আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

এলাকাভিত্তিক উন্নয়ন কাজ বন্ধে ব্যবস্থা নিন ॥ ইসির প্রতি বিএনপি

প্রকাশিত : ২০ এপ্রিল ২০১৫
  • সিটি নির্বাচনের আগে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ সরকার ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে ১০৯ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগ, পদোন্নতি ও বদলি করে নির্বাচনী আইন ভঙ্গ করেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক। সিটি নির্বাচন কেন্দ্র করে উন্নয়নমূলক ও দোকান বরাদ্দের মতো কাজ করছে বলে অভিযোগ করেছে তারা। নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে রবিবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন দলটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপন। নির্বাচনের আগে নির্বাচনী এলাকায় উন্নয়ন কাজ বন্ধ করতে তিনি নির্বাচন কমিশনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

রিপন বলেন, সরকার ধরে নিয়েছে জনগণ তাদের ভোট দেবে না। তাই ২৮ এপ্রিলের নির্বাচনে তাদের ভরাডুবি হবে। নতুন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা দায়িত্ব নেবেন বুঝতে পেরেই ডিসিসির দলবাজ কর্মকর্তারা দুর্নীতি করতে এপ্রিল ফাইনালে ব্যস্ত। তিনি বলেন, নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর নির্বাচনী এলাকায় এ ধরনের কর্মকা- নিষিদ্ধ। তাই নির্বাচন কমিশন যদি এ অনিয়ম বন্ধ না করে তাহলে ভবিষ্যতে তাদের এবং দলবাজ প্রশাসকদের বিচার হবে। নির্বাচন কমিশন সরকারের তল্পিবাহক হিসেবে কাজ করছে। তাই তারা জেগে ঘুমিয়ে আছে বলে অভিযোগ করেন রিপন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী মির্জা আব্বাসের কয়েকজন কর্মী-সমর্থককে শনিবার মারধর করা হয়েছে অভিযোগ করে রিপন বলেন, তাদের কাছ থেকে প্রচার কাজে ব্যবহৃত মাইক কেড়ে নেয়া হয়েছে। এ ছাড়া সেগুনবাগিচায় পোস্টার লাগানোর সময় এক বিএনপি কর্মীকে পুলিশ আটক করে নিয়ে গেছে। এভাবে প্রচার কাজে বাধা দেয়া হচ্ছে। এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনে বিএনপি কোন অভিযোগ করেছে কি না জানতে চাইলে রিপন বলেন, বিএনপি সরাসরি নির্বাচন করছে না। তাই বিএনপি কোন অভিযোগও করবে না। এ অভিযোগগুলো প্রার্থীরা বা আদর্শ ঢাকা আন্দোলনের নেতারা নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ আকারে তুলে ধরবে। তবে ইতোমধ্যে কয়েকটি অভিযোগ তুলে ধরা হলেও কমিশন কোন ব্যবস্থা নেয়নি। তিনি ঢাকা মহানগর বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা-হামলার প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে তাদের এ অবস্থা থেকে মুক্তি দিয়ে নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেয়ার সুযোগ দিতে নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানান।

যৌন হয়রানির বিচার করতে না পারলে সরকারকে সরে যাওয়া উচিতÑ এমাজউদ্দীন ॥ বর্ষবরণ উৎসবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন বাস ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রী লাঞ্ছনার বিচার করতে না পারলে সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরে যাওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ও আদর্শ ঢাকা আন্দোলনের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দীন আহমদ। রবিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ আয়োজিত মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। এমাজউদ্দীন বলেন, সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে নারী ভোটাররা যাতে সুষ্ঠুভাবে ভোট দিতে যেতে না পারেন সেজন্য সরকার পরিকল্পিতভাবে এ রকম নির্যাতন করছে। আমরা এর নিন্দা জানাচ্ছি। কিছু নর্দমার কীটের জন্য আমরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে নষ্ট হতে দিতে পারি না।

প্রকাশিত : ২০ এপ্রিল ২০১৫

২০/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: