মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

জুনে ঢাকায় বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ কিরগিজস্তান ও তাজিকিস্তান

প্রকাশিত : ১৯ এপ্রিল ২০১৫
  • ২১৮ ফিফা বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাইপর্ব
  • দুই প্রতিপক্ষকে গরমে কাবু করতে পছন্দমতো সময় বেছে নিল বাফুফে

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নিজেদের মাঠে খেলা হলে আবহাওয়া, দর্শক, মাঠ- সবকিছুর পুরোপুরি ফায়দা নিতে স্বাগতিক দেশগুলো সচেষ্ট থাকে। এটাই বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনের নিয়ম। সেটা যেকোন খেলার ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। ফুটবলও এর ব্যতিক্রম নয়। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) এ নিয়মের সুবিধা চায়।

২০১৮ সালে রাশিয়ায় অনুষ্ঠিতব্য ফিফা বিশ্বকাপ বাছাই এবং ২০১৯ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিতব্য এশিয়ান কাপের বাছাইপর্বের খেলা হবে একসঙ্গে। ফলে এর গ্রুপিং ড্র-ও হবে অভিন্ন। মালয়েশিয়ায় সেই গ্রুপিং ড্র (গ্রুপ ‘বি’) হয়েছে গত ১৪ এপ্রিল। তাতে কঠিন গ্রুপে পড়েছে বাংলাদেশ।

এশিয়ান কাপের বাছাইপর্বে বাংলাদেশের প্রথম খেলা আগামী ১১ জুন কিরগিজস্তানের বিরুদ্ধে। ১৬ জুন তাজিকিস্তানের বিরুদ্ধে খেলবে বাংলাদেশ। দুটি খেলার ভেন্যুই বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম। এ প্রসঙ্গে শনিবার বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ বলেন, ‘এই দুটি ম্যাচ শুরু হবে আমাদের পছন্দমতো। দুটি ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে বেলা ৩টায়।’ পছন্দমতো সময় বেছে নেয়ার কারণও জানান সোহাগ, ‘কিরগিজস্তান-তাজিকিস্তান শীতপ্রধান অঞ্চলের দুই দেশ। তারা গরমে খেলে অভ্যস্ত নয়। আর এই সুবিধাটাই কাজে লাগাতে চাই আমরা। তাই ৩টায় খেলার সময় নির্ধারণ করেছি। এ সংক্রান্ত চিঠিতে একটু আগেই (শনিবার) সই করে দেশ দুটির কাছে পাঠালাম।’

এই দুই ম্যাচের আগে বাংলাদেশ জাতীয় দল অন্তত দুটি প্রস্ততি ম্যাচ খেলবে বলে কয়েক দিন আগেই অভিমত ব্যক্ত করেছিলেন বাফুফে সভাপতি কাজী মোঃ সালাউদ্দিন। এক্ষেত্রে তাঁর পছন্দ ছিল উত্তর কোরিয়া ও সিরিয়া। ‘কোরিয়া-সিরিয়া আমাদের পরিকল্পনায় আছে, ইতোমধ্যেই আমরা আরও দুটি দেশের সঙ্গে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার ব্যাপারে ইতিবাচক আলোচনা করেছি। দেশ দুটি হচ্ছে আফগানিস্তান ও মিয়ানমার।’ সোহাগ আরও জানান, দেশ দুটি বাংলাদেশের সঙ্গে খেলতে রাজি হলেও তারা বাংলাদেশে এসে খেলবে, নাকি বাংলাদেশ দল ওদের দেশে গিয়ে খেলে আসবে- এটা এখনও চূড়ান্ত হয়নি। তবে ম্যাচ দুটি অনুষ্ঠিত হবে জুনের প্রথম সপ্তাহের মধ্যেই।’

যেহেতু ইন্দো-বাংলা বাংলাদেশ গেমস হচ্ছে না, তাই প্রিমিয়ার ফুটবল লীগ আগেভাগেই শেষ হয়ে যাবে। লীগ শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরু হয়ে যাবে। ক্যাম্প হবে সাভারের জিরানির বিকেএসপিতে।

সোহাগ জানান, ‘ইতোমধ্যেই বাংলাদেশের বাকি ম্যাচগুলোর সময়ও নির্ধারিত হয়ে গেছে। ৮ সেপ্টেম্বর বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে জর্দানের বিরুদ্ধে ম্যাচটি হবে সন্ধ্যা ৬টায়। এছাড়া ১৭ নবেম্বর একই ভেন্যুতে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচটি হবে সন্ধ্যা সাড়ে ৫টায়। সেপ্টেম্বর-নবেম্বরে শীতকাল থাকবে। ফলে প্রতিপক্ষ দলগুলোকে দুপুরে খেলালেও তাদের ওই আবহাওয়ায় কোন সমস্যা হবে না। তাই আমরা ম্যাচগুলো সন্ধ্যাতেই রেখেছি।’

২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপে খেলা ও এ বছর এশিয়ান কাপের চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া (ফিফা র‌্যাঙ্কিং ৬৩) আছে বাংলাদেশের (১৬৭) গ্রুপে। আরও আছে জর্দান (১০৩), তাজিকিস্তান (১৪৩) ও কিরগিজস্তান (১৫৩)। এশিয়ার ৪০ দল আট গ্রুপে ভাগ হয়ে জুন থেকে শুরু হতে যাওয়া এই বাছাইপর্বে খেলবে। খেলাগুলো হোম ও এ্যাওয়ে ভিত্তিতে হবে। আট গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ও সেরা চার রানার্সআপ ২০১৮ সালের রাশিয়া বিশ্বকাপের বাছাইয়ের এশিয়া অঞ্চলের পরের পর্বে উঠবে। আবার এই ১২ দল সরাসরি এশিয়া কাপের পরের আসরে সরাসরি খেলার ছাড়পত্র পাবে। ২০১৯ সালে আরব আমিরাতে বসবে এশিয়ান কাপের পরের আসর। ১১ জুন থেকে শুরু হবে এই বাছাই পর্বের খেলা। বাংলাদেশের ভাল সুযোগ আছে এশিয়ান কাপের মূলপর্বে খেলার। আর তাই তো চেনা আবহাওয়ায় পছন্দমতো সময় বেছে নিয়ে প্রতিপক্ষকে কাবু করার পরিকল্পনা এঁটেছে দেশীয় ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক এ সংস্থাটি। তাদের এই পরিকল্পনা কতটা সফল হবে- সেটাই এখন দেখার বিষয়।

প্রকাশিত : ১৯ এপ্রিল ২০১৫

১৯/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: