আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বাংলাদেশ আমাদের চোখ খুলে দিয়েছে ॥ রমিজ

প্রকাশিত : ৪ মে ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বরাবরই বাংলাদেশের ক্রিকেট নিয়ে কটূক্তি করেছেন পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার রমিজ রাজা। বর্তমানে জনপ্রিয় এ ধারাভাষ্যকার সবসময়ই তীব্র সমালোচনা করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের। কিন্তু এবার তাঁরই উত্তরসূরিদের ভরাডুবি হয়েছে বাংলাদেশ সফরে। অত্যন্ত বাজেভাবে পদানত হয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট দল, হয়েছে বিপর্যস্ত। ওয়ানডে সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ এবং একমাত্র টি২০ ম্যাচে বড় ব্যবধানে হারে পাকরা। ওয়ানডে অধিনায়ক আজহার আলী পারেননি, পরে টি২০ অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি শক্তিধর একটি দল নিয়ে প্রচেষ্টা চালিয়েও পারেননি। টাইগারদের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি পাকরা। আর রমিজ দীর্ঘশ্বাস ফেলে গেছেন। তবে আশায় ছিলেন মিসবাহ-উল-হকের নেতৃত্বে টেস্ট সিরিজে জ্বলে উঠবে পাকরা। সেটা করেছিলও পাক শিবির। কিন্তু বাংলাদেশের দুর্দান্ত নৈপুণ্য জিততে দেয়নি তাদের। এ কারণে রমিজ আবারও হতাশা ব্যক্ত করলেন। তিনি ভীষণ মর্মাহত হয়ে এক সাক্ষাতকারে বলেছেন, ‘জানি না আমাদের ক্রিকেট কোন্ পথে যাচ্ছে? বাংলাদেশ দল আমাদের চোখ খুলে দিয়েছে। বুঝিয়ে দিয়েছে উন্নতির জন্য কী করতে হবে আমাদের।’ তিনি মনে করেন পাক ক্রিকেট কিভাবে সাজাতে হবে সেটা বাংলাদেশ দল দেখিয়ে দিয়েছে।

ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ এবং একমাত্র টি২০ ম্যাচে পরাজয়। বাকি ছিল ২ টেস্টের সিরিজ। সেখানে পাক ক্রিকেট কিছুটা আলোর মুখ দেখবে এমনটাই প্রত্যাশা ছিল রমিজের। কিন্তু প্রথম টেস্টে খুলনায় মিসবাহবাহিনীকে নাস্তানাবুদ করে ছাড়ল টাইগাররা। অবশ্য এবার হারতে হয়নি। তবে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে আগের খেলা ৮ টেস্টেই যেভাবে জিতেছে পাকরা এবার ড্র করাটাকেই মেনে নিতে পারছেন না রমিজ। পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমে দেয়া সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, ‘আমরা প্রথম ইনিংস শেষে প্রায় তিন শ’ রানের লিড নিলেও বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংসে সাড়ে পাঁচ শ’র ওপরে রান করেছে। যা পাকিস্তান দলের জন্য খুবই হতাশাজনক। পাকিস্তান ক্রিকেট কোথায় যাচ্ছে তা আমি জানি না। বাংলাদেশকে টেস্টেও হারাতে না পারলে আমরা কোন্দিকে অগ্রসর হব? এ ধরনের পারফর্মেন্স অব্যাহত থাকলে কেউ আর আমাদের খেলা দেখতে চাইবে না। এমনকি অন্য কোন দল পাকিস্তানের বিরুদ্ধে খেলতে আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে। যেটি পাকিস্তান ক্রিকেটের ওপর বড় ধরনের আঘাত বয়ে আনবে।’

২০০৩-০৪ সালে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) সিইও’র দায়িত্বে ছিলেন রমিজ। এ যাবতকালে পাকিস্তানের এমন নজিরবিহীন বাজে বোলিং দেখেননি বলেও তিনি উল্লেখ করেন। কারণ টেস্টের তৃতীয় দিনে দুই সেশনের বেশি ব্যাটিং করা বাংলাদেশের কোন উইকেট তুলে নিতে পারেনি মিসবাহবাহিনী। বাংলাদেশের প্রশংসা করতেও ভোলেননি তিনি। রমিজ বলেন, ‘যেভাবে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করেছে বাংলাদেশ সেটা আমাদের ক্রিকেটের জন্য চোখ খুলে দিয়েছে। কিন্তু দলের উন্নতি করার বিষয়ে আমি কারও মধ্যে কোন উৎকণ্ঠা বা আকাক্সক্ষার কিছুই দেখতে পাচ্ছি না। পাকিস্তান ক্রিকেটকে বাঁচাতে হলে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনার বিকল্প নেই। তরুণ প্রতিভাবান ক্রিকেটারদের সুযোগ দেয়ার পাশাপাশি অভিজ্ঞ ও যোগ্য কোচ নিয়োগ দিতে হবে।’ বাংলাদেশের সঙ্গে সিরিজের প্রথম টেস্ট ড্র হওয়ার পর আরেক সাবেক ক্রিকেটার মোহাম্মদ ইউসুফও কৃতিত্ব দিলেন বাংলাদেশকেই। তিনি বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশের সঙ্গে টেস্টে ড্র করেনি। সত্যি বলতে কী আমরা পরাজিত হয়েছি। এমন খেলা খুবই হতাশার।’

প্রকাশিত : ৪ মে ২০১৫

০৪/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: