আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ভোটের প্রচারে আর মাঠে নামেননি খালেদা

প্রকাশিত : ২৪ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আসন্ন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীদের পক্ষে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় টানা ৫দিন ভোট চাওয়ার পর বৃহস্পতিবার আর মাঠে নামেননি বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। জানা যায়, নির্বাচনী প্রচারকালে পর পর ৩ দিনের হামলায় খালেদা জিয়ার নিজের গাড়িসহ তার গাড়িবহরের কয়েকটি গাড়ি ভাংচুর হওয়া ও নির্বাচন কমিশনের হুঁশিয়ারির কারণে তিনি বৃহস্পতিবার মাঠে নামেননি। তবে যে কোন দিন তিনি আবার দলীয় প্রার্থীদের পক্ষে মাঠে নামতে পারেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। এ ব্যাপারে বিএনপি চেয়ারপার্সনের প্রেস উইংয়ের কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান সাংবাদিকদের জানান, ৩ দিনের হামলার ঘটনায় খালেদা জিয়ার গাড়িসহ নয়টি গাড়ি ভাংচুর করা হয়েছে। এর মধ্যে খালেদা জিয়ার নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত ‘সিএসএফ’ সদস্যদের জন্য ব্যবহৃত গাড়িও রয়েছে। গাড়িগুলো মেরামতের জন্য ওয়ার্কশপে দেয়ায় বৃহস্পতিবার খালেদা জিয়া নির্বাচনী প্রচারে নামতে পারেননি। তিনি বলেন, ৩ দিনের হামলার ঘটনায় ‘সিএসএফ’ সদস্যসহ আহত ১১ জন বর্তমানে ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

উল্লেখ্য, শনিবার থেকে মাঠে নেমে ভোটারদের হাতে হাতে লিফলেট বিতরণ করে সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর পক্ষে ভোট চাওয়া শুরু করেন বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। প্রথমদিন গুলশান, বাড্ডা, বনানী, মহাখালী ও হাতিরঝিল এলাকায় দলীয় প্রার্থীর জন্য ভোট প্রার্থনা করেন। তবে দ্বিতীয় দিন রবিবার উত্তরা এলাকায় ভোট প্রার্থনা করতে গিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের তোপের মুখে পড়েন খালেদা জিয়া। উত্তরার বিভিন্ন স্পটে নির্বাচনী প্রচার চালানোর সময় খালেদা জিয়াকে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা কালো পতাকা প্রদর্শন করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। পরে তিনি বিমানবন্দর, খিলক্ষেত ও যমুনা ফিউচার পার্ক হয়ে বাড্ডা এলাকায় সুবাস্তু নজরভ্যালী শপিংমলের সামনে গিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলে বাসায় ফিরে যান। তৃতীয় দিন সোমবার কাওরানবাজার এলাকায় তার গাড়ি বহরে হামলা চালানো হলেও পরে তিনি মালিবাগ, রামপুরা ও বাড্ডা এলাকায় ভোট প্রার্থনা করেন। এদিন তার গাড়ি বহরের কটি গাড়ি ভাংচুর করা হয়। এ সময় খালেদা জিয়ার নিরাপত্তায় নিয়োজিত ‘সিএসএফ’ এর ২জন সদস্যসহ কয়েকজন আহত হয়। এ ঘটনায় বিএনপি ও আওয়ামী লীগ পাল্টাপাল্টি মামলা করে। মঙ্গলবার চতুর্থদিনের মতো খালেদা জিয়া শাহজাহানপুর, মালিবাগ শান্তিনগর, নয়াপল্টন ও ফকিরাপুল এলাকায় দলীয় প্রার্থীর পক্ষে ভোট চান। তবে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টায় ফকিরাপুল কাঁচাবাজার এলাকায় খালেদা জিয়ার গাড়ি বহরে হামলা হয়। এ সময় হামলাকারীরা তার গাড়ি বহরে ইট-পাটকেল ও জুতা নিক্ষেপের পাশাপাশি খালেদা জিয়াকে কালো পতাকা প্রদর্শন করেন। আর সর্বশেষ বুধবার বিকেলে বাংলামোটর মোড়ে খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে হামলার ঘটনায় তার নিজের গাড়িসহ কয়েকটি গাড়ি ভাংচুর করা হয়। এ ঘটনায় উভয়পক্ষের ১০ জন আহত হয়। এ ঘটনার পর খালেদা জিয়া নয়াপল্টন বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গিয়ে কয়েক ঘণ্টা অবস্থান করেন। এ সময় তিনি দলের সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন। পরে দলের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলন করে হামলার ঘটনার নিন্দা জানানো হয়। এর পর হামলার ঘটনায় মামলার জন্য একটি ড্রাফট তৈরি করা হলে তা দেখে রাত সাড়ে ৯টায় বিএনপি কার্যালয় থেকে বেরিয়ে তিনি গুলশানের বাসায় ফিরে যান।

আজ স্বেচ্ছাসেবক দল ও কাল বিক্ষোভ মিছিল করার ঘোষণা দিয়েছে ছাত্রদল ॥ বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে হামলার প্রতিবাদে আজ শুক্রবার স্বেচ্ছাসেবক দল ও কাল শনিবার ছাত্রদল সারাদেশের সকল জেলা, উপজেলা ও মহানগরের থানায় থানায় বিক্ষোভ মিছিল করার ঘোষণা দিয়েছে। বৃহস্পতিবার পৃথক পৃথক এক বিবৃতিতে সংগঠন দুটির পক্ষ থেকে এ কর্মসূচী পালনের ঘোষণা দেয়া হয়।

প্রকাশিত : ২৪ এপ্রিল ২০১৫

২৪/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: