মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ফেসবুক ॥ এক সুতোয় বিশ্ব

প্রকাশিত : ২১ এপ্রিল ২০১৫
  • সারমিন সুলতানা মীম

মার্ক জুকারবার্গ মনে হয় জানতেন না, তাঁর সহজ এক মাধ্যম হয়ে যাবে আজকের অন্যতম জনপ্রিয় সামাজিক মাধ্যম- ফেসবুক। তাঁর অতি সহজ সাবলীল চিন্তাধারা আর দৃষ্টিভঙ্গি পাল্টে দেবে বিশ্বের চিরচেনা মুখ। সহজ করে দেবে পরস্পরের সঙ্গে সম্পর্ক। এক সুতোয় বেঁধে দেবে সারাবিশ্বের মানুষকে। বর্তমান তরুণ প্রজন্ম প্রযুক্তির যে বিষয় নিয়ে সবচেয়ে বেশি উদ্বেলিত তা হলো ফেসবুক। এমন সামাজিক মাধ্যম ছাড়া একটি দিন পার করার তরুণদের জন্য সত্যিই দুরূহ। ফেসবুকের মাধ্যমে বর্তমানের তরুণরা পড়াশুনা, ক্যারিয়ার, বিনোদন, রাজনীতি, উদ্ভাবন সব ক্ষেত্রেই নিজেদের গন্ডি বিস্তৃত করছে। বিশ্বের দ্বারগোড়ায় নিজেদের উপস্থাপন করতে বর্তমান প্রজন্মের খুব বেশি বেগ পেতে হয় না। ফেসবুক... যার কাজ তরুণের তারুণ্যকে কাজে লাগানো। আর তরুণ দল... যাদের কাজ নিজেদের পরিচিতি মেলে ধরা।

পর্যবেক্ষণ-১ ॥ জুনায়েদ আর শুভ বাল্যবেলার বন্ধু। উচ্চ মাধ্যমিকের গ-ি পেরোনের সঙ্গে সঙ্গে আর দেখা হয়নি পরস্পরের, কথা বা যোগাযোগ তো অনেক দূরের কথা। তারা দুজনেই বর্তমানে মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানির অফিসার। শুভ হঠাৎ ফেসবুকে দেখে ‘আমের রহস্য’ নামে একটি আইডি খোলা। শুভ জানত জুনায়েদ ফলের ব্যাপারে বেশ উৎসাহিত। ফল তার খুবই পছন্দ। একবার দেখা বলেই শুভ আইডিটাতে গিয়ে দেখে জুনায়েদের ছবি দেয়া। শুভর খুশিতে চোখে পানি চলে আসে। প্রাণ খুলে বন্ধুকে সব মনের কথা লিখতে শুরু করে। ফেসবুকের মাধ্যমেই তরুণ প্রজন্ম প্রমাণ করে কোন দূরত্বই আর দূর নয়। সবাই থাকবে কাছে প্রতীক্ষণ। হারাবে না কোন বন্ধু, ফুরিয়ে যাবে না কোন সম্পর্ক।

পর্যবেক্ষণ-২ ॥ ব্যস্ততা খুব বেশি আামদের জীবনে। খুব কাছের মানুষকেও দুই মিনিট সময় আমরা দিতে পারি না। ফেসবুক দুই মিনিট সময় দিতে না পারাকে পূরণ করে হাজার মিনিট দিয়ে। ইমরোজ আর ইমন দুই বন্ধু। এতই ভাল বন্ধু যে, একজন আরেকজনের সঙ্গে যোগাযোগ না করে থাকতেই পারে না। ইমনের ফোনটা হঠাৎ হারিয়ে যাওয়ার সিমটা পরিবর্তন করতে হয়। কিন্তু ফেসবুকের আইডিটা একই থাকে; যে কারণে হয়ত দিনের শেষে শত কাজের ফাঁকে যোগাযোগটা হয়েই যায়।

অপার বন্ধুত্ব ॥ বর্তমান তরুণ প্রজন্মের বন্ধুত্বপূর্ণ মনোভাব একটু বেশি। বন্ধু মানে একসঙ্গে পথচলা, বন্ধু মানে বলা আর না বলার কথা। ফেসবুকের মাধ্যমেই সকল তরুণ হয়েছে একজোট। ভেতরের বন্ধুত্বপূর্ণ মনোভাবটা বিকশিত করছে প্রতিমুহূর্তে। তরুণরা ফেসবুকে তৈরি করছে অপার বন্ধুত্বের সমাহার। যেখানে বন্ধুত্বের সমষ্টি বেশি, সেখানে তারুণ্যের শক্তি বেশি আর অপরাধ কম। ফেসবুক সারাবিশ্বের তরুণ দলকে এক সুতোয় বাঁধছে, তা বলার আর অপেক্ষা রাখে না।

আজকের তরুণ দল নেতৃত্বের কর্ণধার। তারা দেশশাসনে অংশ নেবে। দেশের ভালমন্দ নিয়ে ভাববে। এসব ক্ষেত্রে তাদের গুরুত্বপূর্ণ মতামত ছাড়া চলবে না। ফেসবুকের মাধ্যমেই তরুণরা দেশের সব ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় মতামত দিচ্ছে। তাদের ভাব প্রকাশ করছে। যেখানে বোঝা যাচ্ছে, কোনটি ভাল আর খারাপটাই কী? প্রতিমূহূর্তে তারা বিভিন্ন খবরের ওপর ভিত্তি করে মতামত প্রদান করে তাদের পেজে। তাদের এই মতামত অবদান রাখে দেশের ভালমন্দের দিকে। তরুণ শক্তি দল ভেঙ্গে দেবে সব বাধা। মিত্র আছে মোদের মাঝে এক সুরে সবাই গাঁথা। দস্যুদল পেছন থেকে যতই কলকাঠি নাড়ুক না কেন তরুণদের শক্তির কাছে তারা পেরে উঠবে না। আজ আমরা সবাই যেন এক অঞ্চলে বাস করি। শত কর্মব্যস্ততার ফাঁকেও সবার সঙ্গে যোগাযোগ যেন হয়েই যায়।

আগের তরুণদের তুলনায় বর্তমান তরুণ প্রজন্ম শতগুণ এগিয়েছে তারা আজ আধুনিক সাহসী। তাদের সাহসকে গুরুত্ব দেয়, তাদের মেলে ধরতে সাহায্য করে ফেসবুক। সেই লক্ষ্যে ২০২১ সালের ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্নপূরণ করবে বর্তমান তরুণ প্রজন্ম। এই অভিব্যক্তি প্রকাশ করতে আজ আর কোন দ্বিধা নেই।

প্রকাশিত : ২১ এপ্রিল ২০১৫

২১/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: