আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

গাড়ি ছিনতাই, গ্রেফতার ১ ॥ অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে ২ লাখ টাকা খোয়া

প্রকাশিত : ১৯ এপ্রিল ২০১৫, ১২:৫৯ এ. এম.
  • রেন্ট-এ কারের

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রেন্ট-এ কারের গাড়ি ভাড়া নিয়ে ছিনতাই চক্রের এক সদস্যকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। উদ্ধার হয়েছে একটি ছিনতাইকৃত মাইক্রোবাস ও ছিনতাইয়ে ব্যবহৃত একটি খেলনা পিস্তল। এছাড়া শনিবার সকালে ঢাকার গুলিস্তানে অজ্ঞান পার্টির কবলে পড়ে বরিশালের টিন ব্যবসায়ী বেলালের দুই লাখ টাকা খোয়া যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

গত ১৬ এপ্রিল নোয়াখালী জেলার সোনাইমুড়ি থেকে গাড়ি ছিনতাইকারী চক্রের সদস্য আব্বাসকে (২৬) গ্রেফতার করা হয়। তার কাছ থেকে উদ্ধার হয় একটি খেলনা পিস্তল ও ছিনতাইকৃত একটি মাইক্রোবাস। ডিবির দক্ষিণ বিভাগের উপকমিশনার কৃষ্ণপদ রায়ের তত্ত্বাবধায়নে সহকারী কমিশনার মেহেদী ইমরান সিদ্দিকীর নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালিত হয়।

গ্রেফতারকৃত আব্বাসের বরাত দিয়ে ডিবি পুলিশ জানায়, গত ২৫ মার্চ বিকেল তিনটার দিকে রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানাধীন শ্যামলী এলাকার একটি রেন্ট-এ কার থেকে যাত্রীবেশে উদ্ধারকৃত হাইয়াস মাইক্রোবাসটি ভাড়া নেয় ছিনতাইকারীরা। গাড়িটি লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ যাওয়ার উদ্দেশে রওনা হয়। আমিনবাজার থেকে আরও লোক উঠবে বলে চালককে জানানো হয়। আমিনবাজার থেকে যাত্রীবেশে থাকা ছিনতাইকারী চক্রের দুই সদস্য এবং রাত এগারোটার দিকে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থেকে আরও তিন জন গাড়িতে ওঠে।

এরপর ফাঁকা জায়গায় গেলে প্রাকৃতিক কর্মের কথা বলে চালককে গাড়ি থামাতে বলা হয়। গাড়ি থামামাত্র চালককে মারধর শুরু করা হয়। পরে চালককে হাত, পা, মুখ, চোখ গামছা দিয়ে বেঁধে সিটের নিচে ফেলে রাখে। কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানাধীন পদুয়া বাজারে পৌঁছলে ছিনতাইকারীরা চালককে চেতনানাশক ওষুধ দিয়ে অজ্ঞান করে রাস্তার পার্শে ফেলে দিয়ে গাড়িটি নিয়ে চম্পট দেয়। পরে স্থানীয়দের মাধ্যমে অচেতন চালক উদ্ধার হয়। ওই চালক রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার প্রেক্ষিতে অভিযান চালিয়ে গাড়িটি উদ্ধার করে ডিবি পুলিশ।

এদিকে শনিবার সকালে ঢাকার গুলিস্তানে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে বেলাল হোসেন (৩৫) নামে বরিশালের এক টিন ব্যবসায়ী দুই লাখ টাকা খুইয়েছেন। বেলা সাড়ে এগারোটার দিকে অজ্ঞান অবস্থায় ওই ব্যবসায়ীকে ফুলবাড়িয়া বিআরটিসি কাউন্টারের সামনে থেকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যালে ভর্তি করেন স্থানীয়রা। বেলালের ভাতিজা শিপলু মোল্লা হাসপাতালে সাংবাদিকদের জানান, বরিশালের গৌরনদীর সাকোকাঠি এলাকায় বেলাল টিনের ব্যবসা করেন। দুই লাখ টাকা নিয়ে রাজধানীর বংশালে টিন কিনতে যাচ্ছিলেন। তবে তিনি কিভাবে অজ্ঞান পার্টির কবলে পড়েছেন তা জানা যায়নি।

প্রকাশিত : ১৯ এপ্রিল ২০১৫, ১২:৫৯ এ. এম.

১৯/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: