রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

‘আজহারকে সময় দিতে হবে’

প্রকাশিত : ২২ এপ্রিল ২০১৫
  • পাকিস্তান ওয়ানডে দল ও নতুন অধিনায়ক নিয়ে মন্তব্য দুই তারকা আফ্রিদি-মিসবাহর

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাঘের ডেরায় পড়া হরিণের যে অবস্থা হয়, সফরকারী পাকিস্তানের এখন সেই অবস্থা। প্রথমে ১৬ বছর পর বাংলাদেশের কাছে ওয়ানডে হার, এরপর এক ম্যাচ হাতে রেখে সিরিজ খোয়ানো- পাকিস্তানজুড়ে চলছে মাতম। দেশটির মিডিয়া থেকে শুরু করে সাবেক গ্রেটরা কচুকাটা করে চলেছে কোচ ওয়াকার ইউনুস, বর্তমান কমিটি, এমনকি তরুণ অধিনায়ক আজহার আলিকেও। অবস্থা দেখে মুখ বুজে থাকতে পারেননি শহীদ আফ্রিদি ও মিসবাহ-উল হক। টি২০ ও টেস্ট অধিনায়ক দুই তারকাই ওয়ানডেতে আজহারকে সময় দেয়ার পক্ষে। পাশাপাশি পঞ্চাশ ওভারে ফেরার কোন ইচ্ছা নেই বলে পরিষ্কার করেছেন আফ্রিদি।

আজ তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে খেলতে নামছে সফরকারীরা। হোয়াইটওয়াশ ঠেকাতে যেটিতে জিততেই হবে আজহারদের। একমাত্র টি২০টি শুক্রবার। সোমবারই ঢাকায় এসে পৌঁছেছেন আফ্রিদি-আহমেদ শেহজাদরা। ‘আমার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত। অবসর ভেঙ্গে ওয়ানডেতে ফিরছি না।’ বলেন আফ্রিদি। অগণিত ভক্ত চান দলের কঠিন সময়ে নেতৃত্ব নিয়েই ওয়ানডেতে ফিরে আসুন বড় তারকা। কিন্তু অনড় আফ্রিদি বরং সামনের দিকে তাকাতে চাইছেন, ‘আমাদের বুঝতে হবে যে এখন যারা খেলছে তারা নতুন। মাঠের সঙ্গে, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সঙ্গে খাপ খাওয়াতে কিছুটা সময় লাগবে। বেচারা আজহার ভাল মানুষ, কঠিন সময়টায় আমাদের ওপর পাশে থাকা উচিত, ওকেও সময় দিতে হবে।’ বলেন আধুনিক ক্রিকেটের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার।

অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে হয়ে যাওয়া বিশ্বকাপেই ওয়ানডে থেকে আনুষ্ঠানিক বিদায় নেন আফ্রিদি-মিসবাহ। তবে অধিনায়ক হিসেবেই আফ্রিদি টি২০ চালিয়ে যাবেন ২০১৬ বিশ্বকাপ পর্যন্ত। শৃঙ্খলা প্রশ্নে ওয়ানডে থেকে বাদ পড়েন আরও দুই গুরুত্বপূর্ণ পারফর্মার আহমেদ শেহজাদ ও উমর আকমল, ফর্মহীনতা ছিটকে দেয় অভিজ্ঞ ইউনুস খানকে। দীর্ঘ প্রায় আড়াই বছর পর দলে ফেরা তরুণ আজহারের হাতে দেয়া হয় ওয়ানডের নেতৃত্ব। একঝাঁক প্রতিষ্ঠিত পারফর্মারের স্থলে সুযোগ পান নবীন সব ক্রিকেটার। আজহারদের সময় দিতে হবে বলে মনে করছেন মিসবাহও। টেস্ট অধিনায়ক বলেন, ‘আজহারের নেতৃত্বাধীন পুরো দলটা একেবারেই নতুন। ওরা আমাদের কাছ থেকে কিছু সময় প্রত্যাশা করে। আজহার মাত্র দায়িত্ব নিল। অবশ্যই সময় দিতে হবে। অভিজ্ঞতা থেকে বলব, অধিনায়কত্ব নিয়েই একটা দলকে বদলে দেয়া যায় না। পারিপার্শ্বিকতা বলে একটা কথা আছে।’ পাশাপাশি বাংলাদেশেরও প্রশংসা করেন পাকিস্তানী তারকা। মিসবাহ বলেন, ‘বাংলাদেশ ক্রিকেটে অনেক উন্নতি করেছে, এটা তারই প্রমাণ। ঘরের মাটিতে ওরা ভয়ঙ্কর। টেস্টে ফল পেতে আমাদের অবশ্যই সেরাটা দিতে হবে।’ টেস্ট, ওয়ানডে, টি২০Ñতিন ভার্সনেই পাকিস্তানের সেরা বোলার সাঈদ আজমল। কিন্তু নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা স্পিনার দুটি ওয়ানডেতেই ছিলেন নিজের ছায়া হয়ে। বাস্তববাদী মিসবাহ স্বীকার করেছেন, ‘এতটা ধকল কাটিয়ে আগের আজমলকে সহসা ফিরে পাবে না দল। দীর্ঘ বিরতির পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সফল হওয়া কঠিন। এ্যাকশন সংশোধনে ওর মনের ওপর বাড়তি চাপ তৈরি হয়েছে। সব মিলিয়ে সময়টা ভাল নয়।’

টানা দুই হারে সিরিজ খোয়ানোর পর হতাশ আজহার নিজেও সময় চেয়েছেন। ‘সবাই তরুণ। আমাদের ৪-৫ বছর সময় লাগবে। আশা করি ততদিনে একটা ভাল দল হিসেবে তৈরি হয়ে উঠতে পারব।’ বলেন ওয়ানডে অধিনায়ক। দুই বছরের ওপরে ওয়ানডে দলেই ছিল না, সেই আজহারকে অধিনায়ক করায় পাকিস্তানে সমালোচনা কম হয়নি। তবে ঠা-া মাথায় মিসবাহর সঙ্গে মিল এবং বোর্ড ও খেলোয়াড়দের সঙ্গে ভাল সম্পর্কই তাঁকে সুযোগটা করে দেয়। ৩০ বছর বয়সী ‘কুল’ আজহারকে ভীষণ পছন্দ বিদায়ী অধিনায়ক মিসবাহ ও বর্তমান কোচ ওয়াকার ইউনুসের। তাঁকে ‘নিরাপদ’ ভাবছেন দুজনেই। মিসবাহর খেলার সঙ্গেও আজহারের রয়েছে অনেক মিল। ঘরোয়া ক্রিকেটে আজহারের নেতৃত্বে তার দল ৩৪ ম্যাচ খেলে পায় ১৬ জয়, যা পাকিস্তানের ঘরোয়া ক্রিকেটের রেকর্ড। ‘বিরাট দায়িত্ব, আশা করি সকল খেলোয়াড় আমাকে সহায়তা করবে।’ দায়িত্ব পাওয়ার পর বলেছিলেন আজহার।

প্রকাশিত : ২২ এপ্রিল ২০১৫

২২/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: