আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ভোট কেন্দ্রের সকল বুথে সিসি ক্যামেরা বসানোর দাবি খন্দকার মাহবুবের

প্রকাশিত : ১৯ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে সেনা মোতায়েন ও সকল বুথে সিসি ক্যামেরা বসানোর দাবি জানিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও সুপ্রীমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব উদ্দিন। একইসঙ্গে তিনি নিরপেক্ষভাবে দায়িত্ব পালন করার জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানান।

শনিবার বিকেলে চট্টগ্রামের একটি কমিউনিটি সেন্টারে পেশাজীবীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় খন্দকার মাহবুব উপরোক্ত দাবি জানান। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সতর্ক করে দিয়ে বলেন, আপনারা জনগণের ট্যাক্সের টাকায় কাজ করেন। দেশের ইতিহাস দেখুন, কোন সরকার চিরস্থায়ী নয়। কিন্তু আপনারা থাকবেন। তাই পেশাগত দায়িত্ব সততার সঙ্গে পালন করুন। তিনি আরও বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষ ভোট কেন্দ্র গিয়ে মান-ইজ্জত নিয়ে ফিরতে পারবেন কিনা সে জন্য আতঙ্কগ্রস্ত। সেনাবাহিনী থাকলে জনগণ সাহস পায়। ভোট কেন্দ্রের ভেতরে কি হচ্ছে তা যেন পর্যবেক্ষণ করা যায় সেজন্য প্রতিটি বুথে সিসি ক্যামেরা স্থাপনের দাবি জানান তিনি। ‘

সোনার ছেলেরা’ যেন বাক্সে ব্যালট ঢুকাতে না পারে তা দেখতে সিসিটিভি প্রয়োজন। সরকার বিরোধীদলের আন্দোলন বানচাল করতে ‘চমক দেখানো’র মতো তিন সিটিতে নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছেন বলেও তিনি মন্তব্য করেন। হরতাল অবরোধ সফল হয়েছিল দাবি করে তিনি বলেন, জনগণ আমাদের সঙ্গে আছে তা ভোটের মাধ্যমে প্রমাণ হবে।

চট্টগ্রামের পেশাজীবীদের সঙ্গে এ মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের আহ্বায়ক রুহুল আমীন গাজী, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের একাংশের সভাপতি শওকত মাহমুদ ও সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ। উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম আকবর খন্দকার, নগর বিএনপির সভাপতি আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, সাবেক প্রতিমন্ত্রী মীর মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন, সাবেক হুইপ সৈয়দ ওয়াহিদুল আলম ও বিএনপির নেতৃবৃন্দ।

পেশাজীবী নেতৃবৃন্দ বলেন, নির্বাচনের তফসিল ঘোষিত হওয়ার আগে থেকেই সরকারী দল আচরণ বিধি লঙ্ঘন করে চলেছে। প্রধানমন্ত্রী নিজেই গণভবন থেকে ঢাকার মেয়র প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছেন। এছাড়া চট্টগ্রামের নেতাদের ডেকে নিয়ে ঘোষণা করেছেন চট্টগ্রামের মেয়র প্রার্থী। তারা বলেন, বিএনপির সমর্থিত প্রার্থীদের প্রচার চালাতে দেয়া হচ্ছে না। ভোটারদের উৎসাহিত করতে কমিশন থেকে কোন প্রচারও চালানো হচ্ছে না। অথচ, এর আগের প্রতি নির্বাচনেই এ ধরনের প্রচার ছিল। পেশাজীবী নেতৃবৃন্দ এ নির্বাচনকে এক ধরনের পুলিশী নির্বাচন বলেও মন্তব্য করে বলেন, এটি একটি অদ্ভুত নির্বাচন। তবে বিএনপি তথা ২০ দলীয় জোট সমর্থিত মেয়র প্রার্থীদের জয়যুক্ত করতে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার জন্য তারা নেতাকর্মী ও সমর্থকদের প্রতি আহ্বান জানান।

প্রকাশিত : ১৯ এপ্রিল ২০১৫

১৯/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: