মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ঝিনাইদহে রোগী মৃত্যুর অভিযোগে হাসপাতাল ভাংচুর

প্রকাশিত : ২৭ এপ্রিল ২০১৫

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঝিনাইদহ, ২৬ এপ্রিল ॥ ভুল চিকিৎসায় ঝিনাইদহ শহরের প্রিন্স হাসপাতাল নামের একটি বেসরকারী হাসপাতালে আহসান শেখ (৪০) নামের এক রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। এ সময় রোগীর স্বজনরা বেসরকারী হাসপাতালটি ব্যাপক ভাংচুর করেছে। শনিবার রাত ১টার দিকে এ ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। মৃত আহসান শেখ সদর উপজেলার ঘোড়ামারা গ্রামের কপিল উদ্দিন শেখের ছেলে।

মৃতের স্ত্রী রেকসোনা খাতুন জানান, তার স্বামীকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে অস্ত্রোপচার করেন ডাঃ জাহিদুর রহমান ফিরোজ। এর আগে শরীরে চেতনানাশক ইনজেকশন পুশ করেন কবীর নামে একজন। রাত ৯টার দিকে চিকিৎসক ও ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ তাকে জানান, রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাকে বাঁচাতে হলে এখনই ঢাকায় গ্রীন রোডে একটি বড় হাসপাতালে নিতে হবে। এর কিছুক্ষণ পর ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ তড়িঘড়ি করে একটি এ্যাম্বুলেন্স ভাড়া করে ঢাকার উদ্দেশে পাঠিয়ে দেন। তার পরিবারের কয়েকজন সদস্য ওই এ্যাম্বুলেন্সে ছিলেন। তিনি অভিযোগ করেন, ওই ক্লিনিকে অস্ত্রোপচারের সময় অপারেশন থিয়েটারেই তার স্বামী মারা গেছেন। এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে দোষীদের শাস্তির দাবি জানান নিহতের স্ত্রী। মৃতের ছোট ভাই ফজলু শেখ জানান, কিছুদিন আগে পেট ব্যথার কারণে তার বড় ভাই আহসান ঝিনাইদহ শহরের প্রিন্স হাসপাতালে ডাক্তার দেখান। ডাক্তার তার বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার পিত্তথলিতে পাথর হয়েছে জানিয়ে অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দেন। ডাক্তারের পরামর্শ মতে গত শুক্রবার ভাইকে প্রিন্স হাসপাতালের ভর্তি করা হয়। শনিবার রাত ১০টার দিকে অস্ত্রোপচার করা হয়। ভুলভাবে অস্ত্রোপচার করায় তার ভাইয়ের মৃত্যু হয়। রোগীর স্বজনরা শনিবার রাত ১টার দিকে ওই হাসপাতালে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করে। পুলিশ পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে। এ ঘটনার পর ওই হাসপাতালের কোন মালিক বা ডাক্তারকে পাওয়া যায়নি। তাদের মোবাইল ফোনও বন্ধ রয়েছে। এ বিষয়ে ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন ডাঃ আব্দুস সালাম বলেন, কিভাবে রোগীর মৃত্যু হলো তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

প্রকাশিত : ২৭ এপ্রিল ২০১৫

২৭/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: