মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

গোলটেবিল বৈঠকে পরামর্শ স্থানীয় সরকার নির্বাচন রাজনৈতিকভাবে হওয়া উচিত

প্রকাশিত : ২৪ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ প্রচলিত সরকার ব্যবস্থার বিপরীতে নগরের জন্য আলাদা ‘নগর সরকার’ ব্যবস্থার দাবি জানিয়েছে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন)। এদিকে নগর বিশেষজ্ঞরা স্থানীয় সরকার নির্বাচন দলীয়ভাবে করার প্রস্তাব তুলে ধরে বলেন, নির্বাচিত কাউন্সিলের সদস্যরা নগর পার্লামেন্টের সদস্য হিসেবে নগরের জন্য নীতি প্রণয়ন করবেন। নগরের সমস্যা নিয়ে আলোচনা করবেন। একই সঙ্গে নগর নির্বাহী পরিষদকে জবাবদিহিতার মধ্যে রাখবেন। মেয়রের নির্বাচনী এলাকায় কোন সংসদ সদস্য নির্বাচিত হবে না। নগরীর সব সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান নগর পুলিশের (মেট্রোপলিটন পুলিশ) মাধ্যমে নগরীর শান্তিশৃঙ্খলা রক্ষা করবে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে সুজন আয়োজিত ‘নগর সরকারই সামাধান’ বিষয়ক গোলটেবিল বৈঠকে এ দাবি জানানো হয়। বৈঠকে সংগঠনের সদস্য মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। এতে নগর সরকারের রূপরেখা তুলে ধরে জাহাঙ্গীর বলেন, নগর সরকার হবে একটি পৃথক প্রশাসনিক কাঠামো। নগর সংসদ, নগর প্রশাসন ও নগর আদালত মিলে নগর সরকার গঠিত হবে। মেয়র হবেন এই সরকারের প্রধান। কাউন্সিলররা নগর সংসদের সদস্য হবেন। অর্থাৎ কেন্দ্রে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে একটি মন্ত্রিসভা যেমন রাষ্ট্র পরিচালনা করে, তেমনি মেয়রের নেতৃত্বে একটি নগর নির্বাহী পরিষদ নগরের শাসন পরিচালনা করবে। সিটি কর্পোরেশনগুলোর নির্বাচন পদ্ধতিকে ‘ত্রুটিপূর্ণ’ উল্লেখ করে জাহাঙ্গীর বলেন, এখন মেয়র নির্বাচিত হন ভোটারদের প্রত্যক্ষ ভোটে। বৃহত্তর ঢাকা শহরেই আটজন সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। আর দু’জন মেয়রকে নির্বাচিত হতে হয় আটজন সংসদ সদস্যের নির্বাচনী এলাকায়।

মেয়র প্রার্থীর পক্ষে এটা খুবই ব্যয়বহুল, পরিশ্রম ও শ্রমসাপেক্ষ কাজ। মেয়র তাঁর কাজে যোগ্যতার প্রমাণ দিতে না পারলে বা ব্যাপকভাবে দুর্নীতি করলেও তাঁকে পদ থেকে সরানোর কোন সুযোগ নেই। কারণ তিনি পাঁচ বছরের জন্য নির্বাচিত হন।

প্রকাশিত : ২৪ এপ্রিল ২০১৫

২৪/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: