মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ক্যামেরনই প্রধানমন্ত্রী থাকছেন

প্রকাশিত : ৯ মে ২০১৫

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ শেষ পর্যন্ত ডেভিড ক্যামেরনই থেকে যাচ্ছেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী। দেশটিতে বৃহস্পতিবারের সাধারণ নির্বাচনে তাঁর নেতৃত্বাধীন কনজারভেটিভ পার্টি একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে। মোট ৬৫০ আসনের মধ্যে দলটি পেয়েছে ৩২৭ আসন। অন্যদিকে লেবার পার্টি পেয়েছে ২৩২টি আসন। এছাড়া এবারের নির্বাচনে বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত তিন নারীর প্রত্যেকে লেবার দল থেকে জয়ী হয়েছেন। খবর বিবিসি ও ওয়েবসাইটের।

কনজারভেটিভ পার্টি একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে। মোট ৬৫০টি আসনের মধ্যে তারা পেয়েছে ৩২৭টি আসন। অন্যদিকে লেবার পার্টি পেয়েছে ২৩২টি আসন। এর পরেই বেশি আসন পেয়েছে স্কটিশ ন্যাশনাল পার্টি (এসএনপি)। তারা পেয়েছে ৫৬টি আসন। লিবারেল ডেমোক্র্যাটিক পার্টি পেয়েছে ৮টি আসন ও ইউকে ইনডিপেন্ডেন্ট পার্টি (ইউকিপ) পেয়েছে মাত্র একটি আসন। পরাজয়ের দায় স্বীকার করে লেবার পার্টির নেতৃত্ব থেকে ইস্তফা দিয়েছেন এড মিলিব্যান্ড। জনমত সমীক্ষাগুলো ইঙ্গিত দিচ্ছিল ব্রিটেনের ৫৬তম সাধারণ নির্বাচনে কোন দল একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না। কিন্তু প্রকাশিত ফলে সেটি দেখা যায়নি। স্কটল্যান্ডের জাতীয়তাবাদী দল এসএনপি ভাল ফল করেছে। স্কটল্যান্ডের ৫৯টি আসনের মধ্যে ৫৬টি এসএনপির দখলে এসেছে। আগের বারের থেকে ৪৯টি আসন বেশি পেয়েছে এসএনপি। আর লিবারেল ডেমোক্র্যাটদের ভাগ্যে এ পর্যন্ত জুটেছে ছ’টি আসন। নিজের কেন্দ্রে জয়ী হয়েছেন ক্যামেরন।

অন্যদিকে বৃহস্পতিবার ভোটের পর কঠিন একটি রাত কাটিয়েছে লেবার পার্টি, যেখানে শ্যাডো চ্যান্সেলর এড বলস নিজেও হেরে বসেছেন। বিরোধী দলে থাকা লেবার পার্টি এবার পেয়েছে ২৩২টি আসন। ৫৬টি আসনে জয় পাওয়া স্কটিশ ন্যাশনাল পার্টি (এসএনপি) স্কটল্যান্ড থেকে লেবার পার্টিকে এক প্রকার নির্মূলই করে দিয়েছে। এছাড়া লিবারেল ডেমোক্র্যাটরা ৮টি এবং ২৩টি আসনে অন্যান্য দল জিতেছে। ভোটের আগে যে প্রতিশ্রুতি ক্যামেরন দিয়েছিলেন টানা দ্বিতীয় মেয়াদে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বে এসে তা পূরণ করলে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার প্রশ্নে ২০১৭ সালে গণভোটের মুখোমুখি হতে হবে যুক্তরাজ্যকে।

গণমাধ্যমে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকা নির্বাচনে বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত তিন নারী প্রার্থীই নিজ নিজ নির্বাচনী এলাকা থেকে বিজয়ী হয়েছেন। তাঁরা সবাই লেবার পার্টির পক্ষে লড়াইয়ে অংশ নেন। এদের মধ্যে রূপা হক লন্ডনের ইলিং সেণ্ট্রাল ও একটন থেকে, টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক হ্যাম্পস্টিড ও কিলবার্ন থেকে এবং রুশনারা আলী বেথনেল গ্রিন ও বো থেকে নির্বাচিত হয়েছেন। লেবার নেতা এড মিলিব্যান্ড নির্বাচনে দলের ব্যর্থতার দায়িত্ব নিয়ে পদত্যাগ করেছেন। পদত্যাগের ঘোষণা দেয়ার আগে টুইটারে তিনি বলেন, দলের খারাপ ফলাফলের জন্য তিনি দায়িত্ব নিচ্ছেন। কনজারভেটিভ দলকে ক্ষমতা গ্রহণের জন্য এখন আর লিবারেল ডেমোক্র্যাট দলের সঙ্গে জোট বাঁধতে হবে না। পাঁচ বছর কনজারভেটিভের জোটসঙ্গী লিবারেল ডেমোক্র্যাট দলেরও এই নির্বাচনে ভরাডুবি হয়েছে। তারা পেয়েছে হাতেগোনা মাত্র কয়েকটি আসন।

প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত ব্রিটেনের পার্লামেন্ট নির্বাচনে ডেভিড ক্যামেরন পুনরায় নির্বাচিত হওয়ায় তাঁকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। খবর বাসসর।

ক্যামেরনের কাছে প্রেরিত এক অভিনন্দন বার্তায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, আপনি পুনর্নির্বাচিত হওয়ায় আমি আনন্দের সঙ্গে অভিনন্দন জানাচ্ছি। পুনরায় আপনার প্রতি জনগণের এই রায় ইউরোপে দ্রুত বর্ধনশীল বিশেষ করে যুক্তরাজ্যের অর্থনীতিকে জোরদার করার লক্ষ্যে আপনার নেতৃত্বের প্রতি জনগণের একটি সুস্পষ্ট স্বীকৃতি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাজ্য ও বাংলাদেশের মধ্যকার সম্পর্ক গণতন্ত্র, মানবাধিকার, আইনের শাসন, সেক্যুলারিজম এবং অভিন্ন ও পারস্পরিক কল্যাণমূলক স্বার্থের ভিত্তিতে পরিপক্কতা ও স্থায়িত্ব লাভ করেছে।

শেখ হাসিনা ক্যামেরন ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের সুস্বাস্থ্য, দীর্ঘজীবন কামনা করেন। তিনি ব্রিটেন ও উত্তর আয়ারল্যান্ডের জনগণের সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধিও কামনা করেন।

প্রকাশিত : ৯ মে ২০১৫

০৯/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: