আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ইংল্যান্ডের জয় কেড়ে নিলেন হোল্ডার

প্রকাশিত : ১৯ এপ্রিল ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ প্রবাদ আছে ‘রতনে রতন চেনে।’ বিশ্বকাপের আগে আচমকাই জেসন হোল্ডারকে ওয়ানডে অধিনায়ক করেছিলেন প্রধান নির্বাচক ক্লাইভ লয়েড। অনেকেই তখন ভ্রু কুঁচকেছেন। দুরন্ত বোলিংয়ের পাশাপাশি ব্যাট হাতেও দারুণ পারফর্মেন্স, ‘আন্ডারডগ’ ক্যারিবীয়দের শেষ আটে তুলে নেন হোল্ডার। ‘লিডিং ফ্রম দ্য ফ্রন্ট’ বলতে যা বোঝায়। তাই বলে টেস্টেও এমন কীর্তি? এন্টিগা টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে আট নম্বরে নেমে অবিশ্বাস্য সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে (১০৩*) ইংল্যান্ডের নিশ্চিত জয় কেড়ে নিলেন ২৩ বছরের বার্বাডিয়ান! অমীমাংসিতভাবে শেষ হলো তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট। গ্রেনেডায় দ্বিতীয় টেস্ট ২১ এপ্রিল থেকে।

প্রথম ইনিংসে ৩৯৯ রানে অলআউট হওয়া সফরকারী ইংল্যান্ড ৭ উইকেটে ৩৩৩ রানে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে। জবাবে প্রথম ইনিংসে ২৯৫ রানে গুটিয়ে যাওয়া ক্যারিবীয়রা দ্বিতীয় ইনিংসে ৭ উইকেটে ৩৫০ রান করে ইংলিশদের মুখের গ্রাস কেড়ে নেয়। আট নম্বরে নেমে ১৪৯ বলে অপরাজিত ১০৩ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলে ও বল হাতে ৪ উইকেট (২+২) নিয়ে ম্যাচসেরা হোল্ডার। শততম টেস্টে ইংল্যান্ডের হয়ে রেকর্ড সর্বোচ্চ ৩৮৪ উইকেট নিয়েও জয়হীন থাকতে হয় জেমস এ্যান্ডারসনকে। এ পর্যন্ত দেখে নিষ্প্রাণ ড্র ভাবলে ভুল হবে। ৪৩৮ রানের বিশাল জয়ের লক্ষ্য নিয়ে নামা ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাল পঞ্চম দিনে প্রয়োজন ছিল ৩৪০ রান। ২ উইকেটে ৯৮ রান নিয়ে দিন শুরু করা স্বাগতিকরা ৭ উইকেটে ৩৫০ রান করলে সময় শেষ হয়।

অর্থাৎ সারাদিন ৯০ ওভারে আর ৫ উইকেট হারিয়ে ২৫২ রান যোগ করে দিনেশ রামদিনের দল। বড় অবদান অবশ্যই হোল্ডারের। পাশাপাশি অধিনায়ক রামদিনের ৫৭, ওপেনার ডেভন স্মিথের ৬৫ উল্লেখ্য। ১৯৩০ সালের পর চতুর্থ ইনিংসে এত বেশি ওভার (১২৯.৪) খেলল ক্যারিবীয়রা। ২০১২ সালে ড্যারেন সামির পর কোন ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ব্যাটসম্যানের আট নম্বরে নেমে সেঞ্চুরি হোল্ডারের। মূলত পেস বোলার হোল্ডারের চতুর্থ টেস্টে প্রথম সেঞ্চুরি এটি। তবে ম্যাচের চতুর্থ ইনিংসে আট নম্বরে নেমে সেঞ্চুরির এমন ঘটনা টেস্ট ইতিহাসে মাত্র চারটি। হোল্ডারের আগে যা করেছিলেন ইংল্যান্ডের ম্যাট প্রিয়র, নিউজিল্যান্ডের ড্যানিয়েল ভেট্টোরি ও ভারতের অজিত আগারকার।

২০১২ সালের পর নিজেদের মাটিতে জয়হীন ইংলিশরা। এ্যালিস্টার কুকদের প্রতীক্ষা আরও বাড়িয়ে দিল ক্যারিবীয়রা। তবে ড্র ম্যাচে সফরকারীদের প্রাপ্তি এ্যান্ডারসনের অর্জন। প্রথম ইনিংসে ইয়ান বেল (১৪৩) ও দ্বিতীয় ইনিংসে গ্যারি ব্যালান্সের সেঞ্চুরি (১২২)। উইন্ডিজের প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি পেয়েছেন জার্মেইন ব্ল্যাকউড (১১২*)।

স্কোর কার্ড

ইল্যান্ড প্রথম ইনিংস ৩৯৯/১০ (১১০.৪ ওভার; বেল ১৪৩, রুট ৮৩, স্টোকস ৭৯, জর্ডান ২১*, এ্যান্ডারসন ২০; রোচ ৪/৯৪, টেইলর ৩/৯০, হোল্ডার ২/৬৯, স্যামুয়েলস ১/৫১) ও দ্বিতীয় ইনিংস ৩৩৩/৭ ডিক্লে : (৮৬ ওভার; ব্যালান্স ১২২, রুট ৫৯, বাটলার ৫৯*; টেইলর ২/৪২, সুলায়মান ২/১১৫)

ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম ইনিংস ২৯৫/১০ (১১২ ওভার; ব্ল্যাকউড ১১২*, চন্দরপল ৪৬, ব্রেথওয়েট ৩৯, স্যামুয়েলস ৩৩; ট্রেডওয়েল ৪/৪৭, এ্যান্ডারসন ২/৬৭, ব্রড ২/৬৭) ও দ্বিতীয় ইনিংস ৩৫০/৭ (১২৯.৪ ওভার; হোল্ডার ১০৩*, স্মিথ ৬৫, রামদিন ৫৭; এ্যান্ডারসন ২/৭২, রুট ২/২২)

ফল ॥ ড্র

ম্যাচসেরা ॥ হোল্ডার (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)

প্রকাশিত : ১৯ এপ্রিল ২০১৫

১৯/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: