কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মোহামেডানকে রুখে দিল ফেনী সকার

প্রকাশিত : ৪ মে ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ক্রমেই জমে উঠছে ‘মান্যবর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ।’ ছোট দলগুলোর কাছে ধরা খেয়ে পয়েন্ট খোয়াচ্ছে বড় দলগুলো। এই যেমন রবিবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ফেনী সকারের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে ধরা খেল ঢাকা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেড। প্রথমার্ধেই সব গোল হয়। ঐতিহ্যবাহী ‘ব্ল্যাক এ্যান্ড হোয়াইট’ খ্যাত মোহামেডানের আক্ষেপটা একটু বেশিই। কেননা ম্যাচে তারা আগে গোল করে পরে গোল হজম করেছে। তাদের পক্ষে গোল করেন মোহাম্মদ ইব্রাহীম। জাত্তা মুস্তফা ফেনী সকারের পক্ষে একটি গোল পরিশোধ করেন। ড্র করলেও পয়েন্ট টেবিলে উন্নতি হয়েছে মোহামেডানের। চতুর্থ থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে উঠে এলো তারা। পেছনে ফেলে দিল ঢাকা আবাহনী লিমিটেড ও বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রকে। ৭ ম্যাচে এটা মোহামেডানের চতুর্থ জয় ও প্রথম ড্র, পয়েন্ট ১৩। আবাহনী-মুক্তিরও সমান পয়েন্ট। তবে গোলগড়ে এগিয়ে থাকার সুবাদে মোহামেডানই তাদের চেয়ে এগিয়ে (আবাহনী খেলেছে ৬ ম্যাচ)। মোহামেডানের ওপরে কেবল বর্তমান চ্যাম্পিয়ন শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাব লিমিটেড। তাদের সংগ্রহ ৭ ম্যাচে ১৯ পয়েন্ট। পক্ষান্তরে ফেনী সকারের এটা ৬ ম্যাচে দ্বিতীয় ড্র, পয়েন্ট ৫। অবস্থান আগের মতোইÑ অষ্টম। গত মৌসুমের লীগে মোহামেডান-সকারের তিন লেগের ম্যাচের ফল ছিল এ রকম : ২০১৪ সালের ৮ ফেব্রুয়ারিতে মোহামেডান জেতে ৩-১ গোলে। ২৭ মে দ্বিতীয় লেগে আবারও মোহামেডান জেতে ৩-২ গোলে। ২৪ জুলাই তৃতীয় লেগে ২-০ গোলের জয় কুড়িয়ে নেয় মোহামেডান (তিনটি ম্যাচের ভেন্যুই ছিল বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম)। কাজেই রবিবার মোহামেডানকে রুখে নিয়ে জয়ের সমান চিত্তসুখ অনুভব করতেই পারে ফেনী সকার ক্লাব।

ম্যাচ শুরুর ৫ মিনিটেই কাক্সিক্ষত গোলের সন্ধান পেয়ে যায় সাদা-কালোরা। বল নিয়ে ফেনী সকারের বক্সে ঢুকে পড়েন মোহামেডানের মিডফিল্ডার মোহাম্মদ ইব্রাহিম। তার বাঁ পায়ের গড়ানো শটটি প্রতিহত করার আপ্রাণ চেষ্টা করেন প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক সলিম উল্লাহ। কিন্তু এত চেষ্টাতেও কাজ হয়নি। বল তার হাত গলে চলে যায় জালে (১-০)। অসহায় দৃষ্টিতে সেটা অবলোকন করা ছাড়া আর কোন উপায় ছিল না সলিমের। তবে ২২ মিনিটে আনন্দের উপলক্ষ খুঁজে পায় সকার ক্লাব। তাদের গাম্বিয়ান মিডফিল্ডার জাত্তা মুস্তফাকে নিজেদের বক্সে ফাউল করেন মোহামেডানের মিডফিল্ডার সোহেল রানা। রেফারি আব্দুল হান্নান পেনাল্টির নির্দেশ দিলে জাত্তার গোল করতে কোন ভুল হয়নি (১-১)। দ্বিতীয়ার্ধে উভয় দলই আক্রমণ পাল্টাআক্রমণ করে খেলে। কিন্তু ভাগ্য সহায় না হওয়াতে দলীয় দ্বিতীয় গোলের দেখা পায়নি কোন পক্ষই। শেষমেশ খেলা শেষ হওয়ার বাঁশি বাজলে হতাশা নিয়ে মোহামেডান আর জয়ের সমান আনন্দ নিয়ে মাঠ ছেড়ে যায় ফেনী সকার ক্লাব। দিনের অপর ম্যাচে টিম বিজেএমসিকে ২-১ গোলে হারিয়েছে শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্র। ম্যাচের ২০ মিনিটে পল এমেলির গোলে এগিয়ে যায় রাসেল। ৫৩ মিনিটের সময় পেনাল্টি থেকে গোল করে ২-০ ব্যবধানে লিড নেয় তারা। ৭৯ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে ব্যবধান কমান বিজেএমসির জীবন (২-১)।

প্রকাশিত : ৪ মে ২০১৫

০৪/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: