কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আফ্রিদিহীন বাংলাদেশ-পাকিস্তান ওয়ানডে!

প্রকাশিত : ১৭ এপ্রিল ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ প্রায় ১৯ বছর আগের কথা। পাকিস্তান ক্রিকেটে এক ক্রিকেটারের অভিষেক হলো। ১৯৯৬ সালের ২ অক্টোবর, কেনিয়ার বিপক্ষে। ক্রিকেটারের নাম- শহীদ আফ্রিদি। প্রথম ম্যাচে ব্যাট হাতে নামতেই পারলেন না। বল করলেন। কিন্তু কোন উইকেট পেলেন না। কোন আলোই ছড়াতে পারলেন না। দ্বিতীয় ম্যাচেই এমন এক ইনিংস খেললেন, বিশ্ব ক্রিকেট কাঁপিয়ে দিলেন। বার্তা ছড়িয়ে দিলেন এসে পড়েছি। কী মারমুখী ব্যাটিং! শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৩৭ বলে শতক হাঁকিয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে দ্রুততম শতক হাঁকিয়ে দিলেন! সেই থেকে আফ্রিদির কাছ থেকে শুধু ধুন্ধুমার ব্যাটিংই দেখতে চান সবাই। সেই ক্ষুধা ১৯ বছরের ওয়ানডে ক্যারিয়ারে বহুবার মিটিয়েছেনও। বাংলাদেশের বিপক্ষেও একাধিকবার দেখিয়েছেন ঝলক। আফ্রিদির ওয়ানডে অভিষেক হওয়ার পর যতবারই বাংলাদেশের মাটিতে পাকিস্তান খেলেছে, এ অলরাউন্ডারের উপস্থিতি ছিলই। কিন্তু এবারই প্রথম বাংলাদেশের মাটিতে আফ্রিদিহীন বাংলাদেশ-পাকিস্তান ওয়ানডে হবে। যার শুরু হচ্ছে আজ। শুধু কী আজ, ১৯ এপ্রিল দ্বিতীয় ওয়ানডে, ২২ এপ্রিল তৃতীয় ওয়ানডেতেও আফ্রিদিকে দেখা যাবে না। দেখা যাবে না আর আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতেও। ওয়ানডে থেকেই যে অবসর নিয়ে ফেলেছেন। আফ্রিদির অভিষেকের পর বাংলাদেশের মাটিতে ১৩ ওয়ানডে খেলে পাকিস্তান। মোট ৩২ ওয়ানডের মধ্যে ১৩ ওয়ানডে যে বাংলাদেশে হয়েছে, সব আবার জিতে পাকিস্তানই। প্রতি ম্যাচেই ছিলেন আফ্রিদি। সেই ১৯৯৮ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত যখনই বাংলাদেশের মাটিতে পাকিস্তান খেলেছে, দলের অন্যতম ক্রিকেটার হিসেবেই আফ্রিদি খেলেছেন। ২০০০ সালে অপরাজিত ৪৫ রান, ২০০২ সালে ৮৩ রান ও ২ উইকেট, ২০০৮ সালে ৩ উইকেট, ২০১১ সালে অপরাজিত ২৪ ও ৫ উইকেট, ২০১৪ সালে ৫৯ রান করে ম্যাচ জেতান আফ্রিদি। বাংলাদেশের বিপক্ষে বাংলাদেশের মাটিতে ও বাইরে ২১ ম্যাচ খেলে ৩৫.১৩ গড়ে ৫২৭ রান করেন আফ্রিদি। দুর্দান্ত গড়! কিন্তু এবার আর আফ্রিদিকে ওয়ানডেতে দেখা যাবে না। না দেখা যাবে ব্যাট হাতে, না দেখা যাবে বল হাতে বোলিং করতে।

হোক বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলা, আফ্রিদি যখন ছক্কা হাঁকান তখন সবার মুখেই হাসি ফুটে। বাংলাদেশের কেউই চান না পাকিস্তান জিতুক। কিন্তু আফ্রিদির ধুন্ধুমার ব্যাটিংও সবাই উপভোগ করেন। আর যদি বাংলাদেশ ছাড়া অন্য কোন দলের বিপক্ষে খেলেন আফ্রিদি, তাহলে কথাই নেই। শুধু ‘আফ্রিদি, আফ্রিদি’ গর্জনও উঠতে দেখা গেছে। সেই রকম আর কখনও কোথাও দেখা যাবে না। টি২০ খেলবেন আফ্রিদি ঠিক। কিন্তু ওয়ানডেতে তাকে আর দেখা যাবে না। বাংলাদেশের মাটিতে প্রথমবারের মতো খেলছেন না আফ্রিদি। তাকে ভক্ত-সমর্থকরা নিশ্চয়ই মিস করবেন। সর্বশেষ ২০১৪ সালে যখন আফ্রিদি বাংলাদেশের মাটিতে মাঠে নামেন, তখনই ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলেছিলেন। বাংলাদেশ ৩২৬ রান করে জয়ের সুবাতাস দেখছিল। এমন মুহূর্তে পাকিস্তানকে ঝেঁকে ধরেছিল। কিন্তু আফ্রিদি যে ২৫ বলে ২ চার ও ৭ ছক্কায় ৫৯ রান করেন, সেখানেই পাকিস্তান জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায়। এমন আফ্রিদিকে আর দেখা যাবে না। বিশ্বকাপের পরই অবসর নেয়ার ঘোষণা দেয়ায় বাংলাদেশে আফ্রিদি সমর্থকরাও আর তাকে দেখতে পারবে না। অভিষেকের পর প্রথমবার বাংলাদেশের মাটিতে এ অলরাউন্ডারকে খেলতে দেখা যাবে না।

প্রকাশিত : ১৭ এপ্রিল ২০১৫

১৭/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: