মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

নতুন কোচ নিয়ে আসবে ভারত

প্রকাশিত : ৮ মে ২০১৫
নতুন কোচ নিয়ে আসবে ভারত
  • বাংলাদেশ-ভারত সিরিজ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ জুনে বাংলাদেশ সফরে আসবে ভারত ক্রিকেট দল। বাংলাদেশের বিপক্ষে একটি টেস্ট ও তিনটি ওয়ানডে খেলবে। এ সিরিজের আগেই ভারত নতুন কোচ নিয়োগ দেবে। নতুন কোচ নিয়েই বাংলাদেশ সফরে আসবে ভারত। বিসিসিআই সেক্রেটারি অনুরাগ ঠাকুর এমনটিই জানিয়েছেন। ভারতের একটি চ্যানেলকে দেয়া স্বাক্ষাতকারে অনুরাগ জানিয়েছেন, ‘বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজে খেলতে যাওয়ার আগেই নতুন কোচ নিয়োগ দেয়া হবে।’ ডানকান ফ্লেচার এতদিন কোচ থাকলেও, তাকে বিদায় করে দিচ্ছে ভারত।

অনুরাগ বলেছেন, ‘ওয়ানডের অধিনায়ক থাকছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। টেস্টের অধিনায়ক হচ্ছেন বিরাট কোহলি। ২০১৯ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপের কথা ভেবেই কোচ নিয়োগ দেয়া হবে। সেটি নিয়ে দুই অধিনায়কের সঙ্গে আলোচনাও করা হবে।’ ৭ জুন বাংলাদেশ সফরে আসবে ভারত। ১০ জুন একমাত্র টেস্টটি শুরু হবে। এরপর ১৮, ২১ ও ২৪ জুন যথাক্রমে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় ওয়ানডে অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশ সফরে আসার আগেই নতুন কোচ ঘোষণা করা হবে। প্রশ্ন উঠে গেছে, কাকে নিয়োগ দেবে ভারত? অনেক নামই জানা যাচ্ছে। গতবছর আইপিএলে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের কোচের দায়িত্বে থাকা সঞ্জয় বাঙ্গার তালিকায় আছেন। সেই সঙ্গে বিশ্বকাপে ভারতের টিম ডিরেক্টর হিসেবে দায়িত্ব পালন করা রবি শাস্ত্রীর নামও শোনা যাচ্ছে। সেই সঙ্গে ভারত অরুণ ও অজিত ওয়াদেকারের নামও কোচ পদের জন্য তালিকায় আছেন। এখন পর্যন্ত কোচদের মধ্যে ওয়াদেকারের সাফল্য ঈর্ষণীয়ই। ১৯৯২-৯৬ সাল পর্যন্ত ভারত দলের হয়ে ৬৮টি ওয়ানডেতে কোচের দায়িত্ব পালন করেন। সাফল্য ৫৮.৮২ শতাংশ। দেশী কোচদের মধ্যে সবচেয়ে সফল। বিদেশী কোচদের মধ্যে ওয়ানডেতে ৯৩ ম্যাচে কোচের দায়িত্ব পালন করে গ্যারি কার্স্টটেন ৬৩.৪৪ ও জুনের প্রথম সপ্তাহেই সাবেক হয়ে যাবেন যিনি, সেই ফ্লেচার ১০৭ ওয়ানডেতে কোচ থেকে ৫৯.৮১ শতাংশ সাফল্য পেয়েছেন।

অনুরাগ বলেছেন, ‘আমরা দীর্ঘমেয়াদী কোচ চাচ্ছি। ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি ও ২০১৯ সালের বিশ্বকাপ পর্যন্ত কোচ নিয়োগ দেব।’ বিদেশী কোচদের তালিকায় করা হয়েছে। যাদের মধ্যে মাইক হাসি, টম মুডি ও এ্যান্ডি ফ্লাওয়ারের নামও শোনা যাচ্ছে। ফ্লাওয়ার ৫ বছর ইংল্যান্ডের সহকারী কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনবার এ্যাসেজ জিতেছেন। ২০১০ সালের টি২০ বিশ্বকাপে যে ইংল্যান্ড সর্বোচ্চ সাফল্য পেল, গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল ফ্লাওয়ারের।

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে মাইক হাসি দুর্দান্ত খেলেছেন। অনেক অভিজ্ঞতা আছে। এমনকি মহেন্দ্র সিং ধোনিও একসময় হাসির কথাই বলতেন। সাবেক শ্রীলঙ্কার কোচ টম মুডি এখন আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের কোচ। তাকে নিয়েও ভাবছে বিসিসিআই। সাবেক ভারত ক্রিকেটার ইয়াশপাল শর্মা আবার টম মুডিকেই কোচ হিসেবে দেখতে চাচ্ছেন। বলেছেন, ‘যদি বিসিসিআই বিদেশী কোচ নিয়োগ দেয়ার চিন্তা করে তাহলে টম মুডিকে নিতে পারে। কারণ, সে ক্রিকেটারদের আত্মবিশ্বাসী করে তুলতে পারেন।’ আর দেশী কাউকে নিয়োগ দেয়া হলে শর্মার পছন্দ রবি শাস্ত্রী। বলেছেন, ‘টিম ডিরেক্টর হিসেবে দুর্দান্ত দায়িত্ব পালন করেছেন রবি শাস্ত্রী। শাস্ত্রী স্থায়ী কোচের দায়িত্ব পেতেই পারেন। যেখানে সঞ্জয় বাঙ্গার ও ভারত অরুণের কথা শোনা যাচ্ছে, সেই তুলনায় শাস্ত্রীই ঠিক হবে। বাকি দুইজন কর্মকর্তার অবস্থানে থাকতে পারেন।’ যে কোচই দায়িত্ব নেক কিংবা বিসিসিআই দায়িত্ব দেক; কোচের মূল দায়িত্বই থাকবে বিদেশের মাটিতে রেকর্ড সাফল্য কুড়িয়ে আনা।

প্রকাশিত : ৮ মে ২০১৫

০৮/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: