মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

কবিতা

প্রকাশিত : ২৪ এপ্রিল ২০১৫

মাহমুদ দারবিশের কবিতা

আমরা ভালোবাসি জীবন

অনুবাদ : সুলতানা শাহরিয়া পিউ

আর জীবন ভালোবাসি আমরা, যদি তার দিশা খুঁজে পাই

উৎসর্গীতদের মাঝে আমাদের নৃত্য,

আর মিনার নির্মাণ আশাহত ফুল অথবা সুউচ্চ বৃক্ষের জন্য

আমরা জীবন ভালোবাসি যদি তার দিশা খুঁজে পাই

রেশম পোকার কাছ থেকে সূত্র চুরি করে

বুনে যাই আস্ত আকাশ, আর এই প্রস্থানের সীমানা

উদ্যানের দুয়ার খুলি, যাতে পথে নেমে আসে জুঁই

একটি সুন্দর দিন হয়ে

জীবন আমরা ভালোবাসি যদি তার দিশা খুঁজে পাই

এবং বীজ বুনি জীবনেরÑ যেখানে আমাদের শ্বাস,

মৃতের ফলন আর কিছু বাড়ন্ত গাছ

আমরা বাজাই বাঁশিÑ নীলিমা ছড়ায় নীল,

ধূলিপথে ছবি আঁকে যেন হ্রেষাধ্বনি

একে একে লিখি নাম আমাদের একই প্রস্তরে

ও বিদ্যুল্লতা দূর করো রাত্রির আঁধার

ভালোবাসি জীবনÑ যদি আমরা তার দিশা খুঁজে পাই

কাঁসারি ঘাট

সরকার মাসুদ

এক.

শিশুপার্কে মহাজীবনের চাকা ঘুরছে

এই দৃশ্যটা মাথায় রেখে আমি বাড়ি যাই

আমি বাগুয়া অনন্তপুর যাই।

রাস্তায় কাঁসারি ঘাটের জ্যোৎস্না ওঠে আমার মাথায়

গাছগাছালির পাতায় ছলকে যায়

অপরূপা রূপা

শাল কাঠের নড়বড়ে সাঁকো জটিল দেখায়

বাগুয়ার পথে!

দুই.

জ্যোৎস্নার কুয়াশা

নিচু জমি, নিধুয়া পাথার

সর জমে থাকা নদী

জোৎস্নার কুয়াশা

চরাচর শব্দহীন, ঘন সন্ধ্যা

পড়ন্ত ফাল্গুন!

তিন.

শঙ্খের শব্দ মনে আনবে স্মৃতি

রাজহাঁস ভাসছে মাথার ভেতর

কাশফুল দুলছো বিকেলে

পানিতে ভেসে চলেছে পূজার জবাফুল

সাঁকোর ওপর নীল পাখির পালক

ময়লা জ্যোৎস্নায় মাছের আঁশের পাশে কালো রক্ত

নাড়িভুঁড়ি;

বাঁশের খুঁটিগুলো দাঁড়িয়ে আছে মায়াবী কাদায়।

তাস

গোলাম কিবরিয়া পিনু

কথার জলকপাট বন্ধ হয়ে যাচ্ছে!

তালাবদ্ধ বাক্স ও দেরাজ থেকে বের হয়ে

আগ্নেয়াস্ত্র কথা বলছে এখন!

কে যে মালিকÑকে যে এর সুবেধাভোগী

তা না জেনেও হন্তারক আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে

চনমনে হয়ে ওঠেÑ

দিনের বেলায়! এমন খেলায়Ñ

মস্তিষ্ক থাকে নাÑহৃদয় থাকে না,

ধর্মেরও ফুস্ফুস্ ফুটো হয়ে যায়Ñ

সমুদ্রের বাতাস ও আকাশ ছোট হয়ে যায়!

অনুভূতি নাশ করেÑকাদের হাতের তাস হয়ে যাই?

জনকণ্ঠ ৮.৪.১৪

লিওনার্দো

জাফর সাদেক

লিওনার্দো-তোমার প্যালেটে ছিল এতো জল

অথচ চিত্রিত হলো না মন্থনি নদীর সৃজন আলোকপাত

যা আঁকলে তারজন্যে পৃথিবীর দেহজ পথের বাঁকে

রেখে গেলে ক্ষুধা ও তৃষ্ণা নামের রহস্যের মরু-অরণ্য

নিদ্রাহীন শয্যা আর পানপাত্রে

কত নীলাভ স্বচ্ছ গাউন গেল ডুবে, আর

উল্লোল আঁখির মতো অসমাপ্ত কবিতা

রাতের পরাগে কতটা সুঘ্রাণ ছড়ালে স্মৃতিহীনা

নদী উন্মোচিত করবে তার বক্ষের কল্লোল

আমার রাত্রির তৃষ্ণার্ত খাতায় এতো অক্ষর

এতো ছন্দ, এতো খেয়ালি তুলির চুম্বন

কিছুতে হচ্ছে না তোমর মতো করে-লিওনার্দো

হাজার পৃষ্ঠায় শুধু সমুদ্র ঢেউ

সাঁতার জানায় কী আসে যায়...

প্রকাশিত : ২৪ এপ্রিল ২০১৫

২৪/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: