মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ইসির নির্দেশনার পর নির্বাচনী প্রচারে মাঠে নামেননি খালেদা

প্রকাশিত : ২৬ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে আচরণবিধি ভঙ্গ না করতে চিঠি ও তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনারকে নির্বাচন কমিশনের (ইসির) নির্দেশনার পর তিনি আর দলীয় প্রার্থীদের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারে মাঠে নামেননি। তবে খালেদা জিয়া নির্বাচনী প্রচারে মাঠে না নামলেও গুলশানের বাসায় বসে নির্বাচনী কর্মকা- মনিটরিং করেছেন। ৩ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন নিয়ে আজ রবিবার বেলা ২টায় গুলশান কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করবেন খালেদা জিয়া। এদিকে গাড়িবহর নিয়ে খালেদা জিয়াকে নির্বাচনী প্রচারে না নামার নির্দেশ ও নির্বাচনী এলাকায় এখনও সেনাবাহিনী মোতায়েন না করায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে বিএনপি।

উল্লেখ্য, ১৮ এপ্রিল থেকে ৬ দিন রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় ভোটারদের হাতে হাতে লিফলেট বিতরণ করে দলীয় প্রার্থীদের পক্ষে খালেদা জিয়ার নির্বাচনী প্রচারকালে বিপুলসংখ্যক দলীয় নেতাকর্মীর উপস্থিতি ঘটে। এতে যানজটের কারণে জনগণের চলাচলে বিঘœ সৃষ্টি হওয়ায় নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘিত হয়। এছাড়া খালেদা জিয়া নির্বাচনী প্রচারকালে বিশাল গাড়িবহর এবং তার সামনে-পেছনে ছাত্রদল ও যুবদলের শতাধিক নেতাকর্মী মোটরসাইকেলযোগে মহড়া দেয়ায়ও নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘিত হয়। এর আগে মির্জা আব্বাস ও তাবিথ আউয়ালকে চিঠি দিয়ে খালেদা জিয়াকে এভাবে গাড়িবহর নিয়ে নির্বাচনী প্রচার না করতে নির্বাচন কমিশন সতর্ক করলেও তিনি এর তোয়াক্কা না করেই নির্বাচনী প্রচারে মাঠে নামেন। শুক্রবার রাতে গাড়িবহর নিয়ে নির্বাচনী প্রচারে নামলে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার ও সংশ্লিষ্ট ম্যাজিস্ট্রেটদের চিঠি দেয় নির্বাচন কমিশন।

শনিবার দুপুরে বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের ঠিকানায় বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকেও নির্বাচন কমিশন থেকে একটি চিঠি দেয়া হয়। এরপর শনিবার খালেদা জিয়া আর নির্বাচনী প্রচারে মাঠে নামেননি। নির্বাচনী প্রচারে নামলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বাধা দিতে পারে এমন আশঙ্কা থেকেই তিনি শনিবার নির্বাচনী প্রচারে না নামার সিদ্ধান্ত নেন বলে জানা গেছে। তবে শনিবার বাসায় বসেই তিনি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের খোঁজখবর নেন এবং দলীয় মেয়র প্রার্থী ও তাদের পক্ষে প্রচরে অংশ নেয়া বিএনপির সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেন। তবে আজ রবিবার বেলা ২টায় খালেদা জিয়া বাসা থেকে গুলশান কার্যালয়ে গিয়ে ৩ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের বিষয়ে বক্তব্য তুলে ধরতে সংবাদ সম্মেলন করবের বলে শনিবার এক ই-মেইল বার্তায় তার প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান সোহেল সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

খালেদাকে দেয়া ইসির নোটিস অকার্যকর- হান্নান শাহ ॥ গাড়িবহর নিয়ে নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেয়ায় খালেদা জিয়া আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন বলে নির্বাচন কমিশনের দেয়া নোটিসের ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব) আসম হান্নান শাহ। শনিবার দুপুরে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে বিএনপি দলীয় মেয়র প্রার্থী মির্জা আব্বাসের শাহজাহানপুরের বাসায় আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলে ইসির পক্ষ থেকে যে নোটিস দেয়া হয়েছে তা অকার্যকর। কারণ, নির্বাচন কমিশনের যে কর্মকর্তা খালেদা জিয়াকে নোটিস দিয়েছেন, তিনি বোধহয় জানেনই না বহর কাকে বলে। খালেদা জিয়া শুধু ব্যক্তিগত নিরাপত্তার জন্য গাড়ি ব্যবহার করছেন। তাই এই চিঠির প্রয়োজন ছিল না। তার বহরে তিনবার হামলা হয়েছে। তখন কমিশন কিছুই বলেনি।

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ইসির অভিযোগ কাল্পনিকÑ রিপন ॥ বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া গাড়িবহর নিয়ে রাস্তা বন্ধ করে নির্বাচনী গণসংযোগ করেছেন বলে তার বিরুদ্ধে ইসি যে অভিযোগ করেছে তা কাল্পনিক বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন। শনিবার বিকেলে নয়াপল্টন বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন, কার নির্দেশে সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত থেকে ইসি সরে এলো, তা জাতিকে জানাতে হবে। প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ অন্য কমিশনারদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ন্যায়-নীতির পক্ষে থেকে সবার কাছে গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে না পারলে চাকরি ছেড়ে চলে যান।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সহ-দফতর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন, শামীমুর রহমান শামীম, নির্বাহী কমিটির সদস্য এ্যাডভোকেট আবেদ রাজা, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানা প্রমুখ।

প্রকাশিত : ২৬ এপ্রিল ২০১৫

২৬/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: