল জারি করেছেন। এর মধ্যে রয়েছে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন এলাকায় বনগ্রামে হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িতে, মন্দিরে হামলা এবং লুটপাটের ঘটনায় জড়িতদের বিরুেেদ্ধ ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ কেন দেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি এবং একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত দ-প্রাপ্ত রাজাকার শিরোমনি মরহুম গোলাম আযমের স্ত্রী ও আত্মীয়স্বজনদের হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ভিআইপি মর্যাদা দেয়ায় আইন ভঙ্গ হয়েছে মর্মে দোষীদের বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নেয়া হবে না জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়েছে। বেশ কিছুদিন আগে পটুয়াখালীতে গ্রাম্য সালিশে এক গৃহবধূকে নির্যাতনের ঘটনায় দোষী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কেন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে সুয়োমোটো (স্বতঃপ্রণোদিত) রুল জারি করা হয়। একইভাবে লালবাগে তিন শিশুকে থানায় আটকে রেখে নির্যাতনের ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে স্বপ্রণোতিদ হয়ে (সুয়োমোটো) রুল জারি করেছিলেন হাইকোর্ট। মাধবপুর উপজেলার সুলতানপুর গ্রামে সস্তানসহ ফেরদৌসীর আত্মাহুতির ঘটনায় পুলিশের দায়েরকৃত মামলায় আন্দিউড়া ইউপি চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান আতিকসহ ৯ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। হাইকোর্টের সুয়োমোটো (স্বপ্রণোদিত) রুলের জবাব দিতে হাইকোর্টে হাজির হলে হাইকোর্ট তাদের গ্রেফতারের নির্দেশ দেন।

প্রকাশিত : ১১ মে ২০১৫

১১/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: