রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

চীন যখন একঘরে তখন পাশে ছিল পাকিস্তান

প্রকাশিত : ২২ এপ্রিল ২০১৫
  • ইসলামাবাদ পার্লামেন্টের যৌথ অধিবেশনে শি জিনপিং

চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিন পিং মঙ্গলবার পাকিস্তানের পার্লামেন্টের যৌথ অধিবেশনে দেয়া এক ঐতিহাসিক ভাষণে দু’দেশের দীর্ঘস্থায়ী সম্পর্ককে স্বাগত জানান। তিনি বলেন, যখন চীন বিশ্বে একঘরে হয়ে রয়েছিল, তখন পাকিস্তান চীনের পাশে ছিল। খবর ডন ও এক্সপ্রেস ট্রিবিউনের।

জিন পিং তার ভাষণের শুরুতে চীনের ১৩০ কোটি মানুষের পক্ষ থেকে পাকিস্তানের ভ্রাতৃপ্রতিম জনগণের প্রতি উষ্ণ অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানান। তিনি বলেন, বেজিং ও ইসলামাবাদ একে অপরের প্রতি বিরাটভাবে সহায়ক হয়েছে। উভয় দেশই প্রয়োজনের সময় একে অপরের পাশে দাঁড়িয়েছে। এর আগে সোমবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ বলেছেন, চীনের নিরাপত্তা আমাদের কাছে পাকিস্তানের নিরাপত্তার মতোই গুরুত্বপূর্ণ বলে আমি চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিন পিংকে আশ্বাস দিয়েছি। তিনি বলেন, আমরা সন্ত্রাসবাদ দমনের জন্য সহযোগিতা করে যাওয়ার সংকল্প ব্যক্ত করেছি।

তিনি সোমবার ইসলাবাদের মিডিয়া ও শীর্ষ কূটনীতিকদের উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছিলেন। নওয়াজ শরীফ জানান, দুটি দেশ আঞ্চলিক ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে এবং এ বিষয়ে ৫১টি চুক্তি সই করেছে।

এর মধ্যে ৩ হাজার কিলোমিটার দৈর্ঘ্যরে চীন-পাকিস্তান ইকোনমিক বা অর্থনৈতিক করিডর (সিপিইসি) গঠন করা নিয়েও চুক্তি হয়েছে। ভারতের আপত্তি উপেক্ষা করে পাক-অধিকৃত কাশ্মীরের মধ্যে দিয়ে অর্থনৈতিক করিডর তৈরি করতে পাকিস্তানের সঙ্গে চার হাজার ৬০০ কোটি ডলারের চুক্তি স্বাক্ষর করেছে চীন। স্ট্র্যাটেজিক করিডরের ওপর ভিত্তি করেই ৫১টির মধ্যে ৩০টি চুক্তি দু’দেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত হয়েছে।

প্রকাশিত : ২২ এপ্রিল ২০১৫

২২/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: