কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আশা’ জিইয়ে রাখল বাংলাদেশ

প্রকাশিত : ৮ মে ২০১৫, ০৬:২৯ পি. এম.

আশা’ জিইয়ে রাখল বাংলাদেশ

স্পোর্টস রিপোর্টার॥ মিরপুর টেস্ট বাংলাদেশ জিতবে- চরম আশাবাদীরাও হয়তো জোর দিয়ে এ আশা করতে পারছেন না। আবার একেবারের নিরাশও হতে মন চাইছে না। খুলনা টেস্টে ২৯৬ রান পিছিয়ে থেকে যদি ৫৫৫/৬ করা যায়, তবে দুই দিন ও ৯ উইকেট হাতে রেখে ৫৫০ রান করা যাবে না! ৪৮ রানে ইমরুলের উইকেটটি না পড়লে দিনশেষে হয় তো আশাবাদীদের পাল্লাই ভারী হতো। কিন্তু বাস্তবতা হলো এই টেস্ট জিততে হলে টেস্ট ক্রিকেটের প্রায় দেড়শ বছরের ইতিহাসকে নতুন করে লিখতে হবে তামিম-মমিনুলদের।

মিরপুর টেস্টে পাকিস্তানের দেওয়া ৫৫০ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ১ উইকেটের বিনিময়ে ৬৩ রান নিয়ে ৩য় দিন শেষ করলো বাংলাদেশ। জয়ের বন্দরে পৌঁছতে ৪৮৭ রান চাই টাইগারদের। হাতে রয়েছে ৯ উইকেট। ১১.১ ওভার ইয়াসির শাহের বলে বোল্ড হন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ইমরুল কায়েস (১৬)। ৩২ রানে তামিম ইকবাল এবং ১৫ রানে মুমিনুল হক অপরাজিত আছেন।

মিরপুর টেস্টের ৩য় দিনের শেষ সেশনে ১৯৫ রানে ইনিংস ঘোষণা করেন পাকিস্তানের অধিনায়ক মিসবাহ-উল হক। ১ম ইনিংসে ৩৫৪ রানে এগিয়ে থাকায় ২য় ইনিংসে বাংলাদেশকে ৫৫০ রানের টার্গেট দিয়েছে অতিথিরা।

বাংলাদেশের পক্ষে মোহাম্মদ শহীদ ২টি এবং সৌম্য সরকার, তাইজুল ইসলাম, শুভাগত হোম এবং মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ১টি করে উইকেট নিয়েছেন।

এর আগে শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে গত বুধবার সকালে টসে জিতে পাকিস্তানকে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানান বাংলাদেশের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। টেস্টের ১ম দিন নির্ধারিত ৯০ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ৩২৩ রান করে পাকিস্তান। এরপর গতকাল বৃহস্পতিবার ১ম ২ সেশনে ৬২ ওভার ব্যাট করে আরও ২৩৪ রান তুলে অতিথিরা। সবমিলিয়ে ৮ উইকেটে ৫৫৭ রানে ইনিংস ঘোষণা করেন পাকিস্তানের অধিনায়ক মিসবাহ-উল হক।

পাকিস্তানের ১ম ইনিংসে ২২৬ রান করেন আজহার আলী। এছাড়া ইউনিস খান ১৪৮ রান এবং আসাদ শফিক ১০৭ রানের ইনিংস খেলেন।

বাংলাদেশের পক্ষে ৩টি উইকেট নিয়েছেন তাইজুল ইসলাম। এছাড়া মোহাম্মদ শহীদ ও শুভাগত হোম ২টি করে এবং সাকিব আল হাসান ১টি উইকেট নিয়েছেন।

বাংলাদেশের ১ম ইনিংসে সর্বোচ্চ ৮৯ রানে অপরাজিত থাকেন সাকিব আল হাসান। ৪১.৩ ওভারে ৭২ বল খেলে অর্ধশতক করেন তিনি। ১ম টেস্টের ২য় ইনিংসেও ৭৬ রানে অপরাজিত থাকেন এই অলরাউন্ডার।

পাকিস্তানের পক্ষে ওয়াহাব রিয়াজ ও ইয়াসির শাহ ৩টি করে উইকেট নিয়েছেন। এছাড়া জুনায়েদ খান ২টি এবং মোহাম্মদ হাফিজ ১টি উইকেট নেন।

প্রকাশিত : ৮ মে ২০১৫, ০৬:২৯ পি. এম.

০৮/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: