হালকা কুয়াশা, তাপমাত্রা ১৮.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বাংলাদেশ-ভারত নৌ প্রটোকল স্বয়ংক্রিয়ভাবে নবায়ন হবে

প্রকাশিত : ৩০ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে প্রস্তাবিত বাণিজ্য চুক্তির অনুসরণে নৌ-প্রটোকল পাঁচ বছরের জন্য স্বয়ংক্রিয়ভাবে নবায়ন হবে এবং এটি গত ১ এপ্রিল থেকে কার্যকর। এছাড়া উভয় দেশের সচিব ‘খসড়া কোস্টাল শিপিং এগ্রিমেন্ট’ অনুস্বাক্ষর করেছেন যা নিজ নিজ সরকারের অনুমোদন সাপেক্ষে চূড়ান্তভাবে স্বাক্ষরিত হবে।

নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে গত ২০-২২ এপ্রিল নয়াদিল্লীতে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ-ভারত নৌ-সচিব পর্যায়ের বৈঠকের বিষয়ে বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে এ খবর জানান।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব শফিক আলম মেহেদী এবং বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান কমডোর এম মোজাম্মেল হক উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী জানান, পানগাঁওসহ বাংলাদেশের আরও দুটি আইসিটি (সামিট এবং এ কে খান আইসিটি) পোর্ট অব কল হিসেবে ব্যবহার উপযোগী রয়েছে। নৌ-প্রটোকলের শর্ত অনুযায়ী সমসংখ্যক পোর্ট অব কলভুক্ত হতে হবে। বাংলাদেশ ভারতের ‘ফারাক্কা’ ও ‘ব্যান্ডেল’ পোর্ট অব কলভুক্ত করার প্রস্তাব করলে ভারত এ বিষয়ে তাদের মতামত পরে জানাবে বলে জানিয়েছে। বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পাঁচটি করে পোর্ট অব কল রয়েছে। সেগুলো হচ্ছে বাংলাদেশের নারায়ণগঞ্জ, আশুগঞ্জ, সিরাজগঞ্জ, মংলা ও খুলনা এবং ভারতের কলকাতা, হালদিয়া, করিমগঞ্জ, শিলঘাট ও পান্ডু।

শাজাহান খান বলেন, সচিব পর্যায়ের বৈঠকে সমগ্র প্রটোকল রুট উন্নতকরণ, প্রটোকল রুটে প্যাসেঞ্জার ভেসেল এবং ক্রুজ ভেসেল অন্তর্ভুক্তকরণ, পার্ট অব কলের সংখ্যা বৃদ্ধিকরণ, জয়েন্ট টেকনিক্যাল কমিটির প্রস্তাব বাস্তবায়ন, লাইট হাউস এবং মেরিন বিষয়ে প্রশিক্ষণ, আশুগঞ্জে কার্গো ট্রান্সশিপমেন্ট এবং নৌ-প্রটোকল সংশোধন বিষয়েও আলোচনা হয়।

বাংলাদেশ-ভারত নৌ-সচিব পর্যায়ের বৈঠকে বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব শফিক আলম মেহেদী এবং ভারতীয় প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন নৌ-সচিব রাজিব কুমার। উভয় দেশের সচিব খসড়া কোস্টাল শিপিং এগ্রিমেন্ট অনুস্বাক্ষর করেন।

প্রকাশিত : ৩০ এপ্রিল ২০১৫

৩০/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: