কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

রবিবার শিরোপা উৎসবের প্রস্তুতি চেলসির

প্রকাশিত : ১ মে ২০১৫
রবিবার শিরোপা উৎসবের প্রস্তুতি চেলসির

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ পিছিয়ে পড়েও লিচেস্টার সিটিকে ৩-১ গোলে হারিয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের শিরোপা জয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছে চেলসি। বুধবার রাতে এ্যাওয়ে ম্যাচে দুর্দান্ত জয়ে ২০০৯-১০ মৌসুমের পর শিরোপা পুনরুদ্ধারের অপেক্ষায় জোশে মরিনহোর দল। আগামী রবিবার ঘরের মাঠ লন্ডনের স্টামফোর্ড ব্রিজে ক্রিস্টাল প্যালেসকে হারাতে পারলেই তিন ম্যাচ হাতে রেখে শিরোপা জয়ের উৎসবে ভাসবে দ্য ব্লুজরা।

লিচেস্টারকে হারিয়ে পাঁচ বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো প্রিমিয়ার লীগের শিরোপা জয়ের দ্বোরগোড়ায় পৌঁছেছেন টেরি, হ্যাজার্ড, দ্রগবারা। বর্তমানে ৩৪ ম্যাচে ৮০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে চেলসি। সমান ম্যাচে দ্বিতীয় স্থানে থাকা বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটির পয়েন্ট ৬৭। আর্সেনালের পয়েন্টও সিটির সমান ৬৭, কিন্তু এক ম্যাচ কম খেলেছে তারা। আগামী রবিবার ক্রিস্টাল প্যালেসকে হারালেই ইপিএলের পঞ্চম শিরোপা জেতবে চেলসি। কেননা তখন বাকি ম্যাচগুলো যদি ব্লুজরা হেরেও যায় তাহলেও তাদের ছুঁতে পারবে না কোন দল।

চেলসির হয়ে মরিনহোর এটা হবে তৃতীয় প্রিমিয়ার লীগ শিরোপা। পর্তুগীজ এই কোচের প্রথম মেয়াদে ২০০৪-০৫ ও ২০০৫-০৬ মৌসুমে ইপিএলে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল চেলসি। এবারের লীগে শুরু থেকেই অপ্রতিরোধ্য দ্য ব্লুজরা। দুর্দান্ত ধারাবাহিকতা ধরে রেখে এখন শেষ হাসি হাসার অপেক্ষায় দলটি। কোচ জোশে মরিনহো জানিয়েছেন, এখন আর তাদের কোন শঙ্কা নেই। খেলোয়াড়েরাও আত্মবিশ্বাসী। সবাই মুখিয়ে আছে প্যালেসের বিরুদ্ধে খেলতে। প্রতিপক্ষের মাঠে প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে ইংলিশ মিডফিল্ডার মার্ক এ্যালব্রাইটনের গোলে পিছিয়ে পড়ে চেলসি। প্রমার্ধে হতাশাজনক ফুটবল খেললেও দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই জ্বলে উঠে অতিথিরা। দিদিয়ের দ্রগবার নৈপুণ্যে ৪৮ মিনিটে সমতাসূচতক গোলও পেয়ে যায় তারা। সার্বিয়ার ডিফেন্ডার ব্রানিসøাভ ইভানোভিচের বাড়ানো বল ডি বক্সের মধ্যে ডান পায়ের শটে জালে জড়ান আইভরিকোস্ট স্ট্রাইকার। এগিয়ে যাওয়া গোলের দেখা পেতে চেলসিকে অনেকটা সময় অপেক্ষা হয়। একটা সময় সমর্থকদের মনে ড্রও শঙ্কাও ভর করেছিল। কিন্তু শেষদিকে চার মিনিটের জাদুতে দুই গোল আদায় করে দারুণ জয় তুলে নেয় ব্লুজরা। ম্যাচের ৭৯ মিনিটে গ্যারি ক্যাহিলের কর্নারে ডান পায়ের শটে দ্বিতীয় গোলটি করেন জন টেরি। ৮৩ মিনিটে চেস ফেব্রিগাসের বাড়ানো বল পেয়ে দৃষ্টিনন্দন গোল করেন রামিরেস। ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার বিদ্যুতগতির বুলেট শটে লক্ষ্যভেদ করেন।

চেলসি অধিনায়ক জন টেরি ম্যাচ শেষে বলেন, সংঘবদ্ধ প্রচেষ্টার ফসল এই জয়। আমরা প্রথমার্ধে প্রত্যাশামতো খেলতে পারিনি। তবে আত্মবিশ্বাসী ছিলাম ফিরে আসতে। সবার মিলিত প্রচেষ্টায় সেটা সম্ভব হয়েছে। দলের সবাই খুশি। এতদিনে মনে হচ্ছে আমাদের প্রচেষ্টা সফল। পরের ম্যাচেই আমরা উৎসব করতে চাই। আশা করি সেটা সম্ভব হবে। সবাই ট্রফির জন্য উন্মুখ হয়ে আছে।

প্রকাশিত : ১ মে ২০১৫

০১/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: