রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতার পথে কনজারভেটিভ পার্টি : বিবিসি’র পূর্বাভাস

প্রকাশিত : ৮ মে ২০১৫, ০২:০৩ পি. এম.

অনলাইন ডেস্ক॥ যুক্তরাজ্য নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতার পথে রয়েছে ডেভিড ক্যামেরনের ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টি। বিবিসি পূর্বাভাস দিয়েছে, দলটি ৩২৯ টি আসন পেতে যাচ্ছে। এরই মধ্যে ডেভিড ক্যামেরন সরকার গঠনের আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন বলেছেন, চূড়ান্ত ফলাফল সম্পর্কে কিছু বলার সময় এখনও আসেনি। তবে তিনি সরকার গঠনের আশাবাদ প্রকাশ করেছেন।

বার্তা সংস্থা এএফপি’র খবরে বলা হয়েছে, স্কটল্যান্ডে স্কটিশ ন্যাশনাল পার্টির (এসএনপি) কাছে লেবার পার্টি ধরাশায়ী হয়েছে এবং দলটি ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে তেমন ভাল করতে পারেনি।

লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির কমপক্ষে ১২ জন এমপি নির্বাচিত হতে পারেন। এদিকে ভিন্স ক্যাবল, এড ডেভি ও ড্যানি আলেকজান্ডার তাদের আসন হারাচ্ছেন।

বিবিসি’র পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ডেভিড ক্যামেরনের কনজারভেটিভ পার্টি ৩২৯ টি, লেবার পার্টি ২৩৩ টি, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি ৮ টি, এসএনপি ৫৬ টি, প্লেইড সিমরু ৩ টি, ইউকিপ পার্টি ২ টি, গ্রীন পার্টি ১ টি ও অন্যারা ২০ টি আসন পাচ্ছে।

নিক ক্লেগ শেফিল্ড হ্যালাম আসনে জয়ী হয়েছেন। তবে তিনি বলেন, তার পার্টির জন্য গত রাতটি ছিল ‘নিষ্ঠুর ও পীড়াদায়ক’। তিনি পরে তার ভবিষ্যত পরিকল্পনা নিয়ে বিবৃতি দেয়ার কথাও বলেন।

জর্জ গ্যালোওয়ে লেবার পর্টির হয়ে ব্রাডফোর্ড ওয়েস্টে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে হেরে গেছেন। স্কটিশ লেবার নেতা জিম মারফি ও ছায়া পরররাষ্ট্র মন্ত্রী ডগলাস আলেকজান্ডার এসএনপি’র কাছে আসন হারিয়েছেন।

সাবেক লিবারেল ডেমোক্রেটিক নেতা চার্লস কেনেডি রস, স্কাই ও লোকাবেরে এসএনপি’র কাছে আসন হারিয়েছেন। কনজারভেটিভ মন্ত্রী এস্তার ম্যাকভি উইরাল ওয়েস্টে লেবার পার্টির কাছে আসন হারিয়েছেন।

ডেভিড ক্যামেরন হুইটনি থেকে এমপি পুনঃনির্বাচিত হয়েছেন। তিনি তার ভাষণে বিজয়ী হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘আমার উদ্দেশ্য যুক্তরাজ্যে সবার জন্য সুশাসনের ভিত্তিতে শাসনকাজ পরিচালনা করা।’

তিনি বলেন, ‘আমি আমাদের দেশকে, আমাদের যুক্তরাজ্যকে ঐক্যবদ্ধ করতে চাই। আমরা অন্যান্য দলের সঙ্গে একসঙ্গে কাজ করতে চাই।’

ক্যামেরন বলেন, ‘এখন আমি দেশ পরিচালনার জন্য সরকার গঠন করতে চাই। আমি এক দেশ, এক যুক্তরাজ্য দেখতে চাই।’

যুক্তরাজ্যের সাধারণ নির্বাচনের ইতিহাসে সবচেয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ এই নির্বাচনে গতকাল বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল সাতটা থেকে (বাংলাদেশ সময় দুপুর ১২ টা) ভোট নেয়া শুরু হয়। শেষ হয় স্থানীয় সময় রাত ১০টায় (বাংলাদেশ সময় রাত তিনটা)।

আজ শুক্রবার বিকেলে ভোটের চূড়ান্ত ফল পাওয়া যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ১১ জন এই নির্বাচনে প্রধান তিনটি দলের মনোনয়নে প্রার্থী হয়েছেন।

এদিকে যুক্তরাজ্যের ৫৬ তম সাধারণ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষে একটি জরিপের ফল প্রকাশিত হয়। বিবিসি, স্কাই টিভি ও আইটিভি যৌথভাবে জরিপটি চালায়। ১৪০টি প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ভোট কেন্দ্রে ভোটগ্রহণের সময় জরিপটি চালানো হয়। এ ছাড়া ২০ হাজার ভোটারের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলা হয়। জরিপে বলা হয়েছিল, কনজারভেটিভ দল ৩১৬ টি, লেবার দল ২৩৯ টি, লিবারেল ডেমোক্রাটস ১০ টি, স্কটিশ ন্যাশনাল পার্টি (এসএনপি) ৫৮টি আসন পেতে পারে।

নির্বাচনের আগের রাতে ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়নে প্রকাশিত জরিপে বলা হয়েছিল, কনজারভেটিভ এবং লেবার উভয় দলই ২৭৩টি করে আসনে জিততে পারে। লিবারেল ডেমোক্রাটস ২৭ আসন এবং ইউকে ইনডিপেনডেন্ট পার্টি দুটি আসন পেতে পারে। অন্যদিকে স্কটল্যান্ডের ৫৯টি আসনের ৫২টিই স্কটিশ ন্যাশনাল পার্টি (এসএনপি) পেতে পারে।

অপরদিকে লেবার পার্টির নেতা এড মিলিব্যান্ড নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে হতাশা প্রকাশ প্রকাশ করেছেন। তিনি তার আসনে পুন:নির্বাচিত হওয়ার পর ভোটারদের উদ্দেশে বলেন, ‘নির্বাচনের ফলাফল এখন আসছে। তবে লেবার পার্টির জন্য এ ফলাফল খুবই হতাশাজনক এবং তাদের জন্য গতরাত ছিল অনেক কঠিন। আমরা ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে জিততে চাইলেও আমরা সেখানে সাফল্য পাইনি। এদিকে স্কটল্যান্ডে জাতীয়তাবাদের ব্যাপক উত্থানে সেখানে আমাদের দলের ভরাডুবি হয়েছে।’ সূত্র: বাসস

প্রকাশিত : ৮ মে ২০১৫, ০২:০৩ পি. এম.

০৮/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: