মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

নির্বাচন ভণ্ডুল করাই ছিল বিএনপির উদ্দেশ্য ॥ নাসিম

প্রকাশিত : ১ মে ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, সিটি নির্বাচন বর্জন করেছে বিএনপি, আপসোস করছেন দলের নেতারা। বিএনপি আন্দোলন, নির্বাচন কোনটাই জানে না, সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন ভ-ুল করাই ছিল তাদের মূল উদ্দেশ্য। মাঠ থেকে পালানোই তাদের স্বভাব। আর মাঠের বাইরে গিয়ে দেশ ও জাতির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হন তাঁরা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন। বিএসএমএমইউর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডাঃ কামরুল হাসান খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনায় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক, সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী অধ্যাপক ডাঃ আ ফ ম রুহুল হক, সাবেক সংসদ সদস্য ডাঃ মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না, আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ বদিউজ্জামান ভূঁইয়া ডাবলু, বিএমএর সভাপতি অধ্যাপক ডাঃ মাহমুদ হাসান, মহাসচিব অধ্যাপক ডাঃ এম ইকবাল আর্সলান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, মাত্র কয়েক ঘণ্টা নির্বাচনে অংশ নিয়ে তিন লাখের বেশি ভোট পেয়ে এখন খালেদা জিয়াসহ বিএনপি নেতারা আফসোস করছেন, এত ভোট পেয়ে নির্বাচন বর্জন করলেন কেন! নির্বাচনে ভোট কারচুপি হয়েছে- বিএনপি নেতাদের এমন অভিযোগের জবাবে আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য বলেন, নির্বাচনে যদি ভোট কারচুপি হয়েই থাকে, তাহলে আপনারা এত ভোট পেলেন কিভাবে?

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ করে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মতো রাজনীতি শিখতে হলে আপনার আরও ৫০ বছর সময় লাগবে। প্রথমে শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনে আসবেন না বলে ঘোষণা দিয়েও সিটি নির্বাচনে এলেন। কর্মীদের মতো লিফলেটও বিলি করলেন। কিন্তু আবার মাঠ ছেড়ে চলে গেলেন কেন?

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, এমন খেলোয়াড় নিয়ে নির্বাচনে আসলেন কেন? আবার মাঝপথে নির্বাচনের মাঠ ছেড়ে পালিয়ে গেলেন কেন? কোন ধরনের খেলোয়ার নিয়ে আপনি খেলতে আসেন যে, তারা মাঠ ছেড়ে পালিয়ে যায়। আসলে নির্বাচন ভ-ুল করতেই মাঠে এসেছিলেন তাঁরা।

রোগীদের সেবার মান বৃদ্ধি করতে ডাক্তারদের আরও বেশি মনোযোগ দেয়ার আহ্বাান জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আপনাদের সব কথা আমি শুনব। আপনারা আরও বেশি করে রোগীর সেবা দিন। আপনারা আরও বেশি বেশি হাসপাতালে সকাল-বিকেল রাউন্ড দেবেন, যাতে করে কোন রোগী সেবা থেকে বঞ্চিত না হয়।

এর আগে সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের বি-ব্লকের নিচতলায় বঙ্গবন্ধুর মুর‌্যালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয় এবং বটতলা থেকে র‌্যালি বের করা হয়। এছাড়া দিবসটি উপলক্ষে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, পায়রা ও বেলুন ওড়ানো, স্মরণিকা প্রকাশ, বিশ্ববিদ্যালয়ের মাসিক মুখপত্র প্রকাশসহ সংবাদপত্রে ক্রোড়পত্র ছাপানো হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক কামরুল হাসান খান বলেন, বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে দেশবাসীর অনেক প্রত্যাশা। এটি দেশ ও জাতির সম্পদ। মেডিক্যাল শিক্ষা, গবেষণা ও চিকিৎসাসেবায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়কে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করা হবে। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে জাতির প্রত্যাশা অনেক বেশি। এখানে ভর্তি হওয়া সকল রোগীর এমনভাবে দায়িত্ব নিতে হবে, যাতে রোগীর স্বজনরা হাসপাতালে রোগীকে রেখে নিশ্চিন্ত থাকতে পারেন।

প্রকাশিত : ১ মে ২০১৫

০১/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: