মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্র অংশীদারি সংলাপ শুরু

প্রকাশিত : ১ মে ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নিরাপত্তা, বাণিজ্য ও উন্নয়ন সহযোগিতার ক্ষেত্রে আরও জোর দেবে বাংলাদেশ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। বৃহস্পতিবার থেকে ঢাকায় দুই দেশের মধ্যে দুই দিনব্যাপী চতুর্থ অংশীদারি সংলাপের প্রথম পর্বের আলোচনায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এছাড়া সংলাপে যোগ দিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতরের রাজনৈতিক বিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি ওয়েন্ডি শারম্যান এবং দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়াবিষয়ক সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিশা দেশাই বিসওয়াল বৃহস্পতিবার ঢাকায় এসেছেন। ঢাকার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন মেঘনায় দুই দেশের মধ্যে অংশীদারি সংলাপ শুরু হয়। চতুর্থ অংশীদারি সংলাপের প্রথম পর্ব অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ শুক্রবার একই স্থানে সংলাপের মূল পর্ব শুরু হবে। এতে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে নেতৃত্ব দেবেন পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হক। আর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবেন মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের আন্ডার সেক্রেটারি ওয়েন্ডি শারম্যান।

বৃহস্পতিবার দুই দেশের সংলাপের প্রথম পর্বে আটটি অধিবেশন হয়। এতে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে নেতৃত্ব দেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক মাহফুজুর রহমান। অপরদিকে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে নেতৃত্ব দেন দেশটির পররাষ্ট্র দফতরের ডেপুটি এ্যাসিস্টেন্ট সেক্রেটারি স্টিভেন ফেল্টস্টিন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, বাংলাদেশ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে ঢাকায় চতুর্থ অংশীদারি সংলাপের জন্য ৩০ এপ্রিল ও পহেলা মে নির্ধারণ করা হয়। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ছাড়াও বাণিজ্য, বিদ্যুত ও জ্বালানি, শ্রম ও জনশক্তি, স্বরাষ্ট্র, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা এই সংলাপে অংশ নেন। সংলাপে নিরাপত্তা সহযোগিতা, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, উন্নয়ন সহযোগিতা, খাদ্য নিরাপত্তা, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, সন্ত্রাসবাদ নিয়ন্ত্রণ, জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী বাহিনী, মার্কিন প্রেসিডেন্টের মিলেনিয়াম চ্যালেঞ্জ ফান্ডে বাংলাদেশের অংশগ্রহণের সুযোগ, যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক রফতানিতে শুল্কমুক্ত সুবিধা দেয়া নিয়েও আলোচনা হয়।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ঢাকা এসে পৌঁছান মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতরের রাজনৈতিক বিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি ওয়েন্ডি শারম্যান এবং দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়াবিষয়ক সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিশা দেশাই বিসওয়াল। ঢাকায় বিমানবন্দরে তাদের দু’জনকে স্বাগত জানান পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হক। ঢাকায় এসে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তারা দু’জনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, আজ শুক্রবার দুই দেশের মধ্যে আয়োজিত চতুর্থ অংশীদারি সংলাপের মূল পর্বে যোগ দেবেন ওয়েন্ডি শারম্যান ও নিশা দেশাই। আন্ডার সেক্রেটারি শারম্যান যুক্তরাষ্ট্র প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবেন। উন্নয়ন ও সুশাসন, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ এবং নিরাপত্তা সহযোগিতাসহ বিশদ দ্বিপাক্ষিক ও আঞ্চলিক বিষয়াদি আরও বিস্তৃত পরিসরে ও গভীরভাবে আলোচনার জন্য অংশীদারিত্ব সংলাপটি সর্বোচ্চ ফোরাম। সংলাপ শেষে আজ শুক্রবার দুই দেশের পক্ষ থেকে একটি যৌথ ইশতেহার ঘোষণা করা হবে।

এছাড়া দুই দেশের সংলাপ শেষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ ও পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হকের সঙ্গে বৈঠক করবেন ওয়েন্ডি শারম্যান। আন্ডার সেক্রেটারি শারম্যান এবং সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিশা বিসওয়াল সুশীল সমাজের নেতাদের সঙ্গেও সাক্ষাত করবেন।

বাংলাদেশ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে তৃতীয় অংশীদারি সংলাপ (পার্টনারশিপ ডায়লগ) গত বছর ২৮-২৯ অক্টোবর ওয়াশিংটনে অনুষ্ঠিত হয়। পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হকের নেতৃত্বে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দল ওই সংলাপে অংশ নেয়।

বাংলাদেশ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে দ্বিতীয় অংশীদারি সংলাপ ২০১৩ সালের ২৬ ও ২৭ মে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে অংশ নেন মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের সহকারী সচিব ওয়েন্ডি শারম্যান। বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দেন পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক। তার আগে ২০১২ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর প্রথম সংলাপ যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে অনুষ্ঠিত হয়। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের ঢাকা সফরে অংশীদারি সংলাপের বিষয়ে এক চুক্তি সই হয়। তারপর থেকে প্রতিবছর একবার ঢাকা পরেরবার ওয়াশিংটনে এই সংলাপের আয়োজন করা হয়।

প্রকাশিত : ১ মে ২০১৫

০১/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: