মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

নির্বাচনী প্রচারে এসএমএস

প্রকাশিত : ২৬ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ এবার ঢাকা উত্তর, দক্ষিণ ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ভোটারদের সচেতন করতে নানা সচেতনমূলক এসএমএস (ক্ষুদে বার্তা) দিচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এবার এসএমএসের মাধ্যমে ভোট কেন্দ্র ও ভোটার নম্বর জানারও সুযোগ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। অন্যদিকে, নিজের প্রতীকে ভোট দেয়ার আর্জি জানিয়ে প্রার্থীরাও এসএমএস দিচ্ছেন। অপরদিকে, এবার সিটি নির্বাচনের প্রচারে এসেছে নানা বৈচিত্র্য।

তিন সিটিতেই প্রচারে বিভিন্ন প্রার্থীর পক্ষে মাঠে থাকছেন তারকারা। অধিকাংশ প্রার্থীর পক্ষে মাইকিং করার সময় বাজানো হচ্ছে রেকর্ড করা বক্তব্য। অনেক প্রার্থীর মাইকিংয়ে আবার বাজানো হচ্ছে তার পক্ষে তৈরি চটকদার করা গান।

প্রায় প্রতিদিনই নির্বাচন কমিশন থেকে ভোটারদের এসএমএস দেয়া হচ্ছে। গত ২৪ এপ্রিল নির্বাচন কমিশনের দেয়া এসএমএসে লেখা রয়েছে- ‘আপনার ভোট আপনার গণতান্ত্রিক অধিকার। আপনার ভোট আপনি দিন, বুঝে, শুনে, দেখে দিন।’ ২৫ এপ্রিল নির্বাচন কমিশনের দেয়া এসএমএসে লেখা রয়েছে- ‘ভোট আপনার অধিকার, আপনার পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিন।’

এদিকে, প্রার্থীরাও নিজেদের নামে বা বিভিন্ন নামে ভোটের আর্জি জানিয়ে এসএমএস দিচ্ছেন। ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী সাঈদ খোকন তার দেয়া এসএমএসে লিখেছেন, ‘প্রিয় ঢাকাবাসী, সালাম নিবেন, স্বশরীরে এসে ভোট চাইতে না পারায় ক্ষমাপ্রার্থী, আধুনিক ঢাকা গড়তে মেয়র পদে ইলিশ মাছ প্রতীকে ভোট দিন। সাঈদ খোকন।’ আদর্শ ঢাকা শিরোনামে এসএমএস পাঠানো হচ্ছে বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের পক্ষে। ওই এসএমএসে লেখা হয়েছে- ‘বাসযোগ্য ঢাকা গড়ে তুলতে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে তাবিথ আউয়ালকে মেয়র পদে বাস মার্কায় ভোট দিন।’

এর আগে ৫ জুনয়ারি সংসদ নির্বাচনের আগেও ভোটারদের সচেতন করতে এসএমএস পাঠিয়েছিল নির্বাচন কমিশন। ওই সময় নির্বাচন কমিশন বিটিআরসিকে চিঠি দিয়ে সব মোবাইল অপারেটর থেকে ভোটের দিন পর্যন্ত এসএমএস পাঠাতে বলেছিল। এবারও একইভাবেই এসএমএস পাঠাচ্ছে ইসি। ওই সময় প্রচারে স্লোগান ছিল- ‘ভোট গণতান্ত্রিক অধিকার, নির্বাচনে ভোট দিয়ে আপনার অধিকার প্রতিষ্ঠা করুন।’ ‘শান্তিপূর্ণ নির্বাচনী পরিবেশ বজায় রাখুন।’ ‘নির্বাচনে সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হচ্ছে, নির্ভয়ে, নির্বিঘেœ ভোট দিতে কেন্দ্রে যাবেন’।

অন্যদিকে, আগামী ২৮ এপ্রিল অনুষ্ঠিতব্য তিন সিটি নির্বাচনে ভোটার নম্বর ও ভোট কেন্দ্রের নাম এসএমএসের মাধ্যমে জানানোরও ব্যবস্থা করেছে নির্বাচন কমিশন। শনিবার থেকে ভোটাররা এ সেবা পাবেন। এ সেবা পেতে- মোবাইলের ম্যাসেজ অপশনে গিয়ে বড় হাতের পিসি (চঈ) লিখে স্পেস দিয়ে জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বরটি লিখতে হবে। এরপর সেন্ড করতে হবে ১৬১০৩ (১৬১০৩) নম্বরে। ফিরতি এসএমএস-এ জানতে পারবেন ভোটার নম্বর ও ভোট কেন্দ্রের নাম। নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইট থেকেও জানা যাবে এসব তথ্য। (http:/ww/w.ec.org.bd, http://nidw.gov.bd) এছাড়া হেল্প লাইন নম্বরও রয়েছে- ০৩৫৯০১২৩৪৫৬।

প্রকাশিত : ২৬ এপ্রিল ২০১৫

২৬/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: