রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

স্ট্রবেরি চাষে ভাগ্য বদলেছেন রওশন

প্রকাশিত : ১৮ এপ্রিল ২০১৫

রওশন আরা। তিন সন্তানের জননী। বাড়ি সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার চন্দ্রকনা গ্রামে। সফল নারী। স্ট্রবেরি চাষ করে সফলতা অর্জন করেছেন। ভাগ্য বদল হয়েছে। এক সময় তাঁর কষ্ট ছিল। সন্তান স্বামী নিয়ে তাদের দিনাতিপাত চালানো বেশ দুঃসাধ্য ছিল। এখন এলাকায় তিনি সফল চাষী। সফল নারী। মাত্র তিন বছরেই তাঁর ভাগ্যের চাকা ঘুরে গেছে।

সফল নারী রওশন আরা জানান, স্ট্রবেরি ফলের কথা শুনে স্বামী হাসান আলীকে সঙ্গে নিয়ে বগুড়া শেরপুরের এক খামার থেকে চারা নিয়ে আসি। গত বছর বাড়ির পাশে ৫০ শতক জমিতে স্ট্রবেরি চাষ করি। এর দেড় মাস পর থেকে গাছে ফল আসতে শুরু করে। ফল আসা পর্যন্ত খরচ হয়েছিল ৫০ হাজার টাকা। খরচ বাদ দিয়ে লাভ হয়েছিল ২ লাখ টাকা। গত বছরের সফলতার কারণে এ বছর তিনি ৪ লাখ টাকার বিনিময়ে ৪ বিঘা জমি বন্ধক নিয়েছেন। ৪ বিঘা জমিতে এবার তিনি স্ট্রবেরি চাষ করেছেন। এতে তার খরচ হয়েছে ২ লাখ ১০ হাজার টাকা। স্বামী স্ত্রীর পরিচর্যায় বাম্পার ফলনও হয়েছে। তবে হরতাল অবরোধের কারণে গত বছরের তুলনায় এ বছর দাম কম। ২০১৪ সালে তিনি ৫শ’ থেকে ৬শ’ টাকা কেজি দরে স্ট্রবেরি বিক্রি করেছেন। এ বছর ৩শ’ থেকে ৪শ’ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছেন।

গত বছরের সফলতার কারণে এ বছর তাদের চাষের পরিধি আরও বেড়েছে। বাণিজ্যিকভাবে চাষ শুরু করেছেন তিনি। মাত্র ৩ মাসের ব্যবসায় রওশন আরা এখন লাভের মুখ দেখছেন। অত্যন্ত পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ রসালো ফল হওয়ায় সিরাজগঞ্জে স্ট্রবেরি চাষ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। ব্যাপকহারে স্ট্রবেরির চাহিদা বাড়ছে। ব্যাংক ঋণ অথবা সরকারীভাবে আর্থিক সহায়তা পেলে প্রসারতা আরও দ্বিগুণ করার স্বপ্ন স্ট্রবেরি সফল চাষী পরিবারের। রওশন আরা জানান, স্ট্রবেরি চাষের সাফল্য দেখে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার শিয়ালকোল ও উল্লাপাড়া উপজেলার বোয়ালিয়াতে বাণিজ্যিকভাবে স্ট্রবেরি চাষ শুরু করা হয়েছে।

সিরাজগঞ্জে স্ট্রবেরি চাষের প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে। তবে উচিঙ্গা পোকা ও পিঁপড়া গাছের কিছুটা সমস্যা করে।

-বাবু ইসলাম, সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত : ১৮ এপ্রিল ২০১৫

১৮/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: