মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

‘ফল আমাদের পক্ষে আসবে’

প্রকাশিত : ২৮ এপ্রিল ২০১৫
  • এতটুকু বিশ্বাস, ফিল্ডাররা যদি সুযোগগুলো কাজে লাগাতে পারে তাহলে ফল আমাদের পক্ষেই আসবে

স্পোর্টস রিপোর্টার খুলনা থেকে ॥ ওয়ানডে ও টি২০ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার পালা শেষ। মাশরাফির নেতৃত্বে পাকিস্তানকে ওয়ানডেতে ‘বাংলাওয়াশ’ ও এক টি২০’তেও হারিয়েছে বাংলাদেশ। এবার টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহীমের পালা। তার নেতৃত্বে টেস্টে কেমন করবে বাংলাদেশ? আজ খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে সকাল ১০টা থেকে শুরু হবে প্রথম টেস্ট। এ টেস্টের ফল বাংলাদেশের পক্ষে আসা সম্ভব বলেই মনে করছেন মুশফিক। সোমবার সংবাদ সম্মেলনে এমনটিই জানান বাংলাদেশ টেস্ট অধিনায়ক।

প্রশ ॥ আপনার জন্য টেস্ট সিরিজ চ্যালেঞ্জ কি না?

মুশফিকুর রহীম ॥ চাপের তো তেমন কিছু নেই। চাপ তেমন না তবে চ্যালেঞ্জ বলতে পারেন। আমাদের ওয়ানডে ও টি২০ যেমন গেছে তেমনটাই যেন থাকে চেষ্টা করব। টেস্ট ক্রিকেট সহজ নয়। আমাদের চেষ্টা অবশ্যই থাকবে। ওরা (পাকিস্তান) হচ্ছে টেস্টের চার নাম্বার দল। সেদিক থেকে বলব চ্যালেঞ্জ আমাদের জন্য অন্যরকম। ওদের টেস্ট স্কোয়াডে অভিজ্ঞ কিছু খেলোয়াড় অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। চাপ নয়; এখানে প্রত্যাশা। প্রত্যাশা বেশি হলে আমার মনে হয় খেলোয়াড়দের জন্য ভাল হয়; তখন তাদের সেরাটা বের হয়ে আসে। ছেলেরা অনেক আত্মবিশ্বাসী। তারা হার্ডওয়ার্ক করার জন্য প্রস্তুত। আশা করছি ৫ দিন যদি আমরা সেরা ক্রিকেট খেলি তাহলে রেজাল্ট আমাদের পক্ষে আসবে।

প্রশ্ন ॥ সিরিজ জয় লক্ষ্য, আপনি কি এটা মনে করছেন?

মুশফিক ॥ ড্র করার জন্য কিংবা হারের জন্য কেউ টেস্ট ক্রিকেট খেলে না। শেষ ১৬ বছরে পাকিস্তানের বিপক্ষে আমাদের কোন জয়ই ছিল না। অনেকেই হয় তো বলছে তাদের দল এত ভাল ছিল না। যারা আমরা খেলেছি, তারাই বুঝেছি হারে হারে, রান করা কতটা কঠিন ছিল। এটা খুব স্বাভাবিক। রান করলে বলে এটা অনেক সহজ আক্রমণের বিপক্ষে এবং রান করতে না পারলে বলে এত বাজে বোলিং তাও কেউ রান করতে পারছে না। এটাই আমাদের কালচার। কিন্তু বিষয়টি সে রকম নয়। আমাদের এ্যাপ্রোচ অবশ্যই জয়ের। জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে ২ টেস্ট ম্যাচই কিন্তু আমরা লাস্ট সেশনে গিয়ে জয় লাভ করেছি। আমাদের এতটুকু বিশ্বাস আছে, আমাদের যে বোলিং আক্রমণ আছে; আমাদের ২০ উইকেট নেয়ার মতো বোলার আছে। আমাদের যে ব্যাটসম্যানরা আছে ৬০০ প্লাস রান করার মতো। আমরা ফিল্ডাররা যদি আমাদের যেসব সুযোগ আসে সেগুলো নিতে পারি তাহলে রেজাল্ট আমাদের পক্ষেই আসবে।

প্রশ্ন ॥ মুলতান টেস্টের আক্ষেপ ...

মুশফিক ॥ যতটুকু মনে আছে তখন বিকেএসপিতে পড়তাম। খেলাটা দেখেছি এবং খুবই কষ্ট পেয়েছিলাম (২০০৩ সালে ১ উইকেটে হেরেছিল বাংলাদেশ)। আক্ষেপটা তো অবশ্যই আছে। আক্ষেপটা শুধু এটা নয়; পাকিস্তানের সঙ্গে জয় নেই। আক্ষেপ ছিল, টেস্ট ক্রিকেটে আমাদের যে ক্ষমতা আছে সেই অনুযায়ী আমরা শেষ ১৫ বছর ধরে খেলতে পারিনি। সত্যি বলতে শেষ ২ বছর ধরে আমরা বাইরে এবং হোমে খুব ভাল ক্রিকেট খেলছি। আরও একটি আত্মবিশ্বাসের জায়গা আছে। এর আগে পাকিস্তানের বিপক্ষে যত টেস্ট খেলেছে এতটা ভাল মানসিক অবস্থা নিয়ে মাঠে নামেনি বাংলাদেশ। যাই হোক, আমরা ভাল একটি আত্মবিশ্বাস নিয়ে যাচ্ছি। আমরা কমপক্ষে ৫ দিন যেন ভাল ক্রিকেট খেলতে পারি সেই আত্মবিশ্বাসটা আমাদের মধ্যে আছে। যা কিনা আমাদের ভাল রেজাল্ট করার জন্য অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে। আমাদের সিনিয়র খেলোয়াড়রা এবং যারা অভিষেকের অপেক্ষায় আছে তারা মানসিক ও শারীরিকভাবে প্রস্তুত।

প্রশ্ন ॥ ইউনুস খান ও মিসবাহকে নতুন করে যোগ করা হয়েছে। এদের বাইরে কাউকে নিয়ে প্ল্যান আছে কিনা?

মুশফিক ॥ তারা টেস্ট ক্রিকেটে কিন্তু দারুণ ব্যাটসম্যান। বলতে গেলে লিজেন্ডই। অবশ্যই তাদের ব্যাটিং লাইনআপটা একটু বেড়েছে। তাদের মাথায় কিন্তু থাকবে ৪-০। সুতরাং মানসিকভাবে তারা একটু হলেও পিছিয়ে থাকবে। আমাদের বোলারদের মূল টার্গেটই থাকবে তাদের এই ২ মূল খেলোয়াড়কে চাপে রাখা। যেন দ্রুত তাদের আউট করতে পারি। এর বাইরে আজহার আলী ভাল খেলছে। হাফিজ ভাল। এই ৪ জনই ভাল। আমাদের জিততে হলে ২০ উইকেটই নেয়া লাগবে। আমাদের ব্যাটসম্যানরা যদি দায়িত্ব নিয়ে খেলতে পারে তবে রেজাল্ট আমাদের পক্ষেই আসবে।

প্রশ্ন ॥ টেস্ট জয়ের বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী কি না?

মুশফিক ॥ আত্মবিশ্বাসী তো অবশ্যই। তারপরও এটা ভিন্ন ফরম্যাটের খেলা। পাকিস্তান টেস্টে ৪ নাম্বার দল। এটা খুব সহজ নয়। আমি শুধু বলতে চাই আমরা খুব আত্মবিশ্বাসী। আমরা পাকিস্তানকে খুব সহজভাবে নিচ্ছি না। কিন্ত আমি প্রস্তুত হার্ডওয়ার্ক করতে। ছেলেরা টেস্ট সিরিজে ভাল খেলবে।

প্রশ্ন ॥ বেশকিছু দিন ধরে লঙ্গারভার্সন খেলছেন না, এটা কী পিছিয়ে রাখবে?

মুশফিক ॥ পিছিয়ে রাখার কিছু নেই (নবেম্বরে সর্বশেষ জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে খেলেছে বাংলাদেশ)। এটা এমন না যে না খেললে আপনে ভাল করবেন না। থাকলে হয় তো আমাদের ম্যাচ অনুশীলনটা থাকত। আমাদের জন্য এটা আর একটু ভাল হতো এই আর কি। বিসিএলের কয়েকটা ম্যাচ আমাদের খুব সাহায্য করেছে এই সিরিজে। আমাদের ব্যাটসম্যানরা সবাই রানে আছে। তারা ভাল করবে। পরিস্থিতি বিবেচনায় ব্যাটসম্যানরা নিজেদের মানিয়ে নিতে পারবে।

প্রশ্ন ॥ খুলনা লাকি ভেন্যু ...

মুশফিক ॥ যে কোন গ্রাউন্ডে খেলতে গেলে অতীতের কোন স্মৃতি থাকলে এটা অবশ্যই ভাল। কোচ যা বললেন, অতীত কাউন্ট করে অবশ্য লাভ হয় না। অতীত হয় তো আত্মবিশ্বাস দিতে পারে। আমাদের আবার প্রথম থেকেই শুরু করতে হবে এবং ৫ দিন খুবই হার্ডওয়ার্ক করতে হবে। ইনশাল্লাহ সেটা করার জন্য প্রস্তুত আছি। আমার মনে হয় জয় ছাড়া কিছুই চিন্তা করার নেই। আমাদের দলে অনেক ম্যাচ উইনার খেলোয়াড় আছে। এটা আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ; এই নতুন চ্যালেঞ্জ নেয়ার জন্য আমরা কেন প্রস্তুত হব না। জয়ের চিন্তা করাটাই সঠিক হবে।

প্রকাশিত : ২৮ এপ্রিল ২০১৫

২৮/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: