কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আনসারুল্লাহ্- আল কায়েদা যোগসূত্র খুঁজতে ঢাকায় এনআইএ

প্রকাশিত : ৫ মে ২০১৫

শংকর কুমার দে ॥ বাংলাদেশের জঙ্গী সংগঠনগুলোর সঙ্গে আন্তর্জাতিক জঙ্গী সংগঠনগুলোর তৎপরতায় যোগসূত্রের বিষয়টি খতিয়ে দেখতে ঢাকায় এসেছে ভারতের জাতীয় তদন্ত সংস্থা (এনআইএ)। মাত্র একদিন আগে ভিডিও বার্তায় বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক ব্লগার ও লেখক মুক্তমনা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার অভিজিত রায়কে হত্যার দায় স্বীকার করেছে আল কায়েদার ভারতীয় উপমহাদেশের শাখা আল কায়েদা ইন ইন্ডিয়ান সাব কন্টিনেন্ট (একিউআইএস)। এর আগে এই হত্যাকা-ের দায় স্বীকার করে টুইটার এ্যাকাউন্টে বার্তা পাঠিয়েছিল আনসারুল্লাহ বাংলা টিম ও আনসারুল্লাহ বাংলা সেভেন নামের জঙ্গী সংগঠনটি। আনসারুল্লাহ বাংলা টিম ও আনসারুল্লাহ বাংলা সেভেনের সঙ্গে আন্তর্জাতিক জঙ্গী সংগঠন আল কায়েদার শাখা একিউআইএসের যোগসূত্র থাকার বিষয়টি খতিয়ে দেখছে গোয়েন্দারা। ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান খাগড়াগড়ের বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় বাংলাদেশী জঙ্গী সংগঠন জামা’আতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ (জেএমবি) এর যেসব জঙ্গী জড়িত এবং বাংলাদেশের জঙ্গীদের সঙ্গে আন্তর্জাতিক জঙ্গী সংগঠনগুলোর সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়ে তৎপরতার বিষয়টি নিয়ে বাংলাদেশের গোয়েন্দা সংস্থা ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন ভারতের জাতীয় তদন্ত সংস্থা এনআইএ। এ খবর দিয়েছে গোয়েন্দা সংস্থা।

গোয়েন্দা সংস্থার সূত্র জানায়, ভারতীয় উপমহাদেশে গত বছর নিজেদের একটি শাখা সংগঠন কোয়দাত আল-জিহাদ-এর প্রতিষ্ঠার কথা ঘোষণা করেছিলেন আল-কায়েদা প্রধান আমান আল-জাওয়াহিরি। ভারতীয় উপমহাদেশে ইসলামের শাসন প্রতিষ্ঠা করাই এই সংগঠনের মূল কাজ বলে জানিয়েছিলেন তিনি। গত বছর অনলাইনে পোস্ট করা ৫৫ মিনিটের ভিডিও বার্তায় উপমহাদেশে আল-কায়েদার শাখা গঠনকে বাংলাদেশ, মিয়ানমার, আসাম, গুজরাট, আহমেদাবাদ ও কাশ্মীরের মুসলমানদের জন্য ‘আনন্দের খবর’ বলে অভিহিত করেন আইমান আল জাওয়াহিরি। এই পদক্ষেপ উপমহাদেশে ইসলামিক আইনের প্রসার ও ‘জিহাদের পতাকা সমুন্নত রাখবে’ বলে ঘোষণা দেন তিনি। এই ঘোষণা দিয়ে তিনি বলেন, আল-কায়েদার নতুন এই শাখা এ অঞ্চলের মুসলমানদের ‘অবিচার ও আগ্রাসন’ থেকে উদ্ধার করবে। আল-কায়েদা প্রধান আইমান আল জাওয়াহিরি মুসলিমদের উদ্দেশে বলেন, ‘নিজেদের ভূমি মুক্ত করতে, এর সার্বভৌমত্ব ফিরিয়ে আনতে এবং খিলাফত পুনঃপ্রতিষ্ঠা করতে শত্রুদের বিরুদ্ধে জিহাদ করতে হবে।’ ভিডিওবার্তায় আফগানিস্তানের তালেবান নেতা মোল্লা ওমরের প্রতি আনুগত্য জানান জাওয়াহিরি।

গত বছরের আল কায়েদা প্রধানের উপমহাদেশকে জড়িয়ে যে জঙ্গী তৎপরতার ভিডিও বার্তা দেয়া হয়েছে তার প্রতিফলন দেখা গেল মুক্তমনা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা অভিজিত রায়কে হত্যায় আল কায়েদার ভারতীয় উপমহাদেশের শাখা আল কায়েদা ইন ইন্ডিয়ান সাব কন্টিনেন্ট (একিউআইএস) দায় স্বীকার করার ঘটনায় দেশী জঙ্গী সংগঠনগুলোর সঙ্গে আন্তর্জাতিক জঙ্গী সংগঠনগুলোর যোগসূত্র থাকার বিষয়টিতে নতুন মাত্রা যুক্ত হয়েছে। এর মধ্যে দেশী জঙ্গীরা আশুলিয়ার ব্যাংক ডাকাতি, বর্ষবরণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে নারীদের শ্লীলতাহানির ঘটনা, ব্লগার ও লেখক অভিজিত ও ওয়াশিকুরের তদন্ত করছে গোয়েন্দা সংস্থা। এই প্রেক্ষাপটে ভারতের জাতীয় তদন্ত সংস্থা এনআইএ এর ঢাকায় উপস্থিতি ও গোয়েন্দাদের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হওয়ার বিষয়টিতে ব্যাপক তাৎপর্য ও গুরুত্বের সঙ্গে খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এনআইএ-এর তদন্ত টিম ঢাকায় ॥ ভারতের জাতীয় তদন্ত সংস্থা এনআইএ-এর ৩ সদস্যের এক টিম রবিবার রাতে ঢাকায় এসেছে। এই টিমটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন এনআইএ কর্মকর্তা সঞ্জিত সিং। সোমবার দিনভর ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি), পুলিশ সদর দফতর, ক্রিমিন্যাল ইনভেস্টিগেশন ডিপার্টমেন্ট (সিআইডি) কর্মকর্তাদের সঙ্গে জঙ্গী তৎপরতার বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন। এর মধ্যে বর্ধমান খাগড়াগড়ের বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় চার্জশীটভুক্ত বাংলাদেশের জামা’আতুল মুজাহিদীন (জেএমবি)-এর পলাতক জঙ্গীদের খুঁজে বের করা, ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে জেএমবির ঘাঁটি স্থাপন করে তৎপরতা, সীমান্ত দিয়ে জঙ্গীদের অবাধ যাতায়াত, মানব পাচারসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) কার্যালয়ে দীর্ঘ বৈঠক করেছেন এনআইএ কর্মকর্তারা। কায়েদার শাখা একিউআইএস ভিডিও বার্তা প্রকাশ করার ঘটনাটি নিয়ে আলোচনা করেছেন দুই দেশের জঙ্গী বিষয়ক তদন্তকারী গোয়েন্দারা। আগামী ৭ মে পর্যন্ত তারা ঢাকায় থাকবেন এবং জঙ্গী তৎপরতার বিষয়ে জঙ্গী সংক্রান্ত বিষয়ে অনুসন্ধান ও তথ্য আদান প্রদান করবেন বলে জানা গেছে।

জঙ্গী তৎপরতায় নতুন মাত্রা ॥ প্রায় দুই মাস আগে খুন হওয়া বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক ব্লগার ও লেখক মুক্তমনা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা অভিজিত রায়কে হত্যার দায় স্বীকার করে আল কায়েদার শাখা একিউআইএস ভিডিও বার্তা প্রকাশ করার ঘটনাটি একদিকে যেমন রহস্যজনক আবার আরেকদিকে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। প্রকৃত খুনীদের আড়াল করার কৌশল কিনা তা খতিয়ে দেখছে গোয়েন্দারা। কারণ এর আগে জঙ্গী সংগঠন আনসারুল্লা বাংলা টিম ও আনসারুল্লাহ বাংলা সেভেন নামের জঙ্গী সংগঠনের টুইটার এ্যাকাউন্টস থেকে অভিজিত রায় হত্যার দায় স্বীকার করা হয়েছে। এখন আবার আল কায়েদার শাখা একিআইএস এর দায় স্বীকার করার ঘটনাটিকে খুবই রহস্যজনক মনে করছেন গোয়েন্দারা। খুনীদের আড়াল করার কোন কৌশল আছে কিনা এবং ভিডিও বার্তাটির বিষয়ে খোঁজ খবর নিচ্ছেন গোয়েন্দারা।

আনসারুল্লা ক্লোজেস্ট রিলেটেড ॥ আনসারুল্লাহ বাংলা টিমকে আল কায়েদার ক্লোজেস্ট রিলেটেড দাবি করেছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের মুখপাত্র যুগ্ম কমিশনার মোঃ মনিরুল ইসলাম। সোমবার দুপুরে ঢাকা মহানগর পুলিশের মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, অভিজিত রায়কে হত্যা করেছে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমই এবং ৫ জনের অধিককে সন্দেহজনক চিহ্নিত করেছি, তাদের গ্রেফতার করা গেলেই জিজ্ঞাসাবাদে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যাবে। বাংলাদেশে আল কায়েদার নেটওয়ার্ক নেই দাবি করে তিনি বলেন, আনসারুল্লাহ বাংলা টিমই আল কায়েদার অনুসারী। বাংলাদেশের জঙ্গী সংগঠনগুলো আল কায়েদার অনুসরণ করছে বলে তার কাছে তথ্য আছে জানিয়ে ডিএমপির মুখপাত্র বলেন, দেশের পরিস্থিতিতে জঙ্গীবাদের বিষয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। ডিএমপির মুখপাত্র বলেন, বাংলাদেশের মানুষ জঙ্গীবাদকে ঘৃণা করে, দেশের মানুষকে নিয়েই জঙ্গীবাদের মোকাবেলা করা হবে।

আল কায়েদার সঙ্গে যোগসূত্র ॥ ২০০৯ সালের প্রথম দিকেই আল কায়েদার সঙ্গে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সংশ্লিষ্টতা থাকার তথ্য প্রমাণ পায় বলে গোয়েন্দাদের দাবি। আনসারুল্লাহ বাংলা টিম আন্তর্জাতিক সশস্ত্র গোষ্ঠী আল কায়েদার একটি ঘনিষ্ঠ সংগঠন। আল কায়েদার যাবতীয় মতাদর্শকে তারা অনুসরণ করে। আল কায়েদার অঙ্গসংগঠনের সঙ্গে পাওয়া যায়। এসব তথ্য প্রমাণ নিয়ে আবার নতুন করে কাজ শুরু করতে হচ্ছে গোয়েন্দাদের। গোয়েন্দারা মনে করছে, আনসারুলাহ বাংলা টিম দেশে সবগুলো জঙ্গী সংগঠনের মুখপাত্র হিসেবে কাজ করছে। বিভিন্ন জঙ্গী সংগঠনের জঙ্গীরা আনসারুল্লাহ নাম ধারণ করে সামরিক প্রশিক্ষণ নিচ্ছে। পাহাড়ী এবং নির্জন এলাকায় তাদের প্রশিক্ষণও হয়। দেশের কোন এক এলাকাকে মুক্তাঞ্চল ঘোষণা করে সশস্ত্র অবস্থান নেয়া তাদের লক্ষ্য। পুলিশের হাতে আটক জসিমউদ্দীন রাহমানি সংগঠনটির সমন্বয়ক। সামরিক কমান্ডার হিসেবে রয়েছেন সেনাবাহিনীর থেকে চাকরিচ্যুত একাধিক সেনা কর্মকর্তা।

ওয়াশিকুর হত্যাকা-ের তদন্তে অগ্রগতি নেই ॥ বিজ্ঞানমনস্ক লেখক ও ব্লগার অভিজিত হত্যাকা-ের এক মাসের ব্যবধানে প্রকাশ্য দিবালোকে আরেক ব্লগার ওয়াশিকুর রহমানকে কুপিয়ে হত্যাকা-ের পর হাতেনাতে জনতার হাতে ধরা পড়ে দুই জঙ্গী জিকরুল্লাহ ও আরিফুল। তাদের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকা-ের সময়ে পালিয়ে যাওয়া জঙ্গী তাহের ও মাসুমের নাম পাওয়া যায়। কিন্তু হত্যাকা-ের পর এক মাসের বেশি সময় পেরিয়ে গেলেও পালিয়ে যাওয়া জঙ্গীসহ নেপথ্যে থাকা জঙ্গীদের মদদদাতারা গ্রেফতার হয়নি। গত ৩০ মার্চ সকালে প্রকাশ্যে রাজধানীর তেজগাঁওয়ের বেগুনবাড়িতে ব্লগার ওয়াশিকুর রহমান বাবুকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে জঙ্গীরা। হামলার মূল পরিকল্পনাকারী মাসুম নামের আরেক জঙ্গী। ঘটনার এক মাস পার হলেও এ দু’জনকে গ্রেফতার করা না গেলেও অভিজিত ও ওয়াশিকুর হত্যাকা-ের ঘটনায় জড়িত জঙ্গীরা এক সুতোয় গাঁথা বলেও জানান গোয়েন্দারা।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি টার্গেট ॥ এই প্রথমবারের মতো একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে আল কায়েদার ভারতীয় উপমহাদেশের শাখা আল কায়েদা ইন ইন্ডিয়ান সাব কন্টিনেন্ট (একিউআইএস)। বিজ্ঞানমনস্ক ব্লগার ও লেখক অভিজিত রায় হত্যাকা-ের দায় স্বীকার করা এই জঙ্গী সংগঠনটি বার্তা দিয়েছে সরাসরি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকেও। গত শনিবার ভারতীয় উপমহাদেশে আল-কায়েদার (একিউআইএস) পাবলিসিটি উইং আস-সাহাব একটি ভিডিও প্রকাশ করে। ফ্রম ফ্রান্স টু বাংলাদেশ নামের ওই ভিডিওতে একিউআইএস প্রধান মাওলানা আসিম উমার বলেছেন, এই বিষয়টি কোন দিনও ধামাচাপা পড়বে না এবং তার মতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আচরণে প্রকাশ পাচ্ছে, মুসলিমদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু করেছেন মোদি।

প্রকাশিত : ৫ মে ২০১৫

০৫/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: