মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

দুই মেয়র প্রার্থীর প্রচার কৌশল

প্রকাশিত : ২১ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনকে সামনে রেখে নগরীতে চলছে দিন-রাত প্রচার। গণসংযোগ, পথসভা ও মাইক প্রচারে এখন পুরোপুরি নির্বাচনী আমেজ। মেয়র, সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থীদের পোস্টার, ফেস্টুন ও ব্যানারে ছেয়ে গেছে অলিগলি। নির্ঘুম ব্যস্ততায় প্রার্থীদের কাটছে দিন-রাত। এ মুহূর্তে যেন দম ফেলার সময় নেই। কখনও হেঁটে আবার কখনও বা প্রধান সড়কে গাড়ি নিয়ে ছুটে চলেছেন তারা। কারণ সময় আর মাত্র পাঁচ দিন। আচরণবিধি অনুযায়ী আগামী ২৬ এপ্রিলের পর আর প্রচার চালানো যাবে না। ফলে নানা প্রতিশ্রুতি ও প্রচার কৌশলে চলছে ভোটারদের মন জয়ের চেষ্টা।

গণসংযোগকালে আ জ ম নাছির জলাবদ্ধতা নিরসনে ব্যর্থতার জন্য প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সাবেক মেয়র এম মনজুর আলমের সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, এ সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়েই বিগত নির্বাচনে তিনি মেয়র হয়েছিলেন। কিন্তু তিনি পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছেন। নাগরিক কমিটির প্রার্থী নগরীর উন্নয়নে সরকারীদল সমর্থিত প্রার্থীকে বিজয়ী করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, তিনি নির্বাচিত হলে সরকারের সহযোগিতায় বন্দরনগরীকে মেগাসিটিতে পরিণত করবেন। মেয়র নির্বাচিত হলে সিটি কর্পোরেশন থেকে কোন সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ করবেন না বলে উল্লেখ করেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আ জ ম নাছির উদ্দিন। গণসংযোগকালে নাগরিক কমিটির প্রার্থীর সঙ্গে ছিলেন সাবেক সংসদ সদস্য মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নুরুল ইসলাম বিএসসি, খোরশেদ আলম সুজন, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, নগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ, আওয়ামী লীগ নেতা মাহফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটন ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা। আ জ ম নাছিরের সঙ্গে কর্মী ও সমর্থকদের ব্যাপক উপস্থিতির কারণে সড়কে অনেকটা অবরুদ্ধ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

এদিকে, বিএনপি সমর্থিত চট্টগ্রাম উন্নয়ন আন্দোলনের প্রার্থী এম মনজুর আলম সোমবার গণসংযোগ চালান নগরীর চাক্তাই ও খাতুনগঞ্জ এলাকায়। চট্টগ্রাম তথা দেশের প্রসিদ্ধ এ বাণিজ্য পাড়ায় গণসংযোগকালে তিনি বন্দরনগরীকে ব্যবসাবান্ধব নগরীতে পরিণত করবেন প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। অতীত কর্মকা-ের প্রসঙ্গে মনজুর আলম বলেন, আমি মেয়রের দায়িত্ব থাকাকালে ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে যথাযথ চেষ্টা করেছি। সব সময় ব্যবসায়ীদের পাশে ছিলাম, থাকব। তিনি আগামী ২৮ এপ্রিলের সিটি নির্বাচনে তাকে কমলালেবু প্রতীকে ভোট দিয়ে পুনরায় মেয়র নির্বাচিত করে অসমাপ্ত কাজ শেষ করার সুযোগ দেয়ার অনুরোধ জানান।

প্রকাশিত : ২১ এপ্রিল ২০১৫

২১/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: