মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

ঢাকা উত্তরের মেয়র প্রার্থীদের সংলাপ

প্রকাশিত : ১৬ এপ্রিল ২০১৫
  • প্রাইভেটকারে সিএনজি ব্যবহার বন্ধসহ নানা অঙ্গীকার

স্টাফ রিপোর্টার ॥ সংলাপে অংশ নিয়ে নানা প্রতিশ্রুতি দিলেন ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে অংশ নিতে যাওয়া উত্তরের মেয়র প্রার্থীরা। ইউএনডিপি ও বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেল আরটিভি আয়োজিত এ সংলাপে কোন প্রার্থী বললেন, নির্বাচিত হলে প্রাইভেটকারে সিএনজি ব্যবহার বন্ধ করবেন। আবার কেউ বললেন, নির্বাচিত হলে প্রতিবন্ধী, গর্ভবতী নারী, বৃদ্ধ ও শিশুদের জন্য সুবিধাজনক গণপরিবহন ব্যবস্থা করবেন। প্রতিবন্ধীদের জন্য ফ্ল্যাটের ব্যবস্থা করারও অঙ্গীকার করলেন কেউ কেউ। তবে পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি থাকায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত হতে পারেননি আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আনিসুল হক ও জাতীয় পার্টি সমর্থিত প্রার্থী বাহাউদ্দিন আহমেদ বাবুল। বুধবার গুলশানের স্পেক্ট্রা কনভেনশন সেন্টারে আয়োজিত এ সংলাপের শিরোনাম ছিল ‘তারুণ্যের ভাবনায় ঢাকা’। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক রোবায়েত ফেরদৌসের পরিচালনায় সংলাপে অংশ নেন মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল, জোনায়েদ সাকি, নাদের চৌধুরী, মাহী বি চৌধুরী, আবদুল্লাহ আল কাফী, আনিসুজ্জামান খোকন, শেখ শহীদুজ্জামান, কাজী মোঃ শহীদুল্লাহ, মোয়াজ্জেম হোসেন খান মজলিশ, এ ওয়াই এম কামরুল ইসলাম, মোঃ জামান ভূঞা প্রমুখ। আলোচনায় অংশ নিয়ে মেয়র নির্বাচিত হলে প্রতিবন্ধী, গর্ভবতী নারী, বৃদ্ধ ও শিশুদের জন্য সুবিধাজনক গণপরিবহন ব্যবস্থা করবেন বলে ওয়াদা দেন তাবিথ আউয়াল। সবার সুবিধার কথা চিন্তা করে এসব পরিবহনের রুট নির্ধারণ করা হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। তাবিথ বলেন, গর্ভবতী নারীরা প্রতি মুহূর্তে যাতায়াত অসুবিধায়, প্রতিবন্ধীরা সুযোগের অভাবে ভোগেন। এছাড়া পরিবহনের অভাবে বৃদ্ধদেরও কষ্ট করতে হয়। তাই তাদের জন্য সুবিধাজনক ব্যবস্থা করব। প্রতিবন্ধীদের জন্য আলাদা যাতায়াত সুবিধা, স্কুল-কলেজসহ বিভিন্ন বাড়তি সুবিধা দেব। প্রতিবন্ধীদের শক্তি ও মেধাকে কাজে লাগিয়ে দেশের সম্পদে পরিণত করার চেষ্টা করব। প্রাইভেটকারে সিএনজি (রূপান্তরিত প্রাকৃতিক গ্যাস) ব্যবহারের বিরোধী সিটি নির্বাচনে উত্তরের মেয়রপ্রার্থী জোনায়েদ সাকি। তার মতে, গণপরিবহনগুলো যদি সুবিধাজনক ও নিরাপদ করা যায়, বিত্তবানরাও সেগুলোতে চলাচল করবেন। মেয়র নির্বাচিত হলে ‘মানবিক ঢাকা’ তৈরিতে যা যা করণীয় সবই করবেন বলে ওয়াদা দেন তিনি। জোনায়েদ সাকি বলেন, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, নারীদের জন্য নিরাপদ ও প্রতিবন্ধীদের জন্য সুবিধাজনক নগরী গড়ব আমরা। ঢাকা হবে একটি মানবিক শহর। রাজধানীতে বাইসাইকেলের ব্যবহারে সবাইকে উৎসাহিত করতে হবে। সবাই প্রাইভেটকারে চড়বেন, এমনটি চিন্তা করা উচিত নয়। নির্বাচন সামনে রেখে এমন কথা বলা ঝুঁকিপূর্ণ। তবু বলতে চাই, প্রাইভেটকারে সিএনজি ব্যবহার ঠিক নয়। গণপরিবহন সুবিধাজনক হলে বিত্তবানরাও সেগুলো ব্যবহার করবেন। সেভাবেই কাজ করতে হবে। নির্বাচিত হলে মাসে অন্তত একবার সর্বস্তরের নাগরিকদের নিয়ে সংলাপে বসবেন বদরুদ্দোজা চৌধুরীর ছেলে মাহী বি চৌধুরী। উপস্থিত নাগরিকরা কয়েকটি প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, আমি মেয়র হলে মাসে অন্তত একবার সর্বস্তরের নাগরিকদের নিয়ে সংলাপে বসব, তাদের কথা শুনে তাদের মতের ভিত্তিতেই রাজধানীর উন্নয়ন করব। উপস্থিত একজনের প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে তিনি বলেন, এসব প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিতে পারব, যেদিন আমি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচনে প্রার্থী হবো। প্রতিবন্ধীদের বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মাহী বলেন, প্রতিবন্ধীদের আলাদা করে দেখতে রাজি নই। তাদের আলাদা করে না দিয়ে, সবার সঙ্গেই তাদের জন্য সুবিধাজনক ব্যবস্থা করতে চাই। আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আনিসুল হকের নির্বাচনী ইশতেহারকে ‘অন্তসার শূন্য’ হিসেবে উল্লেখ করেন মাহী বি চৌধুরী। বলেন, নগরবাসীর জন্য তাঁর (আনিসুল) সুনির্দিষ্ট কোন কর্মসূচী নেই। তাই তিনি অন্য প্রার্থীদের সঙ্গে কোন উন্মুক্ত বিতর্কে আসতে ভয় পাচ্ছেন। যে কারণে মেয়র প্রার্থীদের নিয়ে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে তিনি আসেননি।

মেয়র নির্বাচিত হলে প্রতিবন্ধীদের জন্য ফ্ল্যাটের ব্যবস্থা করার কথা বললেন প্রার্থী শেখ শহীদুজ্জামান। প্রতিবন্ধীদের আবাসন সমস্যা মেটাতে এ উদ্যোগ নেবেন তিনি।

প্রকাশিত : ১৬ এপ্রিল ২০১৫

১৬/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: