মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

হার না মানা ঝুমুর

প্রকাশিত : ৭ মে ২০১৫

গলায় ক্যামেরা ঝুলিয়ে এক নারী ফটোসাংবাদিক হরতাল-অবরোধ-সহিংসতাকে পরোয়া না করে ছুটছেন অদম্য প্রাণশক্তি নিয়ে। চোখে-মুখে তার হার না মানা প্রত্যয়। টেলিভিশন পর্দায় এমনই এক অসাধারণ বিজ্ঞাপন এই হার না নারীকে রাতারাতি নিয়ে আসে লাইমলাইটে। তিনিই নাফিসা কামাল ঝুমুর। তবে প্রচ- ইচ্ছা শক্তির অধিকারী এই সুপার মডেল ও অভিনেত্রী মিডিয়া জগতে পদার্পণ করেছিলেন ২০১২ সালে ‘ভিট-চ্যানেল আই টপ মডেল’ প্রতিযোগিতার সেরা দশে অবস্থান পাকাপোক্ত করার মাধ্যমে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষার কারণে নিজেই প্রতিযোগিতা ছেড়ে চলে গেলেও আবার ডাক পান দেশের অন্যতম এই স্বনামধন্য কোম্পানির প্রমোশনাল মডেল হওয়ার জন্য। ভিটের বিজ্ঞাপনচিত্র ‘ভিট-সে নো টু রেজার’-এর মাধ্যমে বিস্ময়করভাবে ঝুমুরের খ্যাতি চারদিকে ছড়িয়ে যায়। এর পর ঝুমুরের শুধুই সাফল্যের হাতছানি। একে একে গ্রামীণফোন, মোজো, প্রাণ, রবিসহ বেশকিছু পণ্যের বিজ্ঞাপন করলেন ঝুমুর। তবে মিডিয়ামহলে ফেয়ার এ্যান্ড লাভলির ‘হার না মানা নারী’ বিজ্ঞাপনচিত্রটি প্রচুর নন্দিত হয়। তামিম ইকবালের সঙ্গে ফেয়ার এ্যান্ড লাভলির আরেকটি বিজ্ঞাপনচিত্রেও ঝুমুরের পারফর্মেন্স দর্শক পরিচিতি পেয়েছে দারুণভাবে। ঝুমুর র‌্যাম্পে কাজ করার পাশাপাশি বেছে বেছে করেছেন প্রচুর ফটোশূট ও বিজ্ঞাপনীর কাজ। অনন্যা প্রতিভার অধিকারী ঝুমুর করেছেন টিভিসি স্যামসাং, পুষ্টি চা এবং ফটোশূটের মধ্যে সিঙ্গার, স্যামসাং, এয়ারটেল, বুপ, স্বপ্ন লাইফ, ইনফিনিটি, রিলিউস, কে ক্রাফট, আইস-টুডে, চারবেলা চারদিক, ক্যানভাস, লুক, লুক এট মি ইত্যাদির কাজ। সর্বদা হাস্যোজ্জ্বল ও বন্ধুসুলভ মেয়ে ঝুমুর নিজের সম্পর্কে বলেন, ‘আমি প্রচ- ইচ্ছা শক্তির অধিকারী একটি মেয়ে। নিজের সঙ্গে নিজে চ্যালেঞ্জ নিয়ে সর্বদা সামনে অগ্রসর হই। আরেকটি ব্যাপার হলো, আমি সবসময় আমার সমালোচনাকে পজিটিভলি নেই এবং সেভাবে ভুল সুধরে নেয়ার চেষ্টা করি।’

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ’র এমবিএ বিভাগের মেধাবী ছাত্রী ও শিক্ষকদের প্রিয়মুখ ঝুমুর খুবই কম সময়ের মধ্যে দর্শকনন্দিত হন মিডিয়া জগতে তার সর্বক্ষেত্রে বিচরণের ফলে। প্রথম দিকে মিডিয়ায় জাস্ট ফ্যাসিনেশন থেকে এলেও বর্তমানে কাজের প্রতি অকৃত্রিম ভালবাসা তাকে মিডিয়ায় দিয়েছে অনন্য স্বতন্ত্রতা। ঝুমুর বিশ্বাস করেন, একজন সুপার মডেলকে সবার থেকে আলাদা করে ভাবতে হলে অবশ্যই তার শারীরিক সৌন্দর্য ও সঠিক এক্সপ্রেশন খুবই জরুরী। বর্তমানে মিডিয়ায় সব্যসাচী ঝুমুর র‌্যাম্প, ফটোশূট আর বিজ্ঞাপনী মডেলিংয়ের পাশাপাশি অভিনয়ে ব্যস্ততার মধ্যে সময় পার করছেন। অত্যন্ত আকর্ষণীয় ও অসাধারণ শারীরিক গঠনের অধিকারিণী নাফিসা কামাল ঝুমুর ২০১৩ সালে হুমায়ূন আহমেদের গল্প অবলম্বনে ‘নিজাম সাহেবের ভুত’ দিয়ে নাটকে ক্যারিয়ার শুরু করেন। এরপর ২০১৪ সালে অভিনয় করেন ‘৪২০ গরম পানি লেন’ এবং ২০১৫ সালে এয়ারটেল নাটক ‘মাঙ্কি বিজনেস’-এ। সম্প্রতি ‘কোয়াইট পিস’ নামের একটি নাটকে অভিনয় করেছেন নাঈম, তিশার সঙ্গে। এতে প্রেমিক-প্রেমিকার চরিত্রে দেখা যাবে নাঈম ও ঝুমুরকে। আসন্ন ঈদের জন্য অপূর্বর বিপরীতে কাজ করছেন ‘৪৮ আওয়ারস’ নাটকে। এছাড়াও দেশ টিভির ‘নাইন এ্যান্ড হাফ’ ধারাবাহিক নাটকেও কাজ শুরু করেছেন। সামনে আরও কিছু কাজের ব্যাপারেও বিভিন্ন স্বনামধন্য পরিচালকদের সঙ্গে কথা চলছে সুন্দরী এই মডেল ও অভিনেত্রীর। সর্বদা ঠোঁটে মায়ামোহ হাসি লেগে থাকা অসাধারণ ব্যক্তিত্বের অধিকারিণী নাফিসা কামাল ঝুমুর ভবিষ্যতে মিডিয়ায় স্বর্ণশিখরে তার আসন দেখতে চান। কারণ ঝুমুর বিশ্বাস করেন যে, কোন কিছুতে অদম্য চেষ্টা ও ইচ্ছা থাকলে সেটা না পারার কোন কারণই নেই।

আনন্দকণ্ঠ ডেস্ক

প্রকাশিত : ৭ মে ২০১৫

০৭/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: