আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সিরিজ জিততে চান হাতুরাসিংহে

প্রকাশিত : ২৮ এপ্রিল ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার খুলনা থেকে ॥ পাকিস্তানের বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শুরু হচ্ছে আজ। প্রথমটি খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে হবে। আর দ্বিতীয়টি ৬ মে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে শুরু হবে। এ সিরিজেও জিততে চান বাংলাদেশ কোচ চন্দিকা হাতুরাসিংহে। সোমবার প্রথম টেস্ট পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে এমনটিই জানিয়েছেন কোচ। বলেছেন, ‘সিরিজ জিততে চাই।’ ওয়ানডে সিরিজে পাকিস্তানকে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। এরপর টি২০ ম্যাচও জিতে নিয়েছে। হাতুরাসিংহের ছোঁয়ায় দল পুরোই বদলে গেছে। একের পর এক জয় তুলে নিচ্ছে। পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে এখন পর্যন্ত চার ম্যাচ হয়েছে। চারটিই জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। এ জয়গুলো ক্রিকেটারদের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দেবে। যা টেস্ট সিরিজেও কাজে দেবে বলেই বিশ্বাস কোচের। পাকিস্তানের বিপক্ষে খুলনা টেস্টে তিন নতুন খেলোয়াড়কে দলে রেখেছেন নির্বাচকরা। ব্যাটসম্যান লিটন দাস, সৌম্য সরকার ও পেসার মোহাম্মদ শহীদ। নতুন এই তিনজনের মধ্য থেকে খুলনা টেস্টে দু’জনের অভিষেক হওয়ার সম্ভাবনার কথা জানালেন বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ। কোচের কথাতেই ইঙ্গিত মিলল, ৭ নম্বরে সৌম্যকে খেলানো হতে পারে। আর বোলিংয়ে শহীদকে রাখা হতে পারে। তবে লিটন দাসের এখনই অভিষেক না হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। সর্বশেষ টেস্টে যে ইমরুল কায়েস শতক করেছেন। তাতেই ইমরুল শুরুতে ব্যাটিংয়ে একাদশের ক্ষেত্রে বিবেচিত হচ্ছেন। খুলনা টেস্টের দলেও আছেন বামহাতি এ ওপেনার। সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিকুর রহীমকে সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন কোচ হাতুরাসিংহে। সেই সংবাদ সম্মেলনে দল নিয়ে ইঙ্গিত দেন কোচ। বলেছেন, ‘আমি দল নির্বাচন নিয়ে খুশি। গত সিরিজে এই খেলোয়াড়রাও ছিল। গতবার জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে টেস্টে ইমরুল সেঞ্চুরি করেছিল। এছাড়া সিরিজ জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিল শুভাগত হোম। তাই তাদের দলে থাকাটা প্রাপ্য।’ সৌম্য সরকার, লিটন কুমার দাস এবং ডানহাতি পেসার মোহাম্মাদ শহীদকে প্রথমবারের মতো টেস্ট দলে রাখা হয়েছে। এ বিষয়ে বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ বলেন, ‘নিজেদের যোগ্যতা দিয়েই এই তিন নতুন দলে এসেছেন। দল ভাল করছে, তবুও কেউ কেউ এরই মাঝে দ্রুত সুযোগ করে নিতে পারে। প্রতি খেলোয়াড়কে আমি যথেষ্ট সুযোগ করে দিতে চাই। এভাবে খেলোয়াড়রা অনেক স্থায়িত্ব পায়। আমি যতটুকু দেখেছি ওদের যথেষ্ট প্রতিভাবান মনে হয়েছে।

আমরা নতুন তিনজনকে পেয়েছি। টেস্টের জন্য ১২ জনের দল করেছি। হয় তো এই সিরিজে নতুন কারও অভিষেক হতে পারে।’ ওয়ানডে সিরিজ এবং টি২০ ম্যাচ জয়ের পর বাংলাদেশ দল অনেক আত্মবিশআসী হয়ে উঠেছে। টাইগার সমর্থকদের প্রত্যাশাটা আরও বেড়ে গেছে। ক্রিকেটপ্রেমীদের মতো হাতুরাসিংহের দৃষ্টি সিরিজ জয়ে, ‘আমাদের প্রত্যাশা প্রতিটি সিরিজ জয়। তাই বলে আমরা অতি আত্মবিশ্বাসী হতে পারি না। আমরা আমাদের সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করব। আর তা যদি করতে পারি, তাহলে যে কোন দলকে আমাদের হারানোর সামর্থ্য রয়েছে। সিরিজ জয়ের প্রত্যাশা আমাদের জন্য বাড়তি চাপ নয়। জয়ের জন্যই আমরা প্রস্তুতি নিয়েছি।’ খুলনার উইকেটে বাংলাদেশ দল টেস্টে বরাবর ভাল করে এসেছে। দুই টেস্টের একটিতে জিতেছে। ৪ ওয়ানডের চারটিতেই জিতেছে। একটি টি২০ খেলে একটিতেই জিতেছে। সেই হিসেবে ‘লাকি ভেন্যু’ই বলা চলে। তাই এখান থেকে আবারও ভাল কিছু প্রতাশ্যা করছেন বাংলাদেশের প্রধান কোচ, ‘এই ধরনের পরিসংখ্যান আমাদের আত্মবিশ্বাস যোগাবে। তাই অতীত নিয়ে ভেবে কোন লাভ নেই। কাল (আজ) আমরা কিভাবে শুরু করি সেটাই আসল। তবে আমরা প্রথম সেশনের দিকে মনোযোগ দিচ্ছি। গতবার এখানকার উইকেটা যেমন দেখেছিলাম এবারও তেমনই মনে হয়েছে। আমি একই রকম আচরণ প্রত্যাশা করছি।’ স্টেডিয়ামে প্রবেশ করেই শুরুতেই উইকেটের দিকে গেলেন হাতুরাসিংহে। যখন অনুশীলন শেষ হলো এর অনেকক্ষণ পরও উইকেট দেখলেন। এ উইকেটেই যে বাংলাদেশের জয়ের মন্ত্র নিহিত আছে।

প্রকাশিত : ২৮ এপ্রিল ২০১৫

২৮/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: