মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

বিসিএল- জয় দিয়ে শুরু দক্ষিণাঞ্চলের

প্রকাশিত : ২৫ এপ্রিল ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ২০১৪-১৫ মৌসুমের শেষ প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট আসর বাংলাদেশ ক্রিকেট লীগে (বিসিএল) জয় দিয়ে শুভসূচনা করেছে প্রাইম ব্যাংক দক্ষিণাঞ্চল। আরেকটি প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট আসর জাতীয় ক্রিকেট লীগ (এনসিএল) আগেই শেষ হয়েছে। শুক্রবার ফতুল্লায় চতুর্থ দিনে বিসিবি উত্তরাঞ্চলকে ২১৬ রানের বড় ব্যবধানে পরাজিত করেছে দক্ষিণাঞ্চল। দ্বিতীয় ইনিংসে এনামুল হক বিজয়ের ১১১ রানে ভর দিয়ে ৩ উইকেটে ২৬৬ রান তুলে শেষ করে দলটি। ৩৮৪ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে উত্তরাঞ্চল দ্বিতীয় ইনিংসে ১৬৭ রানেই গুটিয়ে যায় আব্দুর রাজ্জাকের বিধ্বংসী ঘূর্ণি বলে। তিনি ৬ উইকেট শিকার করেন। আগের দিন ৯৬ রান নিয়ে ব্যাট করছিলেন ওপেনার এনামুল। জাতীয় দলের এ ক্রিকেটার ইনজুরির কারণে বিশ্বকাপের মাঝখানে দেশে ফিরে এসে অস্ত্রোপচার করেছিলেন কাঁধে। সেখান থেকে সেরে উঠেই প্রথম ইনিংসে ৯৪ রানের একটি দুর্দান্ত ইনিংস খেলেছিলেন। দ্বিতীয় ইনিংসে তার সেঞ্চুরির জন্যই মূলত ইনিংস ঘোষণা করতে বিলম্ব করেছে দক্ষিণাঞ্চল। কারণ ৩৩০ রানের লিড হয়ে গিয়েছিল আগেই। শেষ পর্যন্ত এনামুল ১৬৫ বলে ১৩ চার ও ২ ছক্কায় ১১১ রান করে ফিরে যান। পরে জিয়াউর রহমান ১২ বলে ২ চার ৩ ছক্কায় ৩০ রানের বিস্ফোরক ইনিংস উপহার দিয়ে দলের লিড আরও বাড়িয়ে দেন। ৩ উইকেটে ২৬৬ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে দক্ষিণাঞ্চল।

৩৮৪ রানের বিশাল লক্ষ্য ছোঁয়ার জন্য নেমে শুরুতেই উত্তরাঞ্চল বিপদের পরে প্রথম ওভারে ওপেনার মাইশুকুর রহমানকে হারিয়ে। রবিউল ইসলাম শিবলু তাকে ফিরিয়ে দেন শূন্য রানে। আরেক ওপেনার জুনায়েদ সিদ্দিকীকে শিকার করেন সোহাগ গাজী। বাকি গল্প অভিজ্ঞ বাঁহাতি স্পিনার আব্দুর রাজ্জাকের যা হামিদুল ইসলামকে এলবিডব্লিউ করে আগেই শুরু হয়েছিল। পরে রাজ্জাকের ভয়াল ঘূর্ণির সামনে শুধু লড়েছেন নাঈম ইসলাম। তিনি ১৪৩ বলে ৭ চার ও ১ ছয়ে ৬৫ রান করেন। পরের দিকে আরিফুল হক ৩৩ রানের একটি সংগ্রামী ইনিংস খেললেও আর কারও পক্ষে রাজ্জাক-গাজীর দ্বিমুখী আক্রমণের সামনে দাঁড়ানো সম্ভব হয়নি। রাজ্জাক ৬ উইকেট নেন ৬৯ রান দিয়ে। সোহাগ দখল করেন তিন উইকেট। ১৬৭ রানেই গুটিয়ে যায় উত্তরাঞ্চল।

প্রকাশিত : ২৫ এপ্রিল ২০১৫

২৫/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: