রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৬.১ °C
 
২১ জানুয়ারী ২০১৭, ৮ মাঘ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

জুনে আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাংলাদেশ-ভারত বইমেলা

প্রকাশিত : ২২ এপ্রিল ২০১৫
জুনে আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাংলাদেশ-ভারত বইমেলা
  • সংস্কৃতি সংবাদ

স্টাফ রিপোর্র্টার ॥ আগামী জুন মাসে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারত বইমেলা। জুনের প্রথম সপ্তাহে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এ মেলা অনুষ্ঠিত হবে। মেলায় বাংলাদেশ ও ভারতের উল্লেখযোগ্যসংখ্যক প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করবে।

মঙ্গলবার সকালে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেনÑ সংস্কৃতি সচিব ড. রণজিৎ কুমার বিশ্বাস, বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান, গণগ্রন্থাগার অধিদফতরের মহাপিরচালক মোঃ হাফিজুর রহমান, জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের পরিচালক অসীম সাহা, জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশনা সমিতির সভাপতি ওসমান গনি প্রমুখ।

আসন্ন বইমেলার তাৎপর্য তুলে ধরে আসাদুজ্জামান নূর বলেন, ভারত বাংলাদেশের অকৃত্রিম ও পরীক্ষিত বন্ধুরাষ্ট্র। ব্যবসা-বাণিজ্য, শিক্ষা-সংস্কৃতিসহ বিভিন্ন বিষয়ে দুই দেশ একে অপরের সঙ্গে অত্যন্ত আন্তরিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। জুনে অনুষ্ঠেয় এ বইমেলা দেশ দুটির মধ্যে সংস্কৃতি বিনময়ের ক্ষেত্রকে আরও বিস্তৃত করবে এবং এ প্রক্রিয়ায় বিদ্যমান বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক সুদৃঢ় হবে।

সংস্কৃতিমন্ত্রী বলেন, বই জ্ঞানের বাহন। একটি সৃজনশীল ও জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মাণে বইয়ের ভূমিকা অপরিসীম। এ লক্ষ্যে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় এবং এর অঙ্গপ্রতিষ্ঠানসমূহ বিভিন্ন প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের সহযোগিতায় বইমেলা আয়োজনসহ নানবিধ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে এ বছর রংপুর, বরিশাল ও কুমিল্লা বিভাগীয় বইমেলার আয়োজন করা হয়েছে। ২৫ এপ্রিল যশোরে খুলনা বিভাগীয় বইমেলার আয়োজন করা হচ্ছে। এই ধারাবাহিকতায় অন্যান্য বিভাগীয় শহর ও গুরুত্বপূর্ণ জেলা শহরেও বইমেলার আয়োজন করা হবে। বইমেলাগুলোতে স্থানীয় প্রকাশনা সংস্থার পাশাপাশি ঢাকা থেকে স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানগুলো অংশ নেয়ায় তা খুব সফল হয়েছে বলে মন্ত্রী মন্তব্য করেন।

বাংলাদেশ-ভারত বইমেলার সফল আয়োজনের লক্ষ্যে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খানকে আহ্বায়ক ও জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের সচিব অসীম কুমার দেকে সদস্য সচিব করে ১০ সদস্যবিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ্যামেরিটাস অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামানকে কমিটির উপদেষ্টা করা হয়েছে।

আঁলিয়সে দুই দিনের ফরাসী চলচ্চিত্র প্রদর্শনী

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ফিল্ম সোসাইটি ও রেনোয়া ফিল্ম ক্লাবের যৌথ আয়োজনে ধানম-ির আঁলিয়স ফ্রঁসেজে শুরু হলো দুই দিনের ফরাসী চলচিত্র প্রদর্শনী। মঙ্গলবার বিকেলে আঁলিয়সের মিলনায়তনে সবার জন্য উন্মুক্ত এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন হয়।

প্রথম দিন মঙ্গলবার দেখানো হয় দুটি ছবি। বিকেল চারটায় প্রদর্শিত হয় দ্য লাস্ট মাস্টেরো শীর্ষক চলচ্চিত্র। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়ে নাৎসিদের দখলে থাকা প্যারিসের থিয়েটার নিয়ে ছবিটির কাহিনী আবর্তিত হয়েছে। যুদ্ধ চলাকালীন এক ইহুদী নাট্য নির্মাতার থিয়েটারের বেইজমেন্টে লুকিয়ে থাকা তাঁর অভিনেত্রী সহধর্মিণীর ভালবাসা ও দেশপ্রেম হচ্ছে এই চলচ্চিত্রের মূল উপজীব্য। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় দেখানো হয় ফোর হানড্রেড ব্লোজ ছবিটি। এ্যান্তনি ডোনিয়েল নামের ১৩ বছর বয়সী এক ফ্রেঞ্চ বালকের দুঃসাহসিক অভিযানের কাহিনী উঠে এসেছে চলচ্চিত্রটিতে। বলা হয়, চরিত্রটি চলচ্চিত্রটির পরিচালক ফ্রানকোইস ট্রুফাউটের জীবন থেকে অনুপ্রাণিত।

আজ বুধবার প্রদর্শনীর দ্বিতীয় দিন। এদিন বিকেল চারটায় দেখানো হবে দ্য রেড বেলুন শীর্ষক চলচ্চিত্র। একটি লাল বেলুন এবং এর পেছনে ছুটে চলা এক বালকের গল্প নিয়ে এগিয়ে গেছে চলচ্চিত্রটির কাহিনী। বালকের যাত্রার ভেতর দিয়ে প্রতিফলিত হয়েছে প্যারিসের জীবনধারা। ৩৪ মিনিটের এই চলচ্চিত্রটি সম্ভবত সর্বকালের সবচেয়ে বেশি প্রশংসিত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র।

কারুশিল্পের সহযোগিতায় ভারত যাচ্ছেন বিবি রাসেল ॥ ভারতের রাজস্থান সরকারের আমন্ত্রণে ভারতে যাচ্ছেন স্বনামধন্য ফ্যাশন ডিজাইনার বিবি রাসেল। রাজস্থান খাদি ও গ্রাম উদ্যোগ বোর্ড তাঁকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে। মঙ্গলবার ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশন এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, বিবি রাসেলের এই সফরের লক্ষ্য রাজস্থানের কারুশিল্প ও কারুশিল্পীদের সহযোগিতা করা। আগামী ২৬ এপ্রিল রাজস্থান খাদি ও গ্রাম শিল্প বোর্ড জয়পুরে একটি অনুষ্ঠান আয়োজন করেছে। এখানে বিবি রাসেলের সৃষ্ট কারুশিল্পও উপস্থাপিত হবে। এখানে প্রধান অতিথি থাকবেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা রাজে।

রাজস্থানের কারুশিল্পের ঐতিহ্য সংরক্ষণ, নতুনত্ব আনা ও যথাযোগ্য জীবনযাত্রা কিভাবে বজায় রাখা যায়, সেসব বিষয়ে সহায়তা প্রদান করবেন বিবি রাসেল। রাজস্থানী টেক্সটাইলের ঐতিহ্য সম্পর্কে আধুনিক ও আন্তর্জাতিক আবেদন তৈরির লক্ষ্যে রাজস্থান সরকারের নেয়া একটি প্রকল্পের অংশ হিসেবে তাঁর এই সফর। বিবির সফরে সেখানকার কারুশিল্পী, তাঁতশিল্পী, কাপড় পরিষ্কারক ও ছাপশিল্পী সমাজের উন্নয়ন ঘটাবে বলে আশা করছে রাজস্থান সরকার।

লোক নাট্যদলের দুই নাটকের প্রদর্শনী ॥ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালায় মঞ্চস্থ হলো লোক নাট্যদলের (সিদ্ধেশ্বরী) দুই নাটক। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের কাহিনী নিয়ে নির্মিত হয়েছে প্রযোজনা দুটি। সন্ধ্যা ৭টায় মঞ্চস্থ হয় ফরহাদ জামান পলাশ নির্দেশিত কাজী নজরুল ইসলামের ‘শিল্পী’। রাত পৌনে ৮টায় লিয়াকত আলী লাকী নির্দেশিত রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘রথযাত্রা’ নাটকটির প্রদর্শনী হয়।

প্রকাশিত : ২২ এপ্রিল ২০১৫

২২/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: