কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বনানী সুপার মার্কেটে উচ্ছেদ অভিযান, গুলিতে আহত ১০

প্রকাশিত : ১ মে ২০১৫
  • ব্যবসায়ী-পুলিশ সংঘর্ষ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) বনানী সুপার মার্কেটে উচ্ছেদ অভিযান চলাকালে পুলিশের গুলিতে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় কর্পোরেশনের ম্যাজিস্ট্রেট মাহবুবুর রহমানের নেতৃত্বে এ অভিযান শুরু করা হয়। অভিযানের প্রায় শেষ পর্যায়ে বেলা ১১টার দিকে ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের বাগবিত-ার একপর্যায়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না থাকায় উভয় পক্ষের মাঝে এ সংঘর্ষ হয় বলে জানা গেছে।

আহতদের মধ্যে ৪ জন বর্তমানে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। আহতরা হলেন মোঃ জামাল হোসেন (৩০), মিন্টু সরকার (২৮), আব্দুল হালিম (৩০) ও আলমগীর হোসেন (৩৫)। ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক মোজাম্মেল হক জনকণ্ঠকে বলেন, বনানীতে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় তারা শরীরে শটগানের গুলিবিদ্ধ হয়েছে। তবে তাদের অবস্থা গুরুতর নয়। বনানী থানার ওসি (তদন্ত) শেখ শাহিনুর রহমান বলেন, ওই ঘটনায় ১০ জনের মতো আহত হয়েছেন। তাদের প্রথমে কুর্মিটোলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে কয়েকজনকে ঢাকা মেডিক্যাল এবং একজনকে পঙ্গু হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

ডিএনসিসি সূত্র জানায়, অবৈধ দখলের বিরুদ্ধে নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। তবে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, কোন প্রকার নোটিস ছাড়াই সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষ এ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে। যা নিয়ে তর্ক বিতর্কের একপর্যায়ে এ সংঘর্ষ বাধে। ঘটনার পর উক্ত মার্কেটের সামনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ডিএনসিসি কর্তৃপক্ষ এ নিয়ে থানায় মামলা দায়ের করবে বলে জানা গেছে।

মার্কেটের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান আজাদ বলেন, ম্যাজিস্ট্রেট মাহবুবুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশ আর সিটি কর্পোরেশনের লোকজন এসে গণহারে দোকান উচ্ছেদ শুরু করে। দোকান মালিকরা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে অভিযানের বিষয়ে কাগজপত্র দেখতে চাইলে তিনি কাগজ দেখাতে রাজি হননি। এ নিয়ে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ম্যাজিস্ট্রেটের বাকবিত-া হয়। একপর্যায়ে তিনি পুলিশকে গুলির নির্দেশ দেন। পুলিশ এলোপাতাড়ি গুলি শুরু করলে ১০-১৫ জন ব্যবসায়ী ও কর্মচারী গুলিবিদ্ধ হন। এদের মধ্যে গুরুতর আহত ৭ জনকে ইউনাইটেড হাসপাতাল ও দুজনকে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সংশ্লিষ্ট ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম বলেন, কর্পোরেশনের নিয়মিত কাজের অংশ হিসেবে বনানী বাজারে অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে এ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। পূর্ব নোটিস ছাড়াই উচ্ছেদ কার্যক্রম সম্পর্কে ব্যবসায়ীদের অভিযোগ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ভ্রাম্যমাণ আদালত আইন অনুযায়ী কোন প্রকার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করতে অবৈধ দখলদারদের নোটিস প্রদান করতে হয় না। ডিএনসিসি দীর্ঘদিন যাবত বিনা নোটিসেই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে আসছে। উক্ত অভিযানের প্রথমদিকে উচ্ছেদ কার্যক্রম ভালভাবে চললেও শেষ পর্যায়ে কয়েকজন ব্যবসায়ী ও সাধারণ লোকজন ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে তুমুল বাকবিত-া শুরু করে ও উচ্ছেদ কাজে বাধা দেয়। একপর্যায়ে জোরপূর্বক উচ্ছেদ কার্যক্রম বন্ধ করার চেষ্টা করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্বরত পুলিশকে গুলির নির্দেশ দেয়। একপর্যায়ে পুলিশ রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। তবে হতাহত হওয়ার কোন খবর জানা নেই। সরকারী কাজে বাধা দেয়ায় ডিএনসিসি কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

প্রকাশিত : ১ মে ২০১৫

০১/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: