রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

জিয়ার মাজারের টাইলস তুলে ফেলার নিন্দা বিএনপির

প্রকাশিত : ১ মে ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজারের ১১টি টাইলস কে বা কারা তুলে ফেলেছে। এর মধ্যে কয়েকটি ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, বুধবার রাতে কোন এক সময় অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে। এ ঘটনায় নিন্দা, ক্ষোভ ও অসন্তোষ প্রকাশ করেছে বিএনপি। সেই সঙ্গে দলের পক্ষ থেকে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়েছে। এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ জিয়ার মাজার প্রাঙ্গণের তত্ত্বাবধায়কসহ ৬ জনকে আটক করেছে বলে জানা গেছে। গণপূর্ত বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী আলমগীর হোসেনের নির্দেশনায় আঙ্গুর ও তুহিন নামে দু’জন কর্মী বৃহস্পতিবার দুপুরে জিয়ার মাজারের তুলে ফেলা টাইলসগুলো যথাস্থানে পুনর্স্থাপন করে।

জানা যায়, কে বা কারা শেরেবাংলা নগরে রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মূল সমাধি ঘিরে রাখা বেষ্টনীর ওপরে নকশা হিসেবে বসানো ১১টি টাইলস তুলে ফেলে। এর মধ্যে কয়েকটি টাইলস ভেঙ্গে ফেলে। পুরো মাজার কমপ্লেক্সের আর কোথাও কোন ক্ষতি হয়নি। তবে কবে কখন বা কারা কিভাবে এসব টাইলস উপড়ে ফেলে তা মাজারে কর্মরত স্টাফরাও বলতে পারেনি। আঠা দুর্বল হয়ে যাওয়ায় টাইলসগুলো এমনিতেই খুলে গেছে কি না কেউ কেউ এমন সম্ভাবনার কথাও বলেছেন। জিয়ার মাজারে ক্লিনার হিসেবে কর্মরত মিজানুর রহমান বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের জানান, প্রতিদিনের মতো বৃহস্পতিবার সকালে মাজার পরিষ্কার করতে গিয়ে তিনি টাইলসগুলোকে উপড়ানো অবস্থায় দেখেন। এ দৃশ্য দেখে তিনি বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে খবর দেন। মিজান জানান, ঝাড়ু দিতে এসে জিয়াউর রহমানের মাজারে টাইলসগুলো দেখে শক্ত কিছু দিয়ে সেগুলো ভাঙ্গা হয়েছে বলে তিনি ধারণা করেন। কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে জানতে চাইলে মিজান বলেন, ‘আমি ভোর ৬টা থেকে ৯টা পর্যন্ত কাজ করি। রাতেই কেউ এগুলো ভেঙ্গে রেখে গেছে।

দুপুর ১২টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে তেজগাঁও জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার সাংবাদিকদের বলেন, আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখছি। কি ঘটেছে তা জানতে তদন্ত করা হচ্ছে। শেরেবাংলা নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গণেশ গোপাল বিশ্বাসের নেতৃত্বে প্রায় ১৫ জন পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এর পর পুলিশ গণপূর্ত বিভাগে এ খবরটি জানান। দুপুর ১টার দিকে গণপূর্ত বিভাগের লোকজন সেখানে উপস্থিত হন। আর বিএনপির পক্ষ থেকে বেলা পৌনে ২টায় প্রথম ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান দলের সহ-প্রচার সম্পাদক এমরান সালেহ প্রিন্স। এর পর দফায় দফায় বিএনপি নেতারা জিয়ার মাজার পরিদর্শনে গিয়ে এ ঘটনার নিন্দা, ক্ষোভ ও অসন্তোষ প্রকাশ করে এর সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

জিয়ার মাজারে ভাংচুর ষড়যন্ত্রের অংশ ॥ জিয়াউর রহমানের মাজারে ভাংচুর করা হয়েছে বলে অভিযোগ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য লে. জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান বলেছেন, এ ভাংচুরের ঘটনা ষড়যন্ত্রের অংশ। স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি রাতের অন্ধকারে মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমানের মাজার ভাংচুর করেছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, জিয়াউর রহমানের মাজারে হামলা কোনভাবেই সহ্য করবে না বিএনপি। বিকেল ৩টার দিকে জিয়ার মাজার পরিদর্শন করে তিনি এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে বিচারের মুখোমুখি করার দাবি জানান।

ঘটনার নিন্দা জানিয়ে মাহবুবুর রহমান বলেন, রাতের অন্ধকারে জিয়াউর রহমানের মাজারের ১১টি টাইলস ভাংচুর মূলত তার মাজারের ওপর আক্রমণ বলেই আমরা মনে করি। এটা দুরভিসন্ধিমূলক একটি ষড়যন্ত্রের অংশ।

জিয়ার মাজারে ভাংচুরের বিচার চাই-প্রিন্স ॥ জিয়াউর রহমানের মাজারে ভাংচুর করা হয়েছে বলে অভিযোগ করে এ ঘটনার বিচার চেয়েছেন বিএনপির সহ প্রচার সম্পাদক সৈয়দ ইমরান সালেহ প্রিন্স। বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে ২টায় বিএনপির পক্ষে সবার আগে জিয়ার মাজার পরিদর্শনে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

তিন সিটিতে আবারও নির্বাচনের দাবি বিএনপিপন্থী পেশাজীবী পরিষদের ॥ তিন সিটি কর্পোরেশনে আবারও নির্বাচনের দাবি জানিয়েছে বিএনপিপন্থী পেশাজীবী পরিষদ। বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের পক্ষ থেকে এ দাবি জানানো হয়।

পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক রুহুল আমীন গাজী বলেন, ২৮ এপ্রিল তামাশা ও প্রহসনের নির্বাচন হয়েছে। এ কারণে নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করা ছাড়া বিবেকবান প্রার্থীদের কিছুই করার ছিল না। আমরা কলঙ্কিত এ নির্বাচনকে বাতিল করে আবারও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠান এবং প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদসহ কমিশনের পদত্যাগের দাবি করছি। তিনি বলেন, নির্বাচনী মাঠে সেনাবাহিনী মোতায়েন না করার সিদ্ধান্ত থেকে সরে দাঁড়ানোর পর জাতি বুঝতে পরেছে নির্বাচন কমিশন আসলে কি করতে চায়।

প্রকাশিত : ১ মে ২০১৫

০১/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: