কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মাহীর নাম বিএনপির সমন্বয় কমিটিতে, হাইকমান্ডে তোলপাড়

প্রকাশিত : ১৯ এপ্রিল ২০১৫
  • পহেলা বৈশাখে যৌন হয়রানিতে জড়িতদের বিচার দাবি বিএনপির

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিএনপির সমন্বয় কমিটিতে বিকল্প ধারার যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি. চৌধুরীর নাম থাকা নিয়ে ধূম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। বিএনপির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ভুলে সমন্বয় কমিটির সদস্য তালিকায় তার নাম রাখা হলেও পরে বাদ দেয়া হয়েছে। আর মাহী বি. চৌধুরী বিস্ময় প্রকাশ করে বলেছেন, আমি মেয়র পদে বিজয়ী হতে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছি। তাই বিএনপির সমন্বয় কমিটিতে আমার নাম থাকা গর্হিত কাজ। এদিকে শনিবার বিকেলে নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বিএনপি পহেলা বৈশাখে যৌন হয়রানির সঙ্গে জড়িতদের ট্রাইব্যুনালের অধীনে বিচারের দাবি জানিয়েছে।

উল্লেখ্য, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও দলের যুগ্ম মহাসচিব বরকতউল্লাহ বুলুকে সদস্য সচিব করে ঢাকা মহানগর উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের জন্য একটি সমন্বয় কমিটি গঠন করে বিএনপি। শুক্রবার বিকেলে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদের সভাপতিত্বে খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ে এ কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠককালে সমন্বয় কমিটির সদস্য তালিকায় মাহীর নাম দেখে ২০ দলীয় জোটের একটি শরিক দলের নেতা তাতে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। সঙ্গে সঙ্গে বিএনপির পক্ষ থেকে ভুল স্বীকার করে মাহীর নাম বাদ দেয়া হয়। তবে মাহীর নাম বাদ দেয়ার পরও ২০ দলীয় জোটের শরিক দলের নেতাদের মধ্যে এখন কেউ কেউ ইচ্ছাকৃতভাবেই মাহীর নাম রাখা হয়েছে কি না এ নিয়ে অভিযোগ উত্থাপন করেছেন। এ নিয়ে দলীয় হাইকমান্ডে তোলপাড় সৃষ্টি হয়।

এ বিষয়ে বিএনপির সহ-দফতর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন গণমাধ্যমকে বলেছেন, কমিটির ড্রাফটটি অনেক আগে করা ছিল। তাই মাহীর নাম রয়ে গেছে। এখান থেকে মাহীর নামটি বাদ দেয়া হয়েছে। তবে মাহীর নাম থাকাটা আমাদের ভুল ছিল।

এদিকে বিএনপির সমন্বয় কমিটিতে নাম থাকায় এক বিবৃতিতে মাহী বিস্ময় প্রকাশ করে এটি গর্হিত কাজ বলে উল্লেখ করেছেন। শনিবার সকালে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ঢাকা উত্তর সিটিতে বিএনপির প্রার্থী তাবিথ আউয়াল রাজনীতিতে অনভিজ্ঞ হতে পারেন। কিন্তু তার এমন গর্হিত কাজ করার কথা নয়। তিনি বলেন, আমি একজন মেয়র প্রার্থী এবং নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার জন্য আমি পুরোদমে কাজ করে যাচ্ছি। আমি সংবাদপত্রের মাধ্যমে জানতে পেরেছি বিএনপির সমন্বয় কমিটিতে আমার নাম রয়েছে। তবে কমিটিতে আমার নাম অন্তর্ভুক্তি ভুল হয়েছে বলে বিএনপির সহ-দফতর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন স্বীকার করেছেন।

পহেলা বৈশাখে যৌন হয়রানির সঙ্গে জড়িতদের ট্রাইব্যুনালের অধীনে বিচারের দাবি বিএনপির ॥ পহেলা বৈশাখে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গেট ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে যৌন হয়রানির ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে ট্রাইব্যুনালের অধীনে বিচারের দাবি জানিয়েছে বিএনপি। শনিবার বিকেলে নয়া পল্টন বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে দলের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপন এ দাবি করেন।

রিপন বলেন, যতটুকু শুনেছি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গেটের সামনের ঘটনায় পুলিশ যাদের আটক করেছিল সরকার দলের সমর্থক হওয়ায় পরে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে। আমরা এ ঘটনার নিন্দা জানাই। অপরাধী যে দলেরই হোক না কেন তাদের অবশ্যই আইনের আওতায় এনে বিচার করতে হবে। তিনি বলেন, শ্লীলতাহানিকারীদের বিরুদ্ধে সরকার পদক্ষেপ নিলে বিএনপি সমর্থন ও সহযোগিতা করবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির নাম উল্লেখ না করে রিপন বলেন, দলবাজ ভিসিদের সরিয়ে নিরপেক্ষ ভিসি নিয়োগ করা হলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নৈরাজ্যকর পরিবেশ সৃষ্টি হবে না। পহেলা বৈশাখের ঘটনার সঙ্গে জড়িত জঘন্য ক্যাডারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, অনির্বাচিত সরকারের অধীনে দেশ চললে এ ধরনের ঘটনা ঘটবে এটাই স্বাভাবিক। কারণ তারাই তো গণতন্ত্রের নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে জোর করে ক্ষমতায় এসেছেন। তারা তো নিজের বিচারই করতে পারে না, আবার অন্যের বিচার করবে কিভাবে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ড. সুজাউদ্দিন, বিএনপির সহ-আইনবিষয়ক সম্পাদক নিতাই রায় চৌধুরী, সহ-দফতর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন, নির্বাহী কমিটির সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, হেলেন জেরিন খান, শাম্মী আক্তার প্রমুখ।

প্রকাশিত : ১৯ এপ্রিল ২০১৫

১৯/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: