আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বাংলাদেশের মেয়েদের লক্ষ্য ফাইনালে খেলা

প্রকাশিত : ১৬ এপ্রিল ২০১৫
  • এএফসি অনুর্ধ-১৪ গার্লস রিজিওনাল চ্যাম্পিয়নশিপ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আগামী ২০-২৫ এপ্রিল ২০১৫ পর্যন্ত এএফসি অনুর্ধ-১৪ গার্লস রিজিওনাল চ্যাম্পিয়নশিপের খেলা নেপালের কাঠমান্ডুতে অনুষ্ঠিত হবে। ‘সাউথ এ্যান্ড সেন্ট্রাল জোন’-এ পড়েছে বাংলাদেশ। গ্রুপ ‘বি’ তে বাংলাদেশের সঙ্গে আছে ভারত ও ভুটান। গ্রুপ ‘এ’তে আছে ইরান, মালদ্বীপ, শ্রীলঙ্কা ও নেপাল। এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে বাংলাদেশ অনুর্ধ-১৪ বালিকা ফুটবল দল আগামী ১৯ এপ্রিল দুপুর ১টায় নেপালের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করবে। এ উপলক্ষে বুধবার বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) ভবনের কনফারেন্স রুমে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন বাফুফে মহিলা ফুটবল কমিটির ডেপুটি চেয়ারপার্সন মাহফুজা আক্তার কিরণ, বাফুফে সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ, টিম ম্যানেজার আয়েশা জামান খুকি, প্রধান প্রশিক্ষক গোলাম রব্বানী ছোটন, অধিনায়ক কৃষ্ণা রানী সরকার ও সহঅধিনায়ক মিরশাত জাহান মৌসুমী, বাফুফে মহিলা ফুটবল কমিটির সদস্য মাহফুজা নজরুল, সদস্য লাজুল নাহার কস্তুরী, সদস্য নাছরিন আক্তার বেবী, সহকারী প্রশিক্ষক মাহবুবুর রহমান লিটু প্রমুখ। কিরণ বলেন, ‘আমাদের এই দলে একাধিক অভিজ্ঞতাসম্পন্ন খেলোয়াড় আছে, যারা দুই বছর আগে এ আসরে খেলেছে। দলের নবীন খেলোয়াড়ও যথেষ্ট কুশলী। আশা করি তারা ভাল খেলবে।’ অপর এক প্রশ্নে জবাবে কিরণ আরও বলেন, ‘মেয়েরা অবশ্যই খেলা শেষে বেকার বসে থাকবে না। বাফুফের পরিকল্পনা অনুযায়ী আগামী রোজার পরই মেয়েদের নিয়ে লীগ শুরু হবে।’ কোচ ছোটন বলেন, ‘৫০ দিন দলকে অনুশীলন করিয়েছি। ২৫ ফেব্রুয়ারি ৩৯ জনকে নিয়ে প্রাথমিক ক্যাম্প শুরু করি। তারপর ২৮ ফেব্রুয়ারি দল হয় ২৭ জনের। ১০ এপ্রিল তিনজনকে এবং ১২ এপ্রিল ছয়জনকে বাদ দিয়ে ১৮ জনের চূড়ান্ত স্কোয়াড গঠন করি। ২০১২ আসরে সর্বশেষ সাক্ষাতে আমরা ভারতের কাছে ৫-১ গোলে হেরেছিলাম। এবার সে রকম কিছু হবে না বলে দৃঢ় আশাবাদী। আমরা এবার অনেক পরিণত দল। আশা করি আমরা ফাইনাল খেলব। এ জন্য কঠোর অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছি।’ এই দলে একাধিক এমন কিছু খেলোয়াড় আছে, যারা অচিরেই জাতীয় দলের হয়ে খেলার যোগ্যতা রাখে বলে জানান ছোটন। অধিনায়ক কৃষ্ণ রানী সরকার বলেন, ‘আমরা শক্তিশালী দল। ফাইনালে খেলার লক্ষ্য নিয়ে নেপালে যাব। দেশকে কিছু দিতে চাই। অবশ্যই ভাল খেলার চেষ্টা করব।’ সহঅধিনায়ক মিরশাত জাহান মৌসুমী বলেন, ‘চেষ্টা করব ভাল রেজাল্টের। আমাদের দলে আছে অনুর্ধ-১৬ দলের ৭ ফুটবলার। আমাদের প্রধান প্রতিপক্ষ ভারত। তাদের বিরুদ্ধে গোল করতে না পারি কিন্তু গোল খাব না। আর ভুটানের বিরুদ্ধে অবশ্যই আমরা জিতব। এ জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চাচ্ছি।’ এই টুর্নামেন্টে সাত দেশ দুই গ্রুপে ভাগ হয়ে খেলবে। প্রতি গ্রুপ থেকে শীর্ষ দুই দল খেলবে সেমিতে। সেক্ষেত্রে গ্রুপের একটি ম্যাচ জিতলেই বাংলাদেশের শেষ চারে খেলাটা নিশ্চিত। ‘দলের খেলোয়াড়দের মান দেখেই এই আমি ভরসা পাচ্ছি।’ ছোটনের অভিমত। ভারতকেও হারানোর মতো শক্তি আর মনোবল বাংলাদেশের মেয়েদের আছে বলে দাবি করেন ছোটন। কারণটাও ব্যাখ্যা করেন, ‘কয়েক মাস আগে অনুর্ধ-১৬ টুর্নামেন্টে ভারতকে তো আমরা প্রায় হারিয়েই দিচ্ছিলাম। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ান রেফারি গোল, মার্গারেটের বিতর্কিত রেফারিংয়ের কারণে আমরা অল্পের জন্য হেরে যাই।’ ইতোমধ্যে অনুর্ধ-১৪ বালিকা দল ৭ প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে। জিতেছে ৫, ড্র করেছে ২টিতে।

প্রকাশিত : ১৬ এপ্রিল ২০১৫

১৬/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: